Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

ভারতীয় দলের মধ্যে কাঠিন্য আমদানি করেছিল সৌরভ, উচ্ছ্বসিত প্রশংসা ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়কের

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০৫ জুলাই ২০২০ ১১:৩৬
ন্যাটওয়েস্ট ট্রফি জেতার পর লর্ডসের ব্যালকনিতে সৌরভ। —ফাইল চিত্র।

ন্যাটওয়েস্ট ট্রফি জেতার পর লর্ডসের ব্যালকনিতে সৌরভ। —ফাইল চিত্র।

অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের কৃতিত্ব শুধু পরিসংখ্যানে মাপলেই চলবে না। যে ভাবে তিনি কঠিন সময়ে দায়িত্ব নিয়ে জাতীয় দলের মানসিকতা বদলে দিয়েছিলেন, ক্রিকেটমহলে আলোচিত হয় তা। আর সেটাই তুলে ধরলেন ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক নাসের হুসেন।

লর্ডসে নাসেরের ইংল্যান্ডকে হারিয়েই ন্যাটওয়েস্ট ট্রফিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল সৌরভের দল। জয়ের পর ব্যালকনিতে খালি গায়ের মুষ্টিবদ্ধ হাতের ছবিতে ক্রিকেটপ্রেমীদের হৃদয়ে আসন করে নিয়েছেন তিনি। সৌরভের নেতৃত্বে পরের বছরই বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছিল ভারত। ট্রফি না এলেও মন জিতেছিল টিম ইন্ডিয়া।

আরও পড়ুন: ‘যাঁদের নেতৃত্বে খেলেছি, তাঁদের মধ্যে সেরা সৌরভই’

Advertisement

আরও পড়ুন: নাইট রাইডার্সের নেতৃত্ব থেকে সৌরভকে সরিয়ে দিতে চেয়েছিলেন বুকানন!​

এক খেলার চ্যানেলে নাসের হুসেন বলেছেন, “আমি বরাবরই বলে এসেছি যে, ভারতীয় দলের মধ্যে কাঠিন্য আমদানি করেছিল সৌরভ। সৌরভের আগে ভারতীয় দলে প্রতিভার অভাব ছিল না। কিন্তু এটা অনুভব করাই যেত যে, দল হিসেবে তখন ভারত ছিল ‘নাইস’। একেবারে মাটির কাছাকাছি। সকালে ‘মর্নিং নাসের’ জাতীয় শুভেচ্ছা পেতাম। একটা ভাল অভিজ্ঞতা হত। কিন্তু, গাঙ্গুলির দলের বিরুদ্ধে খেলা মানে ছিল যুদ্ধ। ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের আবেগ বুঝত ও। আর এটা তখন নিছকই ক্রিকেট নামের একটা খেলা থাকত না। ক্রিকেট নামের একটা খেলার থেকে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠত তা।”

আগ্রাসী ক্রিকেটারদের দলে নিয়ে আসাকে ভারতীয় ক্রিকেটে সৌরভের বড় অবদান বলে জানিয়েছেন নাসের। তাঁর কথায়, “সৌরভ ছিল আক্রমণাত্মক মানসিকতার। আর ও ওই ধরনের ক্রিকেটারদেরই পছন্দ করত। তা সে হরভজন হতে পারে বা যুবরাজ হতে পারে। যে কিনা ওই ধরনের আক্রমণাত্মক মানসিকতার। কিন্তু খেলার বাইরে তারা ভাল ছেলে।”

আরও পড়ুন

Advertisement