Advertisement
১৪ জুন ২০২৪
Adelaide Oval

বৃহস্পতিবার রোহিতদের সেমিফাইনালের সম্ভাবনা কতটা, কী বলছে অস্ট্রেলিয়ার ‘আলিপুর’

অ্যাডিলেডের আবহাওয়ার পূর্বাভাস উদ্বেগ বাড়াচ্ছে ভারত এবং অস্ট্রেলিয়া শিবিরের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চারটি ম্যাচ বৃষ্টির জন্য বাতিল হয়েছে। আরও কয়েকটি ম্যাচে থাবা বসিয়েছে বৃষ্টি।

অ্যাডিলেডের এই মাঠে ভারত-ইংল্যান্ড সেমিফাইনাল হওয়ার কথা।

অ্যাডিলেডের এই মাঠে ভারত-ইংল্যান্ড সেমিফাইনাল হওয়ার কথা। ছবি: টুইটার।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৮ নভেম্বর ২০২২ ২০:৫৫
Share: Save:

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত-ইংল্যান্ড সেমিফাইনাল ঘিরে বাড়ছে অনিশ্চয়তা। বৃষ্টির জেরে ম্যাচ বাতিল হওয়ার সিঁদুরে মেঘ দেখছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। অস্ট্রেলিয়ার আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস ভয় ধরাচ্ছে দু’দলের ক্রিকেটারদের মনেও।

সোমবার অস্ট্রেলিয়ার আবহাওয়া দফতর জানিয়েছিল বৃহস্পতিবার অ্যাডিলেডে বৃষ্টি সম্ভাবনা ৩০ শতাংশ। মঙ্গলবারের পূর্বভাস অনুযায়ী ভারত-ইংল্যান্ড সেমিফাইনালের দিন অ্যাডিলেডে বৃষ্টির সম্ভাবনা বেড়ে হয়েছে ৪০ শতাংশ। অস্ট্রেলিয়ার আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার অ্যাডিলেডের আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে। বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ০.৪ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টি হতে পারে সকালের দিকে। বজ্রগর্ভ মেঘ জমতে পারে। বাতাসের গতিবেগ থাকবে ১৫ থেকে ২০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা। দিনের সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে যথাক্রমে ২৪ ডিগ্রি এবং ১৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ম্যাচের আগের দিন বুধবার অ্যাডিলেডে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে ৮০ শতাংশ। তাই বৃহস্পতিবার বৃষ্টির পরিমাণ আরও বাড়তে বলে মনে করছেন আবহবিদরা।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস দু’দলের ক্রিকেটারদের ছাড়াও উদ্বেগ বাড়াচ্ছে ক্রিকেটপ্রেমীদের। কারণ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চারটি ম্যাচ বৃষ্টির জন্য বাতিল হয়েছে। আরও কয়েকটি ম্যাচে থাবা বসিয়েছে বৃষ্টি। তাই নিশ্চিন্ত থাকতে পারছে না উভয় শিবিরই। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল ও ফাইনালের জন্য এক দিন করে অতিরিক্ত বা রিজার্ভ দিন রাখা হয়েছে। অর্থাৎ, যদি বুধবার নিউজ়িল্যান্ড ও পাকিস্তানের মধ্যে খেলা না হয়, তা হলে সেই খেলা হবে বৃহস্পতিবার। আর যদি বৃহস্পতিবার ভারত ও ইংল্যান্ড ম্যাচ না হয়, তা হলে সেই খেলা হবে শুক্রবার।

কিন্তু বৃষ্টির জেরে দু’দিনের খেলাই ভেস্তে যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে কী হবে? আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, ম্যাচের ফলাফল পাওয়ার জন্য দু’টি দলকে অন্তত ১০ ওভার করে খেলতেই হবে। সাধারণ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ফলের জন্য দু’টি দলকে অন্তত ৫ ওভার করে খেলতেই হত। কিন্তু বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল ও ফাইনালে অন্তত ১০ ওভার করে খেলতেই হবে। যদি প্রথম দিন কিছুটা খেলা হওয়ার পরে খেলা বন্ধ হয়ে যায় তা হলে দ্বিতীয় দিন নতুন করে নয়, যেখানে বন্ধ হয়েছিল সেখান থেকেই খেলা আবার শুরু হবে। কিন্তু ১০ ওভার করে দু’দলের খেলা না হলে সে ক্ষেত্রে দেখা হবে গ্রুপ পর্বের পরে পয়েন্ট কোন দলের বেশি। সেই দলকে জয়ী ঘোষণা করা হবে।

ফাইনালের ক্ষেত্রেও এক দিন অতিরিক্ত রয়েছে। কিন্তু যদি দু’দিন মিলে অন্তত ১০ ওভার করে খেলা করানো না যায় তা হলে ফাইনাল ভেস্তে যাবে। সে ক্ষেত্রে ফাইনালে ওঠা দু’টি দলকে যুগ্ম বিজয়ী ঘোষণা করা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE