Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

চোট নিয়ে বিব্রত নর্দে অনিশ্চিত মলদ্বীপে

বুধবার মুম্বই এফসি-র বিরুদ্ধে পুরো নব্বই মিনিটই খেলেছেন তিনি। কিন্তু তাতেও সনি নর্দের চোট নিয়ে আশঙ্কা কাটছে না মোহনবাগানে।

দেবাঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়
কলকাতা ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৩:৩০
সনির ঘুম কেড়েছে জখম হাঁটু।

সনির ঘুম কেড়েছে জখম হাঁটু।

বুধবার মুম্বই এফসি-র বিরুদ্ধে পুরো নব্বই মিনিটই খেলেছেন তিনি। কিন্তু তাতেও সনি নর্দের চোট নিয়ে আশঙ্কা কাটছে না মোহনবাগানে।

কোচ সঞ্জয় সেনের কথা অনুযায়ী, পরের ম্যাচে খেলবেন সনি। কিন্তু ভিতরের খবর, তাঁর চোট নিয়ে আতঙ্ক পুরোপুরি কাটেনি। শনিবার ডিএসকে শিবাজিয়ান্সের বিরুদ্ধে খেললেও এএফসি কাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের ম্যাচে মলদ্বীপে নাও যেতে পারেন।

মোহনবাগান কোচ সঞ্জয় সেন যদিও সনি নিয়ে জল্পনা বাড়াতে নারাজ। মুম্বই থেকে বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরে ফিরে বলে দেন, ‘‘সনির এমআরআইয়ে কিছু পাওয়া যায়নি। ডাক্তার অনুমতি দেওয়াতেই মুম্বই এফসি-র বিরুদ্ধে নামিয়েছিলাম। পরের ম্যাচে ডিএসকে শিবাজিয়ান্সের বিরুদ্ধেও সনি খেলবে।’’ এর পরেই সঞ্জয় বলেন, ‘‘ডাক্তার অনন্ত জোশী জানিয়েছেন, খেলতে গিয়ে যদি সনির ব্যথা ফের শুরু হয়, তা হলে ফের ওঁর কাছে দেখাতে যেতে হবে।’’

Advertisement

আর এখান থেকেই তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। টিম সূত্রে যে খবর বেরিয়ে আসছে তা রক্তচাপ বাড়াতে পারে সবুজ-মেরুন সমর্থকদের। শোনা যাচ্ছে, হাঁটুর মিনিস্কাসে (টিবিয়ার কার্টিলেজের মাথায় থাকা তরল যা হাড়ের মধ্যে ঘর্ষণ হতে দেয় না) পুরনো চোট ছিল সনির। এ বারও চোট নাকি সেখানেই। আগামী শনিবার সনি আই লিগের ম্যাচ খেললেও পরের দিনই এএফসি কাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের ম্যাচ খেলতে তিনি মলদ্বীপ উড়ে যাবেন কি না, তা নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে। সূত্রের খবর, শিবাজিয়ান্সের বিরুদ্ধে খেলার পর ফের মুম্বইতে ডাক্তার অনন্ত জোশীর কাছে উড়ে যাওয়ার কথা হাইতির স্ট্রাইকারের। সেখানে চোট পরীক্ষার পর অস্ত্রোপচার দরকার কি না, তা জানাবেন চিকিৎসকরা। অস্ত্রোপচার হলে শুধু এএফসি কাপ নয়, আই লিগের দ্বিতীয় পর্বেও অনিশ্চিত হতে পারেন সনি।

আরও পড়ুন:

আইপিএল নিয়ে বোর্ডের নির্দেশিকা

মোহনবাগান কর্তারা যদিও সনির ব্যাপারে গোটা দলের মুখেই কুলুপ এঁটে দিয়েছেন। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক এক ফুটবলার এরই মাঝে বললেন, ‘‘মুম্বইতে সনি ড্রেসিংরুমে বলছিল, ব্যথাটা মাঝে-মাঝে হচ্ছে। আবার কখনও থাকছে না। চোট না থাকলে এ রকম হবে কেন?’’

সনি নর্দে কিন্তু এ দিন কলকাতা বিমানবন্দরে নেমে সংবাদমাধ্যমকে এড়িয়েই বাড়ি ফিরে যান। শুক্রবার সকাল আটটায় মোহনবাগান মাঠে তাঁকে অনুশীলনে এক প্রস্ত দেখার কথা সঞ্জয় সেন ও তাঁর সাপোর্ট স্টাফের। এরই মাঝে আই লিগ ও এএফসি কাপের ম্যাচ একসঙ্গে চলায় মোহনবাগান ফুটবলারদের দীর্ঘ বিমানযাত্রা ও ক্লান্তির কথা বিবেচনা করে ২৫ ফেব্রুয়ারির শিলং লাজং ম্যাচ পিছিয়ে দিল ফেডারেশন। শিলংয়ে এই ম্যাচ মোহনবাগান খেলবে ১২ এপ্রিল।

আরও পড়ুন

Advertisement