Advertisement
০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Virat Kohli

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কোহলির কাছে জোড়া ছক্কা খেয়েও কষ্ট পাননি পাক বোলার! কেন?

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হ্যারিস রউফকে জোড়া ছক্কা মেরেছিলেন বিরাট কোহলি। কিন্তু সেই ছক্কা খেয়েও কষ্ট পাননি রউফ। কেন? সে কথা জানিয়েছেন পাক পেসার।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কোহলির এই ছক্কা আলোচনার কেন্দ্রে ছিল। সেই শট নিয়ে মুখ খুললেন হ্যারিস রউফ।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কোহলির এই ছক্কা আলোচনার কেন্দ্রে ছিল। সেই শট নিয়ে মুখ খুললেন হ্যারিস রউফ। —ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০২ ডিসেম্বর ২০২২ ২০:৩৬
Share: Save:

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে একার হাতে ম্যাচ জিতিয়েছিলেন বিরাট কোহলি। রান তাড়া করতে নেমে ইনিংসের ১৯তম ওভারে হ্যারিস রউফকে জোড়া ছক্কা মেরেছিলেন তিনি। সেই দু’টি ছক্কা না মারলে জেতা সম্ভব হত না ভারতের। কিন্তু কোহলির কাছে ছক্কা খেয়েও কষ্ট পাননি রউফ। কেন? সে কথা জানিয়েছেন পাকিস্তানের পেসার।

Advertisement

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের হয়ে টেস্ট খেলছেন রউফ। প্রথম টেস্টের মাঝে পাকিস্তানের এক সংবাদমাধ্যমে কোহলির সেই জোড়া ছক্কা নিয়ে মুখ খুলেছেন রউফ। বলেছেন, ‘‘কোহলি যে ভাবে বিশ্বকাপে খেলেছে তাতে ও নিজের জাত চিনিয়েছে। আমরা সবাই জানি ও কী রকম শট খেলতে পারে। কোহলি ছাড়া আমার বলে ওই শট কেউ মারতে পারত না।’’

কোহলির বদলে অন্য কেউ তাঁকে ছক্কা মারলে তিনি মেনে নিতে পারতেন না বলে জানিয়েছেন রউফ। পাক পেসার বলেছেন, ‘‘কোহলির বদলে যদি হার্দিক পাণ্ড্য বা দীনেশ কার্তিক আমাকে ছক্কা মারত তা হলে খারাপ লাগত। কষ্ট পেতাম। কোহলি অন্য জাতের ক্রিকেটার বলে অতটা কষ্ট পাইনি।’’

রউফকে যে বলে কোহলি সামনের দিকে ছক্কা মেরেছিলেন সেই বল ধীরে করেছিলেন তিনি। কেন ধীরে করেছিলেন তারও ব্যাখ্যা দিয়েছেন পাক পেসার। রউফ বলেছেন, ‘‘ভারতের জয়ের জন্য ১২ বলে ৩১ রান দরকার ছিল। আমি প্রথম চার বলে মাত্র ৩ রান দিয়েছিলাম। শেষ ৮ বলে দরকার ছিল ২৮ রান। তাই আমি চেয়েছিলাম শেষ ওভারের জন্য ২০-র বেশি রান রাখতে। আমি কোহলিকে তার আগে তিনটে বল ধীরে করেছিলাম। কোহলি মারতে পারেনি। তাই সেই বলটাও ধীরে করেছিলাম। কিন্তু আগে থেকে আন্দাজ করে পিছনের পায়ে গিয়ে ছক্কা মারে কোহলি।’’

Advertisement

কোহলি যে তাঁকে উইকেটের সামনের দিকে ছক্কা মারতে পারবেন তা ভাবতে পারেননি রউফ। তিনি বলেছেন, ‘‘আমি ভাবতেই পারিনি কোহলি ওই উচ্চতা থেকে সামনের দিকে ছক্কা মারতে পারবে। ওই ছক্কাতেই আমার সব পরিকল্পনা নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। তাই পরে বলের লাইন, লেংথ খারাপ হয়ে গিয়েছিল।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.