• নিজস্ব প্রতিবেদন 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কুড়ির বিশ্বকাপের মহড়া বিরাটদের

t20 match
—ফাইল চিত্র

পরের বছরই ভারতে হতে চলেছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। যার প্রস্তুতি হয়তো শুরু হয়ে যাচ্ছে শুক্রবার ভারত-অস্ট্রেলিয়া টি-টোয়েন্টি সিরিজের হাত ধরে। 

ওয়ান ডে সিরিজ হারলেও শেষ ম্যাচে ভারতের দুরন্ত জয় বাড়িয়ে দিতে পারে দলের মনোবল। অধিনায়ক বিরাট কোহালিও জানিয়ে দিয়েছেন, এই জয় দলের আত্মবিশ্বাস ফেরাতে সাহায্য করবে। ভারত যে মাঠে জিতেছে, সেই ক্যানবেরার মানুকা ওভালেই প্রথম টি-টোয়েন্টি। এখনও পর্যন্ত ২০টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে ভারত ও অস্ট্রেলিয়া। তার মধ্যে ভারত জিতেছে ১১বার। আটটি ম্যাচ জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। একটি ম্যাচ অমীমাংসিত। পরিসংখ্যানের দিক থেকে ভারত এগিয়ে থাকলেও দল হিসেবে তাদের এই মুহূর্তে এগিয়ে রাখা যায় কি না, সেটাই প্রশ্ন। 

দু'দলই একটি উত্তরের খোঁজে ছুটছে। কাদের দিয়ে ওপেন করানো হবে? ভারতের ওপেনার হিসেবে শিখর ধওয়নের জায়গা পাকা। তাঁর সঙ্গে কে ওপেন করবেন? সহ-অধিনায়ক কে এল রাহুলকে কি ফের তাঁর প্রিয় ওপেনারের ভূমিকায় দেখা যেতে পারে? আইপিএলে ওপেন করেই প্রতিযোগিতার সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের পুরস্কার পেয়েছেন রাহুল (৬৭০ রান)। অন্য দিকে, ৬১৮ রান করে দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন ধওয়ন। কিংবদন্তি সুনীল গাওস্করও বলেছেন, ‘‘টি-টোয়েন্টি সিরিজে ধওয়নের সঙ্গে ওপেন করুক রাহুল। দু'জনকেই টি-টোয়েন্টিতে খুব সাবলীল দেখিয়েছে। তাদের পরেই আসুক বিরাট। প্রথম তিন ব্যাটসম্যান ১৪ ওভার পর্যন্ত ব্যাট করতে পারলে চার নম্বরে পাঠানো হোক হার্দিককে। উইকেট দ্রুত পড়লে শ্রেয়সকে নামানো যেতে পারে বিরাটের পরেই।’’

আরও পড়ুন: প্রয়াত কিংবদন্তি রাফের জনসন

ভারতের মতোই অস্ট্রেলিয়া খুঁজছে ওয়ার্নারের পরিবর্ত ওপেনার। তৃতীয় ওয়ান ডে-তে অ্যারন ফিঞ্চের সঙ্গে ওপেন করতে নেমে ব্যর্থ মার্নাস লাবুশেন। তাঁর পরিবর্তে বাঁ-হাতি বিধ্বংসী ওপেনার ডার্সি শর্টকে খেলানো হয় কি না, তা সময়ই বলবে। এ বারের বিগ ব্যাশ লিগে একাধিক ম্যাচ জেতানো ইনিংস রয়েছে ডার্সির। চর্চা চলছে  দু’দলের পেস আক্রমণ নিয়েও। শেষ ওয়ান ডে ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া বিশ্রাম দিয়েছিল প্যাট কামিন্সকে। যা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ব্রেট লি। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া বোর্ড আগেই জানিয়েছে, ভারতের বিরুদ্ধে সাদা বলের সিরিজে আর খেলবেন না কামিন্স। যা টি-টোয়েন্টি সিরিজে সমস্যায় ফেলতে পারে অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চকে। প্রশ্ন উঠছে, ভারতও কি তাদের সেরা অস্ত্র যশপ্রীত বুমরা ও মহম্মদ শামিকে টি-টোয়েন্টি সিরিজে খেলাবে? না কি তাঁদের বিশ্রাম দেওয়া হবে আসন্ন টেস্ট সিরিজের কথা মাথায় রেখে? দু’জনকেই বিশ্রাম দেওয়া হলে ভারতীয় পেস বিভাগ সামলানোর দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে দীপক চাহার ও শার্দূল ঠাকুরকে। তৃতীয় পেসার হিসেবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতেও অভিষেক ঘটতে পারে ইয়র্কার বিশেষজ্ঞ টি নটরাজনের। 

আরও পড়ুন: উইলিয়ামসন, লাথামের ব্যাটে ম্যাচের রাশ কিউইদের হাতে

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন