Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

চিত্র সংবাদ

Bollywood: অজান্তেই পর্ন ছবির শ্যুটিং করে ফেলেন মডেলরা, স্মৃতি ভোলাতে দেওয়া হয় মাদক

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৭ ডিসেম্বর ২০২১ ০৮:৩৭
না জেনেই প্রাপ্তবয়স্ক ছবিতে অভিনয় করে ফেলেন কিছু আনকোরা মডেল-অভিনেত্রী।  তাঁরা বুঝতেও পারেন না কখন ক্যামেরার সামনে নিজেদের পোশাক খুলে ফেলছেন। অভিনেতা হতে চেয়ে প্রযোজনা সংস্থার দরজায় ঘোরেন হাজারও প্রতিভাধর। এঁরাই এমন অপ্রীতিকর ঘটনার শিকার হন মুম্বইয়ে। সম্প্রতি এমনই অভিযোগ করেছেন এক প্রাক্তন ‘বিউটি কুইন’ পরী পাসোয়ান।

বলিউডের আঁতুড়ঘর মুম্বই। অসংখ্য প্রযোজনা সংস্থার দফতর সেখানে। কারা কী সিনেমা করছেন, তার হিসাব রাখা সহজ নয়। তাই ভুল করে ফেলেন অনেকেই।
Advertisement
অভিযোগকারী বিউটি কুইন জানিয়েছেন, এই ‘না-জানা’রই সুযোগ নেয় কিছু চক্র। যাঁরা মুম্বইয়ে বসেই পর্ন ছবির ব্যবসা চালান।

সম্প্রতিই বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রার কীর্তি প্রকাশ্যে এসেছে। অভিযোগ, রাজ এই পর্ন ছবিরই ব্যবসা ফেঁদে বসেছিলেন। অভিযোগকারিনীর পরিবারের দাবি, তিনি রাজেরই প্রযোজনা সংস্থার শিকার হয়েছিলেন।
Advertisement
২০১৯ সালে মিস ইন্ডিয়া ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হন পরী পাসোয়ান। তাঁর অভিযোগ, তাঁর অজান্তেই  তাঁকে দিয়ে পর্ন ছবির শ্যুটিং করানো হয়েছিল।

তিনি নিজে অবশ্য রাজ কুন্দ্রার সংস্থার নাম করেননি। তবে বলেছেন, কাজের জন্য ডাক পেয়ে মুম্বইয়ের একটি প্রযোজনা সংস্থার দফতরেই ভয়াবহ অভিজ্ঞতা হয় তাঁর।

পরী জানিয়েছেন, সাক্ষাৎকারের আগে তাঁকে নরম পানীয় দেওয়া হয় প্রযোজনা সংস্থার দফতরে। তারপরের বেশ কয়েক ঘণ্টার কথা আর মনে নেই তাঁর।

তবে ঠিক কী হয়েছিল, তা মনে করতে না পারলেও তাঁর সঙ্গে যে মারাত্মক খারাপ কিছু হয়েছে তা বুঝতে পেরেছিলেন পরী। বিষয়টি বুঝে তিনি পরের দিনই স্থানীয় থানায় ঘটনাটি জানান এবং ওই প্রযোজনা সংস্থার বিরুদ্ধে এফআইআর করেন।

তবে তত ক্ষণে অনেকটাই দেরি হয়ে গিয়েছে। ভাইরাল হয়ে গিয়েছে পরীর আপত্তিকর ভিডিয়ো।

ঘটনাটি যে সময় ঘটে তার কিছুদিন আগেই বিয়ে হয়েছিল পরীর। ভাইরাল হওয়া ভিডিয়োটির প্রসঙ্গ তুলে পরীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন তাঁর স্বামী নীরজ পাসোয়ান এবং শ্বশুরবাড়ির অন্য সদস্যরা।

পরী অবশ্য জানিয়েছেন, ভিডিয়োটি যখন শ্যুট করা হয়েছিল তখন তাঁর জ্ঞান ছিল না। তাঁর অনুমান, পানীয়ে মাদক মিশিয়ে কিছুক্ষণের জন্য তাঁকে শুধু একটি মস্তিষ্কহীন শরীরে পরিণত করা হয়েছিল।

তাই তাঁকে এ ক্ষেত্রে দোষ দেওয়া যায় না। কারণ তিনি একটি চক্রের পরিকল্পিত কুকর্মের শিকার।