Advertisement
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Indian Android devices infected by Agent Smith

‘এজেন্ট স্মিথ’-এ আক্রান্ত ভারতের দেড় কোটি অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস

‘এজেন্ট স্মিথ’ ম্যালওয়ার ভারতে প্রায় দেড় কোটি স্মার্টফোনের বিভিন্ন অ্যাপের উপর বাজে প্রভাব ফেলেছে, এই অ্যাপ ডাউনলোড করার পর বিভিন্ন ধরনের প্রতারণাপূর্ণ বিজ্ঞাপন অনবরত মোবাইলে ঢুকেছে।

ভারতে দেড় কোটি ডিভাইস আক্রান্ত হল এজেন্ট স্মিথ ম্যালওয়ার দ্বারা। ছবি সৌজন্য: শাটারস্টক।

ভারতে দেড় কোটি ডিভাইস আক্রান্ত হল এজেন্ট স্মিথ ম্যালওয়ার দ্বারা। ছবি সৌজন্য: শাটারস্টক।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ১৩ জুলাই ২০১৯ ০৯:৩০
Share: Save:

ডিজিটাল মিডিয়ার সঙ্গে এখনকার জীবন ওতপ্রোত ভাবে জড়িত। এর অনেক ভাল দিক থাকলেও, মন্দ দিক কম নয়। সাইবার জগতে পা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সেখানকার নিরাপত্তা সম্পর্কেও আমাদের সচেতন থাকা দরকার। না হলেই ভোগান্তি!

সম্প্রতি সাইবার সিকিউরিটি ফার্ম ‘চেক পয়েন্ট’ তাদের এক রিপোর্টে জানিয়েছে, বিশ্বব্যপী আড়াই কোটি মোবাইল ডিভাইস একটি ম্যালওয়ারে আক্রান্ত হয়েছে। তার মধ্যে ভারতেই প্রায় দেড় কোটি। কিন্তু অনেক গ্রাহকই তা জানেন না এবং এখনও পর্যন্ত সে সম্পর্কে সচেতন নয়। ভারতে বেশির ভাগ অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস এই ম্যালওয়ারটির দরুণ আক্রান্ত হয়েছে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, ওই ম্যালওয়ারের নাম ‘এজেন্ট স্মিথ’। অনেকেই গুগল আপডেটর হিসেবে ভুল ভেবে নিজের স্মার্টফোনে অ্যাপটি নামিয়েছেন। কিছু দিন পরেই গ্রাহকের অজান্তে অ্যাপটি নিজের কোড পরিবর্তন করে ম্যালওয়ারে পরিণত হচ্ছে। ‘এজেন্ট স্মিথ’ স্মার্টফোনের বিভিন্ন অ্যাপের উপর বাজে প্রভাব ফেলেছে, এই অ্যাপ ডাউনলোড করার পর বিভিন্ন ধরনের প্রতারণাপূর্ণ বিজ্ঞাপন অনবরত মোবাইলে ঢুকেছে। এই অ্যাপের মাধমে এখনও কোনও গ্রাহক ক্ষতিগ্রস্ত হননি। কিন্তু চেক পয়েন্টের মতে, ভবিষ্যতে অনলাইন আর্থিক প্রতারণার সম্ভাবনা থাকতে পারে।

আরও পড়ুন: উইন্ডোজ ১০-এ ‘বাগ’? চিন্তায় মাইক্রোসফ্ট

বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ যেগুলি ‘এজেন্ট স্মিথ’ দ্বারা সংক্রমিত হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে কল স্ক্রিন থিম, ফোটো প্রোজেক্টর, র‍্যাবিট টেম্পেল, কিস গেম: টাচ হার হার্ট, এবং গার্ল ক্লোথ এক্স-রে স্ক্যান সিমিউলেটর।

‘চেক পয়েন্ট’-এর থেকে কিছু টিপস:

যে যেকোনও অ্যাপ ডাউনলোড করার আগে ভাল করে যাচাই করে নেওয়া প্রয়োজন। এ জন্য নির্দিষ্ট অ্যাপটির অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকেই অ্যাপটিকে ইনস্টল করা উচিৎ। যে কোনও সংস্থা এবং গ্রাহক দু’জনেরই ‘অ্যাডভান্স মোবাইল থ্রেট প্রিভেনশন সলিউশন’ মোবাইল ফোনে ইনস্টল করা প্রয়োজন। যাতে ভবিষ্যতে স্মার্টফোনে কোনও ধরনের সাইবার হুমকি বা অপরাধ সংঘটিত হওয়ার সম্ভাবনা না থাকে। গ্রাহককে তার স্মার্টফোনের ব্যাটরির দিকে নজর রাখতে হবে। এই ধরনের ম্যালওয়ার ডিভাইসে থাকলে ব্যাটরির চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যায়। সে ক্ষেত্রে গ্রাহককে সচেতন থাকতে হবে। যদি কোনও অ্যাপ অনবরত গ্রাহকের ডিভাইসে পপ-আপ বিজ্ঞাপন দেখায়, তখনই অ্যাপটিকে আনইনস্টল করতে হবে।

আরও পড়ুন: ব্যক্তিগত কথা শুনছে, স্বীকার করে নিল গুগল!

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE