তরুণ ওপেনারকে নিয়ে মুগ্ধ কোচ
গত বছ মায়াঙ্কের টেস্ট অভিষেক হয় অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে। তবে এখন পর্যন্ত তিনি জাতীয় দলের হয়ে ওয়ান ডে-তে খেলেননি।
Mayank Agarwal

ছবি: সংগৃহীত।

নিউজ়িল্যান্ডের প্রাক্তন কোচ মাইক হেসন মনে করে, মায়াঙ্ক আগরওয়াল একজন ‘বিশেষ-প্রতিভা’। চোট পেয়ে ছিটকে যাওয়া বিজয় শঙ্করের জায়গায় বিশ্বকাপের মাঝপথে ভারতীয় দলে নেওয়া হয়েছে কর্নাটকের এই ব্যাটসম্যানকে। হেসন দাবি করেছেন, মায়াঙ্কের সবচেয়ে বড় গুণ দুরন্ত পেস আক্রমণের সামনে অবিচলিত ভাবে বাউন্ডারি মারা।

গত বছ মায়াঙ্কের টেস্ট অভিষেক হয় অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে। তবে এখন পর্যন্ত তিনি জাতীয় দলের হয়ে ওয়ান ডে-তে খেলেননি। তা সত্ত্বেও হেসন কিন্তু মনে করেন, আঠাশ বছরের মায়াঙ্ককে ভারতীয় দলে ডেকে নেওয়ার সিদ্ধান্তটা একেবারে যথার্থ। বলেছেন, ‘‘আগরওলাকে নেওয়াটা খুব ভাল সিদ্ধান্ত। ও শেষ পর্যন্ত সুযোগ পেলে মাঠে নেমে কী করে দেখার জন্য উন্মুখ হয়ে থাকব। হতে পারে এ বার ওকে দিয়েই ওপেন করাবে ভারত। আর কে এল রাহুলকে নিয়ে যাবে চার নম্বরে। তার কারণ আগরওয়াল পেসারদের দারুণ আক্রমণ করতে পারে। সঙ্গে স্পিনটাও খুব ভাল খেলে।’’ 

ঘটনাচক্রে হেসন আইপিএলে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের কোচ। যেখানে খেলেন মায়াঙ্ক। এ হেন ছাত্রকে নিয়ে তাঁর আরও কথা, ‘‘খুব কম ক্রিকেটারই প্রথম বল থেকে বাউন্ডারি মারতে পারে। আগরওয়ালের কিন্তু সেই ক্ষমতা আছে। ও শুরুতে ব্যাট করতে নামলে রোহিতের চাপ অনেকটাই কমে যাবে বলে আমার বিশ্বাস। বিশেষ করে পাওয়ার প্লে-র সময়।’’ 

উচ্ছ্বসিত হেসন এখানেই থামেননি। যোগ করেছেন, ‘‘ওর ব্যাটিংয়ের সবচেয়ে বড় গুণ বাউন্ডারি মারার সহজাত ক্ষমতা। যা আইপিএলের সময় বারবার আমাকে চমকে দিয়েছে। পেস বোলিংয়ের বিরুদ্ধে এটা ও বেশি ভাল করে। বিশেষ অফসাইডে।’’ ভারতীয় দলের হয়ে মায়াঙ্কের টেস্ট খেলা নিয়ে তাঁর মন্তব্য, ‘‘কোনও সন্দেহ নেই ছেলেটা এক বিশেষ ধরনের প্রতিভা। যাদের সচরাচর দেখা যায় না। যেটা ও টেস্টেও বুঝিয়েছে। আমার মনে হয় বিশ্বকাপে ওকে শুরুতেই খেলাবে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। সেক্ষেত্রে চারে নিয়ে যাবে রাহুলকে (কে এল)। আর সেটা করলে ভারতের ভালই হবে বলে আমার বিশ্বাস।’’ 

ম্যাচের
Live
স্কোর