Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

আমনাকে নিয়ে বাড়ছে ধোঁয়াশা

আই লিগে  কবে খেলতে দেখা যাবে আল আমনাকে তা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। পরিস্থিতি যে দিকে এগোচ্ছে তাতে পিঠের ব্যথায় কাহিল সিরিয়ান মিডিওর ১৩ নভেম্

নিজস্ব সংবাদদাতা
০৭ নভেম্বর ২০১৮ ০৩:১০
চর্চায়: অনুশীলনে এলেও মাঠে নামেননি আমনা। ফাইল চিত্র

চর্চায়: অনুশীলনে এলেও মাঠে নামেননি আমনা। ফাইল চিত্র

আই লিগে কবে খেলতে দেখা যাবে আল আমনাকে তা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। পরিস্থিতি যে দিকে এগোচ্ছে তাতে পিঠের ব্যথায় কাহিল সিরিয়ান মিডিওর ১৩ নভেম্বর চেন্নাই সিটিএফসির বিরুদ্ধে মাঠে নামা কঠিন। পাহাড়ি দলের বিরুদ্ধে প্রথম দুটো ম্যাচ খেলতে পারেননি আমনা। মঙ্গলবার সকালে যুবভারতীতে অনুশীলনে এলেও মাঠে নামেননি তিনি। আধ ঘণ্টা রি-হ্যাব করে ফিরে যান। ইস্টবেঙ্গলের সহ সচিব ও ডাক্তার শান্তি রঞ্জন দাশগুপ্ত বললেন, ‘‘ওর পিঠের পেশীর যে চোট আছে তাতে ম্যাচ ফিট হতে এক সপ্তাহ সময় লাগবে। ওটা ওর পুরানো চোট। বলা যায় জন্মগত সমস্যা থেকে এই সমস্যা হয়।’’ আর ইস্টবেঙ্গল কোচিং দলের এক সদস্য বললেন, ‘‘আগে বল পায়ে মাঠে নামুক তারপর বলতে পারব কবে খেলতে নামবে আমনা।’’

আমনার চোট নিয়ে লাল-হলুদের স্প্যানিশ কোচ আলেসান্দ্রো মেনেন্দেস অবশ্য খুব একটা চিন্তিত নন। পরপর দুটো কঠিন ম্যাচ জিতে যাওয়ায় তাঁর চিন্তা অনেকটাই কমেছে। তবে দলের অন্যতম স্টপার কিংশুক দেবনাথ এ দিন বিড়ম্বনায় ফেলেছেন কোচকে। মোহনবাগান ছেড়ে আসা কিংশুক কোচের কাছে আবেদন করেছেন তাঁকে রিলিজ করে দেওয়ার জন্য। আলেসান্দ্রো তাঁকে লিখিত আবেদন জানাতে বলেছেন।

এ দিকে পর পর দুই ম্যাচে ক্লাব না জিতলেও কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তীর উপর কোনও টেকনিক্যাল কমিটি বসাচ্ছে না ক্লাব। মোহনবাগানের এক শীর্ষ কর্তা এ দিন বললেন, ‘‘আগের টেকনিক্যাল কমিটির সদস্য কম্পটন দত্ত নিয়মিত মাঠে আসেন। তা ছাড়া কর্মসমিতিতেই তো আছেন সত্যজিৎ চট্টোপাধ্যায় এবং বিদেশ বসুর মতো প্রাক্তন ফুটবলার। ওদের সঙ্গে নিয়ে ইতিমধ্যেই আমরা কোচের সঙ্গে আলোচনা করেছি। কমিটির আর কী দরকার?’’

Advertisement

কাশ্মীরের ম্যাচ ঘিরে উন্মাদনা

নিজস্ব প্রতিবেদন: আই লিগে রিয়াল কাশ্মীরের অভিষেক মরসুমে আগ্রহ ছিল ঘরের মাঠে প্রথম ম্যাচে দর্শক সংখ্যা নিয়ে। ম্যাচ শুরু হওয়ার একটু আগে দেখা গেল প্রবল উৎসাহ নিয়ে মাঠ ভরিয়ে দিয়েছেন দর্শকরা। সরকারি হিসেব বলছে দর্শকসংখ্যা ছিল ১০ হাজারেরও বেশি। অবশ্য প্রথম ম্যাচে গোল দেখতে পেলেন না সমর্থকেরা। চার্চিল ব্রাদার্সের বিরুদ্ধে রিয়াল কাশ্মীরের ম্যাচ শেষ হল গোলশূন্য ড্র। তাতে অবশ্য উৎসাহে কোনও ভাঁটা ছিল না। গোটা ম্যাচেই জুড়ে ছিল ঢাক-ঢোল আর প্রিয় দলের জন্য চিৎকার।
এই প্রথম কাশ্মীরে আই লিগ ম্যাচ আয়োজিত হল। প্রথম ম্যাচে দুরন্ত ভাবে গত বারের চ্যাম্পিয়ন মিনার্ভা পঞ্জাবকে হারানোর পরে এই ম্যাচেও রিয়াল কাশ্মীর চমকে দেবে অনেকেই ভেবেছিলেন। কিন্তু চার্চিল ব্রাদার্সের রক্ষণ আর কিছুটা ভাগ্যের দোষে গোল এল না। দু’বার বল লাগল গোলপোস্টে। দুই অর্ধে এক বার করে।
তার মধ্যে আবার প্রাক্তন চ্যাম্পিয়ন চার্চিলের গোলকিপার কিথান বিরতির আগে লালকার্ড দেখে মাঠ থেকে বেরিয়ে যান। সে সুযোগও কাজে লাগাতে পারেনি রিয়াল কাশ্মীর। ফলে স্কটিশ কোচ ডেভিড রবার্টসনের দল টানা দু’ম্যাচে জয়ের দুরন্ত সুযোগ ফস্কাল।

আরও পড়ুন

Advertisement