• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিনোদন

কম বয়সেই বাবা, স্ত্রীয়ের ক্যানসার, ১৩ বছর ধরে ভালবাসা একই থেকে গিয়েছে আয়ুষ্মানের

শেয়ার করুন
১৪ ayushman
বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে একটি অতি জনপ্রিয় নাম আয়ুষ্মান খুরানা। তাঁর জনপ্রিয়তা অবশ্য অভিনয় দক্ষতার কারণে। এর বাইরেও আরও একটি কারণে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জন্মানোটা খুব স্বাভাবিক। সেটা হল পরিবারের প্রতি তাঁর কর্তব্যবোধ এবং দায়বদ্ধতা। প্রচুর ঝড়ঝাপটা পেরিয়েও ১৩ বছর ধরে ছোটবেলার বান্ধবী এবং স্ত্রী তাহিরার সঙ্গে আয়ুষ্মানের ভালবাসার সম্পর্কে এতটুকু মরচে পড়েনি।
১৪ ayushman
ঠিক ততটাই দায়বদ্ধ তাঁর দুই সন্তানের প্রতি, তাঁর বাবা-মার প্রতিও। ছোট থেকেই আয়ুষ্মানের অভিনয়ের দিকে প্রচণ্ড ঝোঁক। মাধুরী দীক্ষিতের একটি সিনেমা দেখেই তাঁর অভিনয়-প্রেম। কিন্তু মাত্র চার বছর বয়সে যখন তাঁর মুখ থেকে অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছা সামনে আসে, ঠাকুরমা তাঁর গালে চড় কষিয়ে দিয়েছিল।
১৪ ayushman
আয়ুষ্মানের জন্ম চণ্ডীগড়ে, ১৯৮৪-র ১৪ সেপ্টেম্বর। তাঁর বাবা পি খুরানা একজন জ্যোতিষী। মা অনিতা মায়ানমারের মেয়ে, গৃহবধূ। পরিবারে অভিনয় পেশাটাকে খুব একটা ভাল চোখে দেখতেন না কেউই। ঠাকুরমার থেকে চড় খাওয়ার পর থেকে আর কোনওদিন অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেননি। মনেই রেখে দিয়েছিলেন।
১৪ ayushman
তাঁর অভিনয় জগতে আসার পিছনে যে চূড়ান্ত পরিশ্রম রয়েছে, তাতে সব সময়ই পাশে পেয়েছেন স্ত্রী তাহিরা কাশ্যপকেই। ২০১৮ সালে স্ত্রীয়ের ব্রেস্ট ক্যানসার ধরা পড়ে, স্ত্রী তাহিরার এই স্ট্রাগল পিরিয়ডে আয়ুষ্মানও শক্ত করে তাঁর হাত ধরে রয়েছেন। স্ত্রীয়ের মনের জোরেই এই মানসিক লড়াইয়ের শক্তি পেয়েছেন তিনি, এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন আয়ুষ্মান।
১৪ ayushman
আয়ুষ্মান-তাহিরার প্রেম কাহিনিটাও বেশ ফিল্মি। তাহিরা এবং আয়ুষ্মান দু’জনেই চণ্ডীগড়ের। দ্বাদশ শ্রেণির পদার্থবিদ্যার টিউশন ক্লাসেই দু’জনের দেখা। প্রথম দেখাতেই একে অপরের প্রতি ক্রাশ তৈরি হয়। কিন্তু কেউই বলে উঠতে পারেননি। ক্লাসের এক বন্ধু একবার আয়ুষ্মানকে বলেছিলেন যে, তাহিরাও তাঁকে পছন্দ করেন।
১৪ ayushman
তাহিরার প্রতি তখন ক্লাসের অনেক ছেলের ক্রাশ। তার উপর ক্লাসে তাঁর থেকেও অনেক হ্যান্ডসম ছেলে রয়েছে। তাহিরা পছন্দ করবে আয়ুষ্মানকে! বন্ধুর কথা কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারছিলেন না তিনি। কাউকে জিজ্ঞাসা করে বিষয়টা যাচাই করাও সম্ভব ছিল না। এর মাঝে তাঁদের দু’জনের বাবা এসে পড়েন। কাহিনিতে টুইস্ট হয়।
১৪ ayushman
তাহিরার বাবা একদিন তাঁকে জানান যে, তাঁর এক পুরনো বন্ধুর বাড়ি ডিনারে নিমন্ত্রণ রয়েছে। সপরিবার তাঁরা সেখানে যাবেন। ওই পুরনো বন্ধুটি আবার জ্যোতিষী। জ্যোতিষী শুনে তাহিরা ভীষণ উত্তেজিত হয়ে পড়েন। জ্যোতিষীর থেকে তাঁর পরীক্ষার ফলাফলটা জেনে নেওয়ার জন্য ব্যাকুল হয়ে পড়েন।
১৪ ayushman
জ্যোতিষীর বাড়িতে পৌঁছে রীতিমতো থ হয়ে যান তাহিরা। এই বাড়িটাই আয়ুষ্মান খুরানার! সেই দিনই প্রথম তাঁরা একে অপরের সঙ্গে কথা বলেন। সারা রাত দু’জনে গল্প করেছিলেন। আয়ুষ্মান গান গেয়ে শুনিয়েছিলেন, আর ক্রমে তাঁকে আরও ভাল লেগে যাচ্ছিল তাহিরার।
১৪ ayushman
স্কুল পাশের পর থেকেই তাঁরা ডেট করতে শুরু করেন। দু’জনেই পঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস কমিউনিকেশনে স্নাতকোত্তর হন। তারপর একটা থিয়েটারে গ্রুপে যোগ দেন।
১০১৪ ayushman
তাহিরা খুব তাড়াতাড়ি প্রতিষ্ঠিত হয়ে গিয়েছিল। তাহিরার নিজস্ব পিআর ফার্ম রয়েছে, পঞ্জাবের রেডিয়ো স্টেশনের প্রোগামিং হেড-ও হয়েছেন তিনি। কিন্তু আয়ুষ্মান তখনও লড়ে যাচ্ছন প্রতিষ্ঠিত হওয়ার জন্য। দু’জনেরই পরিকল্পনা ছিল, পড়াশোনা শেষ করার পরই বিয়ে করার।
১১১৪ ayushman
কিন্তু আয়ুষ্মানের কাছে হাত খরচ ছাড়া আর কিছুই ছিল না তখন। কোনওক্রমে হাত খরচটুকু জোগাড় করতেন তিনি। তার উপর তাঁর তীব্র অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছা, এ সব দেখে এক সময় তাহিরার মনে হয়েছিল, কোনওদিনই তাঁদের বিয়ে সম্ভব নয়। কারণ তাঁর বাড়িতে কোনওদিন মেনে নেবে না।
১২১৪ ayushman
কিন্তু তা বলে কি পিছিয়ে আসা যায়! এতদিনের ভালবাসাকে ভুলে যাওয়া যায়! ওই অবস্থাতেই ২০১১ সালে আয়ুষ্মানকে বিয়ে করেছিলেন তাহিরা। তারপর দীর্ঘদিন তাঁরা ডিসট্যান্ট রিলেশনশিপে ছিলেন। কর্মসূত্রে তাহিরা ছিলেন পঞ্জাবে আর আয়ুষ্মান মুম্বইয়ে। ২০১২ সালে ‘ভিকি ডোনার’ করে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন আয়ুষ্মান। এরপরের তাঁর বলি জার্নিটা সকলেরই জানা।
১৩১৪ ayushman
মাত্র ২৭ বছর বয়সে আয়ুষ্মানের প্রথম সন্তান বিরাজবীরের জন্ম হয় ২০১২ সালে। তার দু’বছর পর সংসারে নতুন অতিথি, তাহিরা-আয়ুষ্মানের মেয়ে, বরুষ্কা। স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে সুখী পরিবার আয়ুষ্মানের। তারপর ২০১৮-এ আয়ুষ্মান-তাহিরার দাম্পত্যে অপ্রত্যাশিত আঘাত আসে। ব্রেস্ট ক্যানসার ধরা পড়ে তাহিরার।
১৪১৪ Ayushmann Khurrana
সে সময় সকালে শুটিং, সিনেমার প্রচারে ব্যস্ত থাকতেন আয়ুষ্মান। রাতে হাসপাতালে যেতেন স্ত্রীর কাছে। সম্পর্কে অনেক টানাপড়েন গিয়েছে তাঁদের। তা সত্ত্বেও ভালবাসা আজও অক্ষুণ্ণ আয়ুষ্মান-তাহিরার।

Advertisement

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর
আরও পড়ুন