Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

আক্রমণের ধার বাড়াতে বিশেষ ক্লাস আলেসান্দ্রোর

নিজস্ব সংবাদদাতা
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ০২:১১
মহড়া: শনিবার অনুশীলনে চুলোভা এবং এনরিকে। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

মহড়া: শনিবার অনুশীলনে চুলোভা এবং এনরিকে। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন সংলগ্ন মাঠে শনিবার সকাল ন’টায় অনুশীলন হওয়ার কথা ইস্টবেঙ্গলের। মাঠের মধ্যে সাজানো অনুশীলনের একাধিক সরঞ্জাম। অথচ ফুটবলার বা কোচ কারও দেখা নেই।

আলেসান্দ্রো মেনেন্দেস গার্সিয়া ড্রেসিংরুম থেকে বেরিয়ে জবি জাস্টিনদের নিয়ে মাঠে নামলেন প্রায় মিনিট কুড়ি পড়ে। আইজল এফসি-র বিরুদ্ধে ম্যাচের আটচল্লিশ ঘণ্টা আগে অনুশীলন বন্ধ রেখে ড্রেসিংরুমে কী করছিলেন লাল-হলুদ কোচ? খোঁজ নিয়ে জানা গেল, অনুশীলনে নামার আগে ফুটবলারদের নিয়ে ভিডিয়ো বিশ্লেষণের বিশেষ ক্লাস করেন তিনি।

প্রথম পর্বের ম্যাচে আইজলের জ়িকাহি দোদোজ়ের গোলে পিছিয়ে পড়েছিল ইস্টবেঙ্গল। তার পরে দুর্দান্ত ভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েও এগিয়ে গিয়েছিলেন জবিরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ২-৩ হেরে আইজ়ল থেকে ফিরেছিলেন তাঁরা। আনসুমানা ক্রোমাদের আক্রমণের ঝড়ের সামনে বারবারই সমস্যায় পড়েছিলেন লাল-হলুদের ডিফেন্ডারেরা। তিনটি গোলের ক্ষেত্রেই রক্ষণের ব্যর্থতা প্রকাশ্যে চলে এসেছিল। স্ট্যানলি রোজারিয়ো দায়িত্ব নেওয়ার পরে আইজ়ল আরও আক্রমণাত্মক। যদিও আগের ম্যাচে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে হেরেছিল তারা। তা সত্ত্বেও এই মুহূর্তে আই লিগ টেবলে আট নম্বরে থাকা আইজলকে একেবারেই হাল্কা ভাবে নিচ্ছেন না আলেসান্দ্রো। এই কারণেই ভিডিয়ো বিশ্লেষণ সেরে মাঠে নামলেন তিনি।

Advertisement

আইজলের প্রধান ভরসা পাঁচ বিদেশি। রক্ষণে করিম ওমোলোজা ও রিচার্ড কাসাগা। মাঝমাঠে আলফ্রেড জারিয়ান। আক্রমণভাগে ক্রোমা-দোদোজ় জুটি। লাল-হলুদ শিবিরের সব চেয়ে বড় অন্তরায় কার্ড সমস্যায় রক্ষণের প্রধান ভরসা জনি আকোস্তার ছিটকে যাওয়া। কোস্টা রিকার হয়ে দু’টো বিশ্বকাপে খেলা ডিফেন্ডারের পরিবর্তে সালামরঞ্জন সিংহের খেলার সম্ভাবনাই বেশি। শনিবার সকালে ম্যাচ প্র্যাক্টিসে তাই জাতীয় দলের ডিফেন্ডারকে আলেসান্দ্রো পরীক্ষা করলেন জবি-এনরিকের বিরুদ্ধে খেলিয়ে। পাশাপাশি আরও এক বার দেখে নিলেন লালরাম চুলোভাকে। বাঁ পায়ের হাঁটুতে স্ট্র্যাপ লাগিয়েই অনুশীলনে নেমেছিলেন তিনি। ম্যাচ প্র্যাক্টিসের সময় শুরুতে চুলোভাকে দলে রাখেননি স্প্যানিশ কোচ। খেলাচ্ছিলেন সামাদ আলি মল্লিককে। পরে তাঁর জায়গায় নামান চুলোভাকে।

ম্যাচ প্র্যাক্টিসের পরে আলেসান্দ্রো মাঠের এক প্রান্তে ডেকে নিয়ে গেলেন জবি, এনরিকে, খাইমে সান্তোস কোলাদো ও টোনি দোভালকে। ম্যানিকুইন রেখে শুরু করলেন বিশেষ অনুশীলন। আই লিগের ফিরতি ডার্বির আগে জবিদের তিনি বলে দিয়েছিলেন, বিপক্ষের পেনাল্টি বক্সের সামনে বেশিক্ষণ পায়ে বল না রেখে গোলে মারতে। সেই রণনীতিতেই রবিবার আইজলকে হারানোর পরিকল্পনা তাঁর। তার পরে পেনাল্টি অনুশীলন। সব শেষে সমর্থকদের নিয়ে অভিনব প্রতিযোগিতা! চার্চিল ব্রাদার্সের বিরুদ্ধে আগের ম্যাচে টিকিটের পিছনে নাম লিখে জমা দিয়েছিলেন সমর্থকেরা। লটারির মাধ্যমে তাঁদের মধ্যে থেকে পাঁচ জনকে এ দিন বেছে নেন চুলোভা, ডিকা, জবিরা। এঁদের সব ফুটবলারদের সই করা জার্সি উপহার দেওয়া হবে। তবে লাল-হলুদ শিবিরের কর্তারা খুব একটা স্বস্তিতে নেই! চার্চিল ব্রাদার্সের বিরুদ্ধে আগের ম্যাচে প্রচুর টিকিট জাল হয়েছিল। এ বার তা আটকাতে মরিয়া তাঁরা।

আরও পড়ুন

Advertisement