Advertisement
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
Josh Tongue

টেস্ট অভিষেক ইংল্যান্ডের জোরে বোলারের, ৫১ লাখ টাকা জিতলেন বন্ধু! কেন?

টাংকে নিয়ে ১৪ বছর আগে বাজি ধরেছিলেন তাঁর বাবার এক বন্ধু। তখন টাং ছিলেন লেগ স্পিনার। যদিও ইংল্যান্ডের হয়ে টাংয়ের টেস্ট অভিষেক হয়েছে জোরে বোলার হিসাবে।

picture of Josh Tongue

আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ইংল্যান্ডের হয়ে টেস্ট অভিষেক হল জস টাংয়ের। ছবি: আইসিসি।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
শেষ আপডেট: ০১ জুন ২০২৩ ২০:৩৬
Share: Save:

আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্টে ইংল্যান্ডের হয়ে বৃহস্পতিবার অভিষেক হল জোরে বোলার জস টাংয়ের। এর মধ্যে অস্বাভাবিক কিছু নেই। তবে তাঁর অভিষেকের সঙ্গে সঙ্গে ৫০ হাজার পাউন্ড বা ৫১ লাখ ৫১ হাজার টাকার বেশি জিতেছেন তাঁর বাবার এক বন্ধু।

১৪ বছর আগে টাংকে নিয়ে বাজি ধরেছিলেন টিম পাইপার। তখন টাংয়ের বয়স ছিল ১১। লেগ স্পিন করতেন ইংল্যান্ডের তরুণ জোরে বোলার। পাইপার ছিলেন টাংয়ের বাবা ফিল টাংয়ের সতীর্থ। তাঁরাও ক্রিকেট খেলতেন ইংল্যান্ডের একটি ক্লাবে। পাইপার ছিলেন লেগ স্পিনার। করতে পারতেন গুগলি, টপ স্পিনও। ক্লাবের নেটে বন্ধুর ছেলেকে এক দিন বল করতে দেখে পাইপার বলেছিলেন, ‘‘এই ছেলে এক দিন ইংল্যান্ডের হয়ে টেস্ট খেলবে।’’ শুধু বলেনই টাংকে নিয়ে বাজিও ধরেছিলেন পাইপার। বাজির দর ছিল ৫০০-১। বাজি ধরার জন্য ১০০ পাউন্ড খরচ করেছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার টাংয়ের টেস্ট অভিষেক হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সেই বাজি জিতেছেন পাইপার। তবে সে দিনের ছোট্ট টাং এখন আর স্পিনার নন। জোরে বোলার।

আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে টাংয়ের টেস্ট অভিষেক দেখতে লর্ডসের গ্যালারিতে উপস্থিত ছিলেন তাঁর বাবা, মা, বান্ধবী এবং পুত্র। তাঁকে নিয়ে বাজি ধরা পাইপার অবশ্য লর্ডসে উপস্থিত ছিলেন না। তিনি চোখ রেখেছিলেন টেলিভিশনের পর্দায়। ২৫ বছরের টাংয়ের টেস্ট অভিষেক হওয়ায় উচ্ছ্বসিত তিনি। পাইপার বলেছেন, ‘‘বাচ্চা ছেলেটা দারুণ লেগ স্পিন করত। শেন ওয়ার্নের মতো গুগলি দিতে পারত। ওকে নিয়ে বাজি ধরার রসিদটা এত দিন ধরে যত্ন করে রেখে দিয়েছিলাম। ওর জন্য ১০০ টাকা বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত তা হলে আমার ভুল ছিল না।’’

উস্টারশায়ারের অ্যাকাডেমিতে আসার পর স্পিন বল করা ছেড়ে দেন টাং। শুরু করেন জোরে বোলিং। তবে বছর খানেক আগে ক্রিকেট ছেড়ে দেওয়ার কথা ভেবেছিলেন তিনি। কাঁধের চোটে কাবু হয়ে পড়েছিলেন। তিন বার অস্ত্রোপচার করাতে হয়। কিছুটা অপ্রত্যাশিত ভাবেই এ বার সুযোগ পেয়েছেন ইংল্যান্ডের টেস্ট দলে। বৃহস্পতিবার তাঁর হাতে টেস্ট দের টুপি তুলে দিয়েছেন জেমস অ্যান্ডারসন।

টাংয়ের ক্রিকেটজীবন অনিশ্চিত হয়ে যাওয়ার পরেও কেন বাজির রসিদ যত্ন করে রেখে দিয়েছিলেন? পাইপার বলেছেন, ‘‘অনেকেই আশা ছেড়ে দিলেও আমার একটা বিশ্বাস ছিল। ছেলেটা কত চোট পেল। তাও আশাবাদী ছিলাম। সব সময় ভেবেছি খেলতেও তো পারে এক দিন। গত দু’সপ্তাহে সব কিছু দ্রুত বদলে গেল। ভাগ্যিস আশা ছাড়িনি।’

৫০ হাজার পাউন্ড বাজি জিতে খুশি পাইপার। টাংয়ের টেস্ট অভিষেকের জন্য বন্ধু ফিলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ফোন করে। যদিও অভিষেক টেস্টের প্রথম দিন আইরিশদের বিরুদ্ধে বল হাতে তেমন কিছু করতে পারেননি ২৫ বছরের টাং।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE