ইন্ডিয়ান সুপার লিগের উদ্বোধনী ম্যাচ খেলতে নামার তিন দিন আগে এটিকে কোচ আন্তোনিয়ো লোপেজ হাবাস বলে দিলেন, ‘‘স্প্যানিশরা কোচ হয়ে দায়িত্ব নিলেই এটিকে সফল হয়, এই মিথ-এ আমি বিশ্বাসী নই। ফুটবল মাঠে জিততে হলে ভাগ্যের দরকার হয়, তা-ও মনে করি না। ভাগ্য দিয়ে কোনও ম্যাচ জেতা যায় না। ভাল প্রস্তুতি নিয়ে মাঠে নামলেই সফল হওয়া যায়। যা আমরা করে  যাচ্ছি।’’

কেরল ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে  কোচিতে রবিবার খেলা হাবাসের দলের। ম্যাচের দিন স্টেডিয়ামে হাজির থাকার কথা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের। সৌরভ এটিকের সঙ্গে জড়িয়ে ক্লাবের শুরু থেকেই। হাবাস-সহ পুরো দল তাতে বেশ উত্তেজিত। আজ, শুক্রবারই কেরল যাচ্ছে এটিকে।  তার আগে বৃহস্পতিবার দলের দুই বঙ্গসন্তান প্রণয় হালদার-প্রীতম কোটাল, অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার ডেভিড উইলিয়ামস এবং সহকারী কোচ সঞ্জয় সেনকে নিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন স্প্যানিশ কোচ। 

আতলেতিকো মাদ্রিদের সঙ্গে যখন কলকাতার গাঁটছড়া ছিল তখন কোচ ছিলেন হাবাস। প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন এবং দ্বিতীয় বার তিনি শেষ চারে তুলেছিলেন কলকাতাকে। প্রায় তিন বছর পরে আবার এটিকে-র দায়িত্ব নিয়ে শহরে আসা হাবাস অবশ্য এখন অনেকটাই বদলে গিয়েছেন। বলছিলেন, ‘‘কলকাতা সব সময়ই আমার কাছে স্পেশ্যাল। এই শহরের প্রতি আমার দারুণ শ্রদ্ধা। তবে কবে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলাম বা চলে গিয়েছিলাম সেই  কথা মনে রাখতে চাই না। সেই সময়ের দলের সঙ্গে এ বারের দলেরও তুলনাও হয় না। এমনিতে এ বার আমাদের প্রস্তুতি ভাল হয়েছে।’’ পাশাপাশি তাঁর মন্তব্য, ‘‘শুধু কেরল নয়, কোন দল কেমন হয়েছে সে সম্পর্কে কোনও ধারণা নেই আমার।’’

গত পাঁচ বছরের সঙ্গে এ বারের আইএসএলের ফারাক অনেক। এই টুর্নামেন্টকে দেশের এক নম্বর প্রতিযোগিতা হিসাবে স্বীকৃতি দিয়েছে ফেডারেশন। হাবাসও তাতে বেশ উদ্বুদ্ধ মনে হল। ‘‘এটা ফুটবলরাদের মোটিভেশন বাড়াবে,’’ বলছিলেন এটিকে কোচ। গত দু’বছর চূড়ান্ত ব্যর্থ হওয়ার পর এটিকে ফের ফিরেছে স্প্যানিশ জমানায়। কোচের সঙ্গে তিন স্প্যানিশ জাভি হার্নান্ডেজ, এদু গার্সিয়া এবং আগুস গার্সিয়াকে সই করানো হয়েছে। গত বছর গোলের অভাবে ভুগেছিল এটিকে। এ বার সেটা মাথায় রেখেই অস্ট্রেলিয়ার ‘এ’ লিগে খেলা দুই  ‘গোলমেশিন’—ডেভিড উইলিয়ামস এবং রয় কৃষ্ণাকে নেওয়া হয়েছে। দু’জনেই একসঙ্গে ওয়েলিংটন ফোনিক্সে-এ খেলেছেন। ফিজির জাতীয় দলের স্ট্রাইকার রয় কৃষ্ণ গত বছর অস্ট্রেলীয় লিগে সোনার বুট পেয়েছেন। সতীর্থের প্রসঙ্গ উঠতেই এ দিন ঝাঁকড়া চুলের ডেভিডকে বেশ উচ্ছ্বসিত দেখাল। বললেন, ‘‘রয় আর  আমি একসঙ্গে খেলে প্রচুর গোল করেছি। এখানেও সেটা বজায় রাখব।’’

বিদেশি ছাড়াও স্বদেশী ফুটবলার নেওয়ার ক্ষেত্রে এ বার চমক আছে এটিকে-তে। মোহনবাগানকে শেষ বার আই লিগ জিতিয়েছিলেন যে ফুটবলারেরা তাঁদের ছ’জন দলে। ইগর স্তিমাচের দলের স্টপার আনাস এডাথোডিকা ছাড়াও জবি জাস্টিন আছেন। তাঁরা যদিও প্রথম ম্যাচে কার্ড সমস্যায় খেলতে পারবেন না। জাতীয় দলে থেকেও এখনও সুযোগ পাননি প্রীতম কোটাল। চোটের জন্য স্তিমাচের দল থেকে বাদ পড়েছেন প্রণয় হালদার। দু’জনই এ দিন জানালেন, জাতীয় দলে যে তাঁরা প্রথম একাদশে খেলার যোগ্য, সেটা প্রমাণ করার মঞ্চ আইএসএল।