Advertisement
২৩ এপ্রিল ২০২৪
Pakistan Cricket

ম্যাচ গড়াপেটায় কেন জড়িয়ে পড়েন পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা, জানালেন মিয়াঁদাদ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৫ উইকেটে হেরে যায় পাকিস্তান। এর পরেই বোর্ডের দিকে আঙুল তুলেছেন মিয়াঁদাদ। ম্যাচ গড়াপেটার জন্যও বোর্ডকে দায়ী করেন তিনি।

ম্যাচ গড়াপেটায় জড়িয়ে যাওয়ার পিছনে কারণ দেখতে পাচ্ছেন জাভেদ মিয়াঁদাদ।

ম্যাচ গড়াপেটায় জড়িয়ে যাওয়ার পিছনে কারণ দেখতে পাচ্ছেন জাভেদ মিয়াঁদাদ। —ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১৫ নভেম্বর ২০২২ ১১:১৩
Share: Save:

পাকিস্তানের ক্রিকেটে গড়াপেটার অভিযোগ উঠেছে বার বার। বেশ কিছু ক্রিকেটারকে এর জন্য নিষিদ্ধও করা হয়েছিল। কিন্তু ম্যাচ গড়াপেটায় জড়িয়ে যাওয়ার পিছনে কারণ দেখতে পাচ্ছেন জাভেদ মিয়াঁদাদ। পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার আঙুল তুলছেন দেশের ক্রিকেট বোর্ডের বিরুদ্ধে। তাঁর মতে বোর্ড ক্রিকেটারদের ভবিষ্যতের সুরক্ষা দিতে পারে না বলেই তাঁরা গড়াপেটায় জড়িয়ে পড়েন।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৫ উইকেটে হেরে যায় পাকিস্তান। এর পরেই বোর্ডের দিকে আঙুল তুলেছেন মিয়াঁদাদ। তিনি বলেন, “আমাদের প্রাক্তন ক্রিকেটাররা এখন কোনও কাজ পায় না। আমি নিজের কথা বলছি না। অনেক ধরনের প্রলোভন আমাকে খেলার সময় দেওয়া হয়েছিল। সে সবে আমি পা দিইনি। কিন্তু এখনকার ক্রিকেটারদের ভবিষ্যৎ কী? খেলা ছাড়ার পর কী হবে ওদের? ওরা জানে যে, ওদের কোথাও যাওয়ার নেই। খেলতে না পারলে বাদ দিয়ে দেওয়া হবে। এই কারণেই ম্যাচ গড়াপেটা হয়। সকলে ভয় ভয় থাকে যে, ভবিষ্যতে কী হবে।”

পাকিস্তান দলের কোচ ম্যাথু হেডেন। বোলিং কোচ শন টেট। মিয়াঁদাদের মতে বিদেশি কোচদের উপরেই বোর্ড বেশি ভরসা করে। তিনি বলেন, “আমরা তো তা-ও কাউন্টি খেলেছি। এখন যারা খেলছে ওদের ভবিষ্যৎ কী? বোর্ড নিজেদের বাঁচানোর জন্য বিদেশি কোচ আনে।”

এর আগে পাকিস্তান দলে ভারনন ফিলান্ডার সাপোর্ট স্টাফ হিসাবে কাজ করেছিলেন। তাঁর সম্পর্কে মিয়াঁদাদ বলেন, “নিয়ে আসুন ওদের। আমরা প্রশ্ন করব। জানতে চাই যে ওরা ক্রিকেট সম্পর্কে কী জানে।”

১৯৯২ সালে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ জিতেছিল পাকিস্তান। সেই ম্যাচ ছিল মেলবোর্নে। গত রবিবার সেই মাঠেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলল ইংল্যান্ড এবং পাকিস্তান। কিন্তু ইমরান খানের সেই দলের মতো বিশ্বকাপ হাতে মাঠ ছাড়তে পারলেন না বাবর আজ়মরা। প্রথমে বল করে মেলবোর্নের উইকেট কাজে লাগান ইংল্যান্ডের বোলাররা। নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট হারায় পাকিস্তান। ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১৩৭ রান করেন বাবররা। রান তাড়া করতে নেমে ৫ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেন জস বাটলাররা। অর্ধশতরান করেন বেন স্টোকস। ২০১০ সালের পরে আরও এক বার ২০ ওভারের বিশ্বকাপ জিতে নেয় ইংল্যান্ড।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE