বুধবারই ফিরেছেন মিতালি, ঝুলনরা। বৃহস্পতিবার পুরো দলকে সংবর্ধনা দিলেন ক্রীড়ামন্ত্রী বিজয় গয়াল। মহিলাদের ক্রিকেট বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের মাটিতে ইংল্যান্ডের কাছেই হেরে রানার্স হয়ে ফিরতে হয়েছে ভারতের মেয়েদের। কিন্তু তা নিয়ে হতাশা থাকলেও কোনও ক্ষোভ নেই ক্রিকেটপ্রেমী ভারতবাসী থেকে সেলিব্রিটি এমন কী ক্রীড়ামন্ত্রকেরও। বরং ভারতের মেয়েরা দেশে ফিরে বিজয়ীর সম্মানই পেলেন। ছিল একরাশ আফসোস। একটাই শব্দ এতদিন ইকো হচ্ছিল সর্বত্র, ‘ইস্, অল্পের জন্য হল না।’

আরও খবর: রান না পেয়ে টুইটারে ট্রোলড অভিনব মুকুন্দ

হরমনপ্রীত, দীপ্তিরা দেশের ফিরলেন চ্যাম্পিয়নের মতই। বুধবার তাঁদের বরণ করে নিতে এয়ারপোর্টেও হাজির হয়েছিল প্রচুর মানুষ। আর বুধবার ক্রীড়ামন্ত্রীর থেকে সংবর্ধিত হয়ে আপ্লুত ভারতের মহিলা ক্রিকেট দল। দেশের মেয়েদের সম্মান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘‘আমাদের মহিলা ব্রিগেড অসাধারণ খেলেছে। যে কোনও প্রশংসাই তাদের জন্য কম। রানার্স হলেও আমার মনে হচ্ছে মেয়েরা চ্যাম্পিয়ন হয়েই ফিরেছে। কারন ওরা মন জিতে নিয়েছে সবার।’’

দেখুন সংবর্ধনার ভিডিও

এর মধ্যে ক্রীড়ামন্ত্রী তুলে এনেছেন রিও অলিম্পিক্স থেকে প্যারালিম্পিক্স, হকি থেকে কুস্তি, ব্যাডমিন্টনে ভারতের মেয়েদের সাফল্যের কথা। ভারতের মেয়েরা যে ভাবে বিশ্ব ক্রীড়া জগতে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন তার প্রশংসাও করেছেন তিনি। ক্রীড়ামন্ত্রী এ দিন বলেন, ‘‘বার্তাটা খুবই পরিষ্কার, বেটি বাচাও, বেটি পড়াও আর এখন বেটি খিলাও।’’ তাঁর মতে, এই ‘খেলোগে তো খিলোগে (খেলাধুলো করলে, বড় হবে)’ এই বার্তাটা আবারও দিয়ে দিলেন মন্ত্রী।

ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দল।

তাঁর মতে, ভারতের মেয়েদের এই খেলা ফিফা অনূর্ধ্ব-১৭ ফুটবল বিশ্বকাপকেও অনুপ্রাণিত করবে। তিনি এও জানিয়ে দিয়েছেন, ক্রীড়া মন্ত্রকের দরজা ক্রীড়াবিদদের জন্য ২৪ ঘণ্টাই খোলা। প্লেয়ারদের পাশাপাশি সাপোর্ট স্টাফদের এ দিন সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এই অনুষ্ঠানে ক্যাপ্টেন মিতালি রাজের মুখে দলের প্রশংসাই শোনা গেল। জয়ের জন্য দলের সকলের ভূমিকাকেই সমানভাবে তুলে ধরলেন তিনি। 

বিজয় গয়ালের টুইট