Advertisement
০৩ ডিসেম্বর ২০২২

বৈষম্য নিয়ে সেরিনার পাশে ম্যাকেনরো

খেলা চলাকালীন কোচের কাছ থেকে নির্দেশ নেওয়ার অভিযোগে সেরিনার পয়েন্ট, গেম কেড়ে নেওয়ার পরে আর্থিক জরিমানা হয় ফাইনালে।

বিতর্ক: চেয়ার আম্পায়ার প্রসঙ্গ এড়িয়ে যাচ্ছেন সেরিনা। ফাইল চিত্র

বিতর্ক: চেয়ার আম্পায়ার প্রসঙ্গ এড়িয়ে যাচ্ছেন সেরিনা। ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৫:৪০
Share: Save:

সেরিনা উইলিয়ামসের যুক্তরাষ্ট্র ওপেন ফাইনালে চেয়ার আম্পায়ারকে ‘চোর’ বলা নিয়ে বিতর্ক চলছেই। এ বার মুখ খুললেন আর এক কিংবদন্তি জন ম্যাকেনরো। কোর্টে সেরিনার আচরণকে তিনি সমর্থন করেননি। যদিও তিনিও মনে করেন, টেনিসে পুরুষ ও মহিলাদের সম্পর্কে সব সময় একই নীতি নেওয়া হয় না।

Advertisement

খেলা চলাকালীন কোচের কাছ থেকে নির্দেশ নেওয়ার অভিযোগে সেরিনার পয়েন্ট, গেম কেড়ে নেওয়ার পরে আর্থিক জরিমানা হয় ফাইনালে। যা নিয়ে ম্যাকেনরো বললেন, ‘‘সেরিনা যা বলেছে তার চেয়েও খারাপ কথা আমি আম্পায়ারদের সম্পর্কে বলেছি। র‌্যাকেট তো ভেঙেইছি। কিন্তু কখনও আমাকে এত বড় শাস্তির মুখে পড়তে হয়নি। যা প্রমাণ করে সার্কিটে ছেলে ও মেয়েদের জন্য আলাদা নিয়ম রয়েছে। এই বৈষম্য নিয়ে সেরিনা যা বলেছে তা একশো ভাগ সত্যি।’’

পাশাপাশি চব্বিশটি গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালিক আর এক কিংবদন্তি মার্গারেট কোর্ট কিন্তু সেরিনার সমালোচনাই করেছেন। তাঁর বক্তব্য, ‘‘আমাদের নিয়ম মেনেই খেলতে হবে। দুঃখের ব্যাপার হচ্ছে, কোনও কোনও খেলোয়াড় নিজেকে আইনের ঊর্ধ্বে মনে করে। বিশেষ করে ম্যাচে হারার সময়। সেরিনা যেমন ওর হাঁটুর বয়সি নেয়োমি ওসাকার বিরুদ্ধে প্রথম সেটে দাঁড়াতেই পারেনি। মনে হয় এটাই নিতে পারেনি সেরিনা।’’

সেরিনা আপাতত নিজে এই ধরনের বিতর্ক থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করছেন। লাস ভেগাসে এক অনুষ্ঠানে এসে জানালেন, ফ্যাশন আর নিজের পরিবার নিয়েই কথা বলতে তিনি আগ্রহী। নিজের মেয়ে, স্বামী ও ফ্যাশন নিয়ে তিনি বললেনও অনেক কথা। কিন্তু সরাসরি সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলার সময় যুক্তরাষ্ট্র ওপেন ফাইনালের বিতর্কিত প্রসঙ্গ একাধিক বার উঠল। এবং সেরিনাকে তা নিয়ে কথাও বলতে হল। তাঁকে বলা হয়, ‘‘এমন নয় যে এই প্রথম আপনাকে অবিচারের শিকার হতে হল। কিন্তু এই ধরনের ঘটনার পরে, প্রতি বারই দেখা যায় আপনি দারুণ ভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন। আশা করি এ বারও তেমন কিছুই হবে।’’

Advertisement

এমন কথায় সেরিনার প্রতিক্রিয়া, ‘‘আপনাদের কথায় আমি সব সময়ই অনুপ্রাণিত হই। নিজের খেলাকে উন্নত করতেও সারাক্ষণ চেষ্টা করে যাই।’’ সঙ্গে মজা করে যোগ করলেন, ‘‘এমনিতেই আমি খুব পরিশ্রমী। এমনকি নিজের মেয়েকে মানুষ করার ব্যাপারেও। তা ছাড়া ফ্যাশন নিয়েও আমার দুর্বলতা আছে। টেনিসের মতোই এই জায়াগাটাতেও আমি সেরা হতে চাই। আর তার জন্য সব সময় ভাবনা-চিন্তা করি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.