Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

আমি ওটিপি শেয়ার না করলেও কি আমার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে চুরি হতে পারে?

সন্দীপ সেনগুপ্ত
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১২:৩৮


প্রতীকী চিত্র

সবাই বলে ওটিপি শেয়ার না করলে ব্যাঙ্কের টাকা চুরি হয় না। কিন্তু চোরেরা এখন অনেক সেয়ানা। তারা ক্রমাগত নানান পদ্ধতি বার করে চলেছে আপনার টাকা চুরি করতে। তাই ওটিপি যেমন শেয়ার করবেন না তেমনই মাথায় রাখবেন টাকা ট্রান্সফার করার অনেক রকম উপায় আছে।

যেমন,১) আপনি হয়তো কোনও রেস্তোরাঁ বা পেট্রল পাম্পে গিয়েছেন। সেখানে কাউন্টারের ব্যক্তির হাতে তুলে দিয়েছেন নিজের ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড। ওই লোকটি কিন্তু চাইলেই নিজের মোবাইল ফোনের ক্যামেরা ব্যবহার করে চোখের নিমেষে আপনার কার্ডের উভয় পিঠের ছবি তুলে নিতে পারে। লোকটি যদি কোনও অফশোর ই-কমার্স ওয়েবসাইটে কার্ডটি ব্যবহার করে, তাহলে কোনও ওটিপি কিংবা পিন-এর প্রয়োজনই পড়বে না। তাই আপনার যে কার্ডে বিদেশি লেনদেনের সুযোগ আছে সেটি সাবধানে ব্যবহার করুন।

২) আবার আজকাল অনেক প্রতারক অন্য একটি উপায়ও অবলম্বন করছে। বিভিন্ন অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে ব্যবহার করে আপনার অ্যাকাউন্টে কিছু টাকা পাঠিয়ে দিচ্ছে। তারপরই ফোন চলে আসছে আপনার কাছে। কাঁচুমাচু গলা করে একজন আপনাকে জানাবে যে ভুলবশতঃ আপনার অ্যাকাউন্টে সে টাকা পাঠিয়ে ফেলেছে, আর এই টাকা যদি এখুনি তাকে ফেরত না পাঠানো হয় তবে অফিসে অডিটার হিসেবের গোলমাল পাবে এবং ফল হিসেবে তার অ্যাকাউন্ট্যান্টের চাকরিটি যাবে। আপনাকে সেই টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য সে কাকুতি- মিনতি করবে। আপনি দয়াপরবশ হয়ে রাজি হয়ে গেলেই সে কাজটা করার জন্য আপনাকে একটি কিউ-আর কোড স্ক্যান করতে বলবে। যে মুহূর্তে আপনি কিউ-আর কোডটি স্ক্যান করবেন, দেখতে পাবেন আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা হুশ করে বেরিয়ে গেল! তাই কিউ আর কোড স্ক্যান করার ব্যাপারে সাবধান হবেন। মোবাইলে ব্যাঙ্কিং অ্যাপ থাকলে তো আরও বেশি।

Advertisement

মাথায় রাখুন:

১) নিজের মোবাইলে টিমভিউয়ার কিংবা এনিডেস্ক সফটওয়্যার কোনও ভাবেই ইনস্টল করবেন না।
২) নিজের অনুপস্থিতিতে আপনার মোবাইল বা ক্রেডিট/ডেবিট কার্ড কারও হাতে তুলে দেবেন না।
৩) কারও কথায় কোনও কিউ-আর কোড স্ক্যান করবেন না।
৪) ওয়াটসঅ্যাপ কিংবা এমএমএস-এ কোনও লিঙ্কে না জেনে শুনে ক্লিক করতে যাবেন না।
৫) যখন ব্যবহার করছেন না, তখন নেটব্যাঙ্কিং ড্যাসবোর্ড সাইন-ইন করে নিজের ক্রেডিট/ডেবিট কার্ড ডি-অ্যাক্টিভেট করে রাখুন।
৬) সেভিংস অ্যাকাউন্টে খুব বেশি টাকা জমা রাখবেন না। ন্যূনতম পরিমাণ টাকা সেভিংসে রাখুন, বাকিটা জমা করে দিন ফিক্সড ডিপোজিটে। অথবা অন্যান্য নানা অ্যাকাউন্টেই রাখতে পারেন, যেগুলি ইউপিআই কিংবা সিসি-র সঙ্গে যুক্ত নয়।
৭) আপনি যদি একান্তই মোবাইল মারফৎ টাকা লেনদেন করতে চান তাই ওই বিশেষ মোবাইলটিতে অপ্রয়োজনীয় কোনও অ্যাপ ইনস্টল করবেন না। বিশেষ করে যেসব অ্যাপ এসএমএস করার জন্য গ্রাহকের অনুমতি চায় ক্রমাগত, তাদের ব্যাপারে শত হস্ত দূরে থাকবেন।
৮) ভুলেও কোনও ই-কমার্স ওয়েবসাইটের এক্সপ্রেস চেক-আউটে আপনার ক্রেডিট কার্ড সেভ করবেন না।

আরও পড়ুন

Advertisement