Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

সেঞ্চুরিয়ন টেস্টে আশা দেখছেন না সানি-সঞ্জয়েরা

সুনীল গাওস্করের মতো প্রাক্তন ক্রিকেটার মনে করছেন, এই টেস্ট বাঁচানো কঠিন হবে। কারণ অবশ্যই শেষবেলায় বিরাট কোহালির উইকেট।

নিজস্ব প্রতিবেদন
১৭ জানুয়ারি ২০১৮ ০৪:৪৯
বুকে আঘাত লাগার পরে পার্থিব।

বুকে আঘাত লাগার পরে পার্থিব।

সেঞ্চুরিয়ন টেস্ট জিতে কি সিরিজে টিকে থাকতে পারবে বিরাট কোহালির ভারত? মঙ্গলবার খেলা শেষে এই প্রশ্নটাই বড় করে উঠছে।

সুনীল গাওস্করের মতো প্রাক্তন ক্রিকেটার মনে করছেন, এই টেস্ট বাঁচানো কঠিন হবে। কারণ অবশ্যই শেষবেলায় বিরাট কোহালির উইকেট। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে অভিষেক টেস্টে খেলতে নামা লুঙ্গি এনগিডির বলে কোহালি এলবিডব্লিউ হয়ে যাওয়ায় বড় ধাক্কা খেয়েছে ভারত। গাওস্কর তো বলেই দিচ্ছেন, ‘‘কোহালির উইকেটটাই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে গেল। কোহালি আউট হয়ে যাওয়া মানে এই অবস্থা থেকে ভারতের ম্যাচ বাঁচানো খুব কঠিন হয়ে যাবে।’’

দিনের শেষে উইকেটে আছেন চেতেশ্বর পূজারা এবং পার্থিব পটেল। এর মধ্যে পার্থিবের বুকে চোট লাগে। পার্থিবকে নিয়ে গাওস্কর বলছিলেন, ‘‘এই টেস্টে ভারতের টিম নির্বাচন নিয়ে অনেক প্রশ্ন উঠেছে। আসলে কেউ ক্লিক করে গেলেই টিম নির্বাচন ঠিক। আর কেউ ক্লিক না করলেই ভুল। এই পার্থিব যদি কাল বড় রান করতে না পারে, তা হলে ওর নির্বাচন নিয়ে অবশ্যই প্রশ্ন উঠবে। আর করতে পারলে, বলা হবে দারুণ সিদ্ধান্ত।’’

Advertisement

ঋদ্ধিমান সাহার বাইরে থাকার কারণটা পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে। তিনি হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়েছেন। বাংলার এই উইকেটকিপারের জায়গায় ইতিমধ্যেই দীনেশ কার্তিককে দক্ষিণ আফ্রিকায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ধবনের পরিবর্তে দলে আসা কে এল রাহুল আবার দুই ইনিংসেই ব্যর্থ হয়েছেন। ফলে তাঁর অন্তর্ভুক্তির উপরে ইতিমধ্যেই বড় প্রশ্ন উঠে গিয়েছে।

পার্থিবও প্রথম ইনিংসে ব্যর্থ হয়েছেন। দ্বিতীয় ইনিংসে তাঁকে নামানো হয়েছে রোহিত শর্মার আগে। পার্থিব কতদূর কী করতে পারেন, সেটাও দেখার। তবে এই উইকেটকিপারের পাশে দাঁড়িয়ে মঙ্গলবার টুইট করেন সঞ্জয় মঞ্জরেকর। তিনি লেখেন, ‘পার্থিব পটেলের টেস্ট কেরিয়ারটা কখনও জমাট হয়নি। বেশির ভাগ সময়ই ও টিমের বাইরে থেকেছে। আর যখন ভারতীয় দলে ফিরেছে, তখন সব সময়ই বন্দুকের নলের সামনে থাকতে হয়েছে ওকে। পার্থিবের কৃতিত্ব হল, ও কখনও লড়াই ছেড়ে পিছু হঠেনি।’

এই টেস্ট বাঁচানো যে ভারতের পক্ষে কঠিন, তা মেনে নিচ্ছেন মঞ্জরেকরও। তাঁর বক্তব্য হল, এই পিচ নিউল্যান্ডসের থেকেও খারাপ হচ্ছে। তাঁর টুইট, ‘নিউল্যান্ডসের থেকেও পরিস্থিতি খারাপ এখানে। ওখানে অন্তত বোঝা যাচ্ছিল কী আসতে পারে।’ কিন্তু সেঞ্চুরিয়নের পিচের কী অবস্থা দাঁড়িয়েছে? মঞ্জরেকরের টুইট, ‘পিচে পড়ে মাঝে মাঝে যদি কোনও বল নিচু হয়, তা হলে ব্যাটসম্যানদের খেলার একটা রাস্তা আছে। সেটা হল, ফ্রন্টফুটে এসে খেলো। কিন্তু এখানে পরিস্থিতি আরও সঙ্কটজনক। সেঞ্চুরিয়নের পিচে দেখছি কোনও কোনও বল ছিটকে উঠছে। সত্যি, ব্যাটসম্যানদের জন্য খারাপই লাগছে আমার।’

আরও পড়ুন

Advertisement