আন্তোনিও লোপেজ হাবাসের কোচিংয়ে ২০১৪ সালে ইন্ডিয়ান সুপার লিগ (আইএসএল) চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল আটলেটিকো দি কলকাতা (এটিকে)। সেটাই ছিল আইএসএল-এর প্রথম সংস্করণ। তার ঠিক দু’বছর পরে হাবাসের ছেড়ে যাওয়া চেয়ারে বসে হোসে মোলিনা শহরের ফ্র্যাঞ্চাইজিকে চ্যাম্পিয়ন করেন।

তার পরে ব্রিটিশ কোচের হাতে দল ছেড়ে দিলেও সাফল্যের মুখ দেখেনি এটিকে। সাফল্যের খোঁজে এ বার ফিরিয়ে আনা হয়েছে হাবাসকেই। আজ রবিবার কেরলে হাবাসের অগ্নিপরীক্ষা। এটিকে-কেরল ব্লাস্টার্স ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে এ বারের আইপিএল।

অতীতে এই কেরল ব্লাস্টার্সকে মাটি ধরিয়েই আইএসএল চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল এটিকে। কেরল ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়েই এ বারের আইএসএল অভিযান শুরু করছে শহরের ফ্র্যাঞ্চাইজি। নতুন মরসুমে এটিকের দিকে নজর থাকবে ভক্তদের।

আরও পড়ুন: মোহনবাগানের জার্সি পরে মাঠে জীবন দিয়ে দিতে পারি, বলছেন সবুজ-মেরুনের ‘দ্য বস’

ফিরে এসে কি সফল হবেন হাবাস? সেই প্রশ্নেরও উত্তর খুঁজবেন ফুটবলভক্তরা। প্রথম ম্যাচের আগে স্বদেশীয় কোচের জন্য একবুক শুভেচ্ছা জানিয়ে চ্যাম্পিয়ন কোচ মোলিনা বলছেন, “স্পেনীয় কোচরা ফুটবলারদের কাছ থেকে সেরাটা বের করে আনতে পারেন। একটা দলকে সাফল্য এনে দিতে খেলার স্টাইলে বৈচিত্র্য আনতে দক্ষ স্পেনীয় কোচরা।’’ হাবাস-মোলিনারা সফল কেন? তাঁরা সরে যাওয়ার পরে তো এটিকে সাফল্যের মুখই দেখেনি। সেই বিতর্কে না ঢুকে রয়্যাল স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন-কে (আরএফইএফ) কৃতিত্ব দিয়ে প্রাক্তন এটিকে কোচ মোলিনা বলছেন, ‘‘এর জন্য আরএফইএফ ও আমার দেশের ফুটবল সংস্কৃতিকেই ধন্যবাদ জানাতে চাই।’’

রাশিয়া বিশ্বকাপ চলাকালীন রয়্যাল স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনের স্পোর্টিং ডিরেক্টর হয়েছেন আটলেটিকো মাদ্রিদের প্রাক্তন গোলকিপার। কোচিং ছেড়ে এখন তিনি প্রশাসনিক কাজে ব্যস্ত। কিন্তু, আইএসএল-এর প্রসঙ্গ উঠলেই নস্ট্যালজিক হয়ে পড়েন মোলিনা। ফিরে যাচ্ছিলেন এটিকে-তে কোচিং করানোর সময়ে। মোলিনা বলছিলেন, ‘‘আমাদের দলটা সে বার খুব ভাল ছিল। দলকে চ্যাম্পিয়ন করার জন্য কোচকে যেমন দরকার, তেমনই প্লেয়ারদেরও বড় ভূমিকা রয়েছে। প্লেয়াররাই তো মাঠে নেমে কোচের স্ট্র্যাটেজিকে কাজে লাগায়। কোচ হিসেবে আমার কাজ ছিল ছেলেদের খেলায় উন্নতি ঘটানো, একটা সঙ্ঘবদ্ধ দল গঠন করা, দলের স্পিরিট বাড়ানো এবং প্রতিটি ম্যাচে লড়াই করে জয় ছিনিয়ে নেওয়া। বলতে দ্বিধা নেই, আমার কাজে আমি সফল হয়েছিলাম।’’

প্রাক্তন দলের খেলা কি দেখবেন? স্বতঃস্ফূর্ত মোলিনা বলছেন, ‘‘অবশ্যই দেখব। আইএসএল দারুণ উপভোগ করেছিলাম। অনেক বন্ধু রয়েছে ভারতে। আইএসএল-এ ফের কোচিং করাব, সেই স্বপ্ন দেখি।’’

আরও পড়ুন: রাঁচীতে ডাবল সেঞ্চুরি করলেন রোহিত, ভাঙলেন এই সব রেকর্ডও