Advertisement
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
East Bengal

অবনমনের আতঙ্কের মধ্যেই আজ অগ্নিপরীক্ষা ক্রোমাদের

সপ্তাহ দু’য়েক আগে কল্যাণীতে সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের দল অ্যারোজের তরুণ ফুটবলারেরাই অন্ধকার নামিয়েছিলেন লাল-হলুদ শিবিরে।

মার্কোসের সঙ্গে ক্রোমা (বাঁ দিকে)। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

মার্কোসের সঙ্গে ক্রোমা (বাঁ দিকে)। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৫:০২
Share: Save:

শেষ তিন ম্যাচে জয় অধরা। ১১ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে আই লিগ টেবলের নবম স্থানে ইস্টবেঙ্গল। তার উপরে অবনমনের আতঙ্ক। উদ্বেগ আরও বাড়ছে আজ, সোমবার মুম্বইয়ে তাদের প্রতিপক্ষ লিগ টেবলে সবার শেষে থাকা বিদেশিহীন ইন্ডিয়ান ইন্ডিয়ান অ্যারোজ হওয়ায়।

Advertisement

সপ্তাহ দু’য়েক আগে কল্যাণীতে সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের দল অ্যারোজের তরুণ ফুটবলারেরাই অন্ধকার নামিয়েছিলেন লাল-হলুদ শিবিরে। সেই আতঙ্ক এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেননি অভিজ্ঞ খাইমে সান্তোস কোলাদোরা। এই পরিস্থিতিতে সোমবার ফের অ্যারোজের বিরুদ্ধে মরণ-বাঁচন লড়াই। কারণ, এই ম্যাচের উপরে অনেকটাই নির্ভর করছে আই লিগে ইস্টবেঙ্গলের ভবিষ্যৎ।

গত কয়েক দিনে লাল-হলুদ শিবিরের পরিস্থিতি নাটকীয় ভাবে বদলে গিয়েছে। ডিফেন্ডার মার্তি ক্রেসপিকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ফুটবলারদের আত্মবিশ্বাস তলানিতে। কোচ মারিয়ো রিভেরা তবুও আশাবাদী ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যাপারে। ম্যাচের চব্বিশ ঘণ্টা আগে সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেছেন, ‘‘প্রথম পর্বে অ্যারোজের বিরুদ্ধে যে রণনীতি নিয়ে খেলেছিলাম, তার কোনও পরিবর্তন হচ্ছে না। ওই ম্যাচে প্রচুর গোলের সুযোগ নষ্ট করার মূল্য দিতে হয়েছিল আমাদের। সোমবার তার পুনরাবৃত্তি চাই না।’’ তিনি যোগ করেছেন, ‘‘গোল পেলেই ছবিটা বদলে যাবে। ছেলেরা আত্মবিশ্বাস ফিরে পাবে।’’

অ্যারোজের বিরুদ্ধে প্রথম পর্বের ম্যাচে আনসুমানা ক্রোমাকে প্রথম দলের বাইরে রেখেছিলেন মারিয়ো। সোমবার আর সেই ভুল করতে চান না তিনি। রবিবার সন্ধ্যায় কুপারেজ স্টেডিয়ামের কৃত্রিম ঘাসের মাঠে ক্রোমাকে সামনে রেখেই অ্যারোজ ম্যাচের প্রস্তুতি সারেন লাল-হলুদ কোচ। তবে আর এক বিদেশি মার্কোস খিমেনেস দে লা এসপারা মার্তিনকে নিয়ে খুব একটা স্বস্তিতে নেই তিনি। আগের ম্যাচে অ্যারোজের চক্রব্যূহে আটকে গিয়ে মেজাজ হারিয়ে লাল কার্ড দেখেছিলেন। স্পেনীয় স্ট্রাইকারকে তিনি মাথা ঠান্ডা রাখার পরামর্শ দিয়েছেন। সেই সঙ্গে দাবি করেছেন, অবনমনের আতঙ্ক তাঁকে গ্রাস করেনি। বললেন, ‘‘আমি অবনমনের কথা ভাবছি না। লিগ টেবলে আমাদের কী অবস্থান, তা নিয়েও ভাবতে চাই না। আমাদের পাখির চোখ অ্যারোজকে হারানো।’’

Advertisement

ইস্টবেঙ্গলের জয়ের পথে ফের কাঁটা ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য প্রস্তুত অ্যারোজও। লাল-হলুদের দুই প্রাক্তন সন্মুগম বেঙ্কটেশ ও মহেশ গাউলি এখন অ্যারোজের দায়িত্বে। প্রথম জন কোচ। দ্বিতীয় জন তাঁর সহকারী। বেঙ্কটেশ-মহেশের রণকৌশলই প্রথম পর্বের ম্যাচে ভেস্তে দিয়েছিল ইস্টবেঙ্গলের যাবতীয় পরিকল্পনা। সোমবারও জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী তাঁরা। বেঙ্কটেশ বলেছেন, ‘‘ইস্টবেঙ্গল শক্তিশালী দল। একাধিক প্রতিশ্রুতিমান ফুটবলার রয়েছে দলে। তা সত্ত্বেও আমরা জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী। ফুটবলারেরা নিজেদের উজাড় করে দেওয়ার জন্য তৈরি।’’

সোমবার আই লিগে: ইন্ডিয়ান অ্যারোজ বনাম ইস্টবেঙ্গল (সন্ধে ৭.০০, ওয়ান স্পোর্টস চ্যানেলে)।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.