• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

হটস্পট বলল নট আউট, স্রেফ স্নিকোমিটারের ভরসাতে আউট ময়াঙ্ক! বিতর্ক তুঙ্গে

Mayank Out
এ ভাবে আউট মানতে পারছেন না ময়াঙ্ক আগরওয়াল। ছবি টুইটার থেকে নেওয়া।

সত্যিই কি আউট ছিলেন ময়াঙ্ক আগরওয়াল? নাকি প্রযুক্তির ব্যর্থতাতেই ড্রেসিংরুমে ফিরতে হল ডানহাতি ওপেনারকে? ওয়েলিংটন টেস্টে ময়াঙ্কের আউট জন্ম দিল বিতর্কের।

টিম সাউদির রাউন্ড দ্য উইকেট থেকে আসা ডেলিভারি পড়েছিল লেগস্টাম্পের অনেক বাইরে। স্কোয়ারে ফ্লিক করতে গিয়েছিলেন ময়াঙ্ক। কিউয়িদের আউটের আবেদনে সাড়া দিয়ে আঙুল তোলেন পাক আম্পায়ার আলিম দার। বেরিয়ে যাচ্ছিলেন ময়াঙ্ক। নন-স্ট্রাইকার প্রান্তে থাকা বিরাট কোহালির কথায় তিনি ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমের সাহায্য নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। আর মাত্র এক সেকেন্ড বাকি, এমন সময় তিনি ডিআরএসের ইঙ্গিত করেন।

আরও পড়ুন: দুই ইনিংসেই ব্যর্থ, পৃথ্বীর জায়গায় শুভমনকে দলে নেওয়ার দাবি​

আরও পড়ুন: কেরিয়ারে ১১তম পাঁচ উইকেট, ইশান্ত ছুঁলেন ভারতের বাঁহাতি পেসারের রেকর্ড​

রিভিউতেও স্পষ্ট হয়নি বল ব্যাটে লেগেছে কি না। হটস্পটে দেখা যায়, ময়াঙ্কের ব্যাটে কোনও বল লাগার দাগ নেই। তবে স্নিকোমিটারে ধরা পড়ে সামান্য চিহ্ন। কিন্তু তা ব্যাটের সঙ্গে বলের স্পর্শে তৈরি হওয়া, নাকি ব্যাট মাটিতে ঘষার ফলে তৈরি হওয়া, তা পরিষ্কার ছিল না। ফলে, সংশয় থেকেই গেল। তৃতীয় আম্পায়ার আউটের সিদ্ধান্ত বহাল রাখার পর ময়াঙ্ককে দেখা গেল মাথা নাড়তে নাড়তে ফিরছেন।

ধারাভাষ্যকাররা ময়াঙ্কের উইকেটকে ‘দুর্ভাগ্যজনক’ বলে চিহ্নিত করতে থাকেন। সোশ্যাল মিডিয়াতেও ক্রিকেটপ্রেমীরা এই সিদ্ধান্তকে তুলোধোনা করতে থাকেন। ৯৯ বলে ৫৮ করে ফেরেন ময়াঙ্ক। যাতে ছিল সাতটি চার ও একটি ছয়। তিনি যখন ফেরেন, তখন ভারতের তৃতীয় উইকেট পড়ে ৯৬ রানে। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন