Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied

খেলা

অশ্বিন-জাডেজা বনাম কুম্বলে-হরভজন, কোন জুটি বেশি সফল? কী বলছে রেকর্ড

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৮ অক্টোবর ২০১৯ ১১:১৪
বিশাখাপত্তনমে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টেস্টে রবিচন্দ্রন অশ্বিন নিয়েছেন আট উইকেট। আর রবীন্দ্র জাডেজা নিয়েছেন ছয় উইকেট। দুই স্পিনারের জাদু বড় ভূমিকা নিয়েছে ভারতের জয়ে। আর এখানেই উঠছে প্রশ্ন। অশ্বিন-জাডেজা জুটি কি অনিল কুম্বলে-হরভজন সিংহ জুটির থেকে বেশি সফল? কোন জুটি ম্যাচ-উইনার হিসেবে কেমন? কী বলছে রেকর্ড? দেখে নেওয়া যাক।

পরিসংখ্যান বলছে, এখনও পর্যন্ত ৩৩ টেস্টে অশ্বিন-জাডেজা একসঙ্গে খেলেছেন। তার মধ্যে ভারত জিতেছে ২৫টিতে। অন্যদিকে, কুম্বলে-হরভজন একসঙ্গে খেলেছেন তুলনায় বেশি, ৫৪ টেস্ট। তার মধ্যে ভারত জিতেছে ২১টিতে। অর্থাৎ, এগিয়ে অশ্বিন-জাডেজা জুটি।
Advertisement
অশ্বিন-জাডেজা একসঙ্গে টেস্ট খেলে নিয়েছেন ৩৬০ উইকেট। আর কুম্বলে-হরভজন একসঙ্গে টেস্ট খেলে নিয়েছেন অনেক বেশি, ৫০১ উইকেট। অশ্বিন-জাডেজার বোলিং গড়  ২২, স্ট্রাইক রেট ৫২.৬৪। কুম্বলে-হরভজনের বোলিং গড় ৩০.১৬, স্ট্রাইক রেট ৬৪.৯১।

অশ্বিন-জাডেজা জুটি টেস্টে পাঁচ উইকেট নিয়েছে ২৫বার, ১০ উইকেট নিয়েছে ছয়বার। কুম্বলে-হরভজন জুটি টেস্টে পাঁচ উইকেট নিয়েছে ৩৮বার, ১০ উইকেট নিয়েছে ৯বার। অশ্বিন-জাডেজা ম্যাচের সেরা হয়েছেন নয়বার, কুম্বলে-হরভজন হয়েছেন ১২বার।
Advertisement
দেশের বাইরে কুম্বলে-হরভজন একসঙ্গে ২০ টেস্টে খেলেছেন। অন্যদিকে, অশ্বিন-জাডেজা জুটি দেশের বাইরে খেলেছে মোটে চার টেস্ট। ভারতীয় দলে এখন ইশান্ত শর্মা, মহম্মদ শামি, জশপ্রীত বুমরা, ভুবনেশ্বর কুমার, উমেশ যাদবের মতো পেসাররা রয়েছেন। ফলে, বিদেশে দুই স্পিনার দরকার পড়ে না প্রায়শই।

ঘরের মাঠে অশ্বিন-জাডেজা জুটি ২৯ টেস্ট খেলেছে। জয় এসেছে ২২টিতে। কুম্বলে-হরভজন জুটি ঘরের মাঠে খেলেছে ৩৪ টেস্ট। ভারত জিতেছে তার মধ্যে ১৪টিতে। তার মানে, ঘরের মাঠে দলকে জেতানোর ক্ষেত্রে অনেক এগিয়ে অশ্বিন-জাডেজা জুটি।

ঘরের মাঠে টেস্টে উইকেট নেওয়ার সংখ্যায় অবশ্য কুম্বলে-হরভজন জুটি এগিয়ে। ৩৫৬ উইকেট নিয়েছেন দু’জনে। অশ্বিন-জাডেজা সেখানে নিয়েছেন ৩২৯ উইকেট। অবশ্য তাঁরা পাঁচ টেস্ট কম খেলেছেন কুম্বলে-হরভজনের থেকে।

ঘরের মাঠে টেস্টে গড় ও স্ট্রাইক রেট আবার অশ্বিন-জাডেজা জুটি এগিয়ে। অশ্বিনদের গড় ২১.২৯, স্ট্রাইক রেট ৫১.২৯। কুম্বলেদের গড় ২৭.২৩, স্ট্রাইক রেট ৬২.৬৩। কুম্বলেরা অবশ্য পাঁচ উইকেট ও ১০ উইকেট বেশি নিয়েছেন। ঘরের মাঠে বেশি বার টেস্টের সেরাও হয়েছেন।

প্রশ্ন উঠছে, এখনকার ভারতীয় পিচ কি আগের তুলনায় বেশি স্পিন-সহায়ক? তার ফলেই কি অশ্বিন-জাডেজা জুটি বেশি সফল? কিন্তু তা হলে অশ্বিন-জাডেজার বিপক্ষে থাকা স্পিনার বা একই দলে থাকা তৃতীয় স্পিনারও সাফল্য পেতেন। তেমন ঘটেনি যদিও।

অশ্বিন-জাডেজার সঙ্গে ঘরের মাঠে একই টেস্টে খেলা অন্য স্পিনারদের গড় ৪১.১১। অশ্বিনদের গড় সেখানে ২১.২৯। অর্থাৎ, অশ্বিনরা অনেক বেশি সফল। আবার কুম্বলে-হরভজনের ক্ষেত্রেও ব্যাপারটা তাই। এই দু’জনের গড় যেখানে ২৭.২৩, সেখানে একই টেস্টে অন্য স্পিনারদের গড় ৪২.৮২।

তার মানে, নিজেদের সময়ে ঘরের মাঠে বাকি স্পিনারদের থেকে অনেক এগিয়ে ছিলেন কুম্বলে-হরভজন। একই কথা খাটে অশ্বিন-জাডেজার ক্ষেত্রেও। কুম্বলেদের সময়ে শেন ওয়ার্ন, মুথাইয়া মুরলীথরন, সাকলিন মুস্তাক, দানিশ কানেরিয়ারা ভারতে এসেছিলেন। এর মধ্যে একমাত্র সাকলিন টেক্কা দিয়েছিলেন কুম্বলেদের।

এটা ঠিক, অশ্বিন-জাডেজার সময়ে সফরকারী দলে তেমন বড় মাপের কোনও স্পিনার ছিল না। ২০১৭ সালে অবশ্য অস্ট্রেলিয়া দলের সঙ্গে এসেছিলেন নেথান লিয়ন। কিন্তু, তাঁর তুলনায় ভারতীয় জুটি বেশি সফল ছিলেন। মুরলী বা ওয়ার্ন এখনকার পিচে কেমন বল করতেন, তা অবশ্য তর্কের বিষয়।