Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

Paes-Bhupathi: হেশ নিয়ে লি, ভাই-ভাই সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৬:২৭
স্মরণীয়: এখনও চর্চায় মহেশ এবং লিয়েন্ডারের জুটি। ফাইল চিত্র

স্মরণীয়: এখনও চর্চায় মহেশ এবং লিয়েন্ডারের জুটি। ফাইল চিত্র

অনেক বছর আগে লিয়েন্ডার পেজ খানিকটা ঝোঁকের মাথাতেই কথাটা বলেছিলেন মহেশ ভূপতিকে। বলেছিলেন, ‘‘তুমি কি উইম্বলডনে চ্যাম্পিয়ন হতে চাও?’’ বলা যায়, লি-হেশের অবিশ্বাস্য সেই জুটির এটাই একমাত্র জন্মরহস্য! তাঁদের জুটিকে নিয়ে টিভি চ্যানেলের আসন্ন এক সিরিজ় প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে যে রহস্য ফাঁস করলেন লিয়েন্ডার স্বয়ং।

অবিস্মরণীয় এই জুটির জয়যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯৯৯-এ উইম্বলডনের ডাবলস ট্রফি জিতে। সংবাদ সংস্থা পিটিআই-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে লিয়েন্ডার বলেছেন, ‘‘আমাদের নিজেদের মধ্যে সত্যিই একধরনের ভ্রাতৃত্ববোধ তৈরি হয়েছিল। আসন্ন সিরিজ়ে সবাই দেখতে পাবেন, দুই ভারতীয় তরুণের টেনিসে বিশ্বজয়ের কাহিনি। যারা উইম্বলডন জিতে বিশ্বের এক নম্বরও হয়েছিল।’’ প্রসঙ্গত এই জুটি প্রথম দফায় একসঙ্গে খেলে ১৯৯৪ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত। এবং দ্বিতীয় দফায় ২০০৮ থেকে ২০১১ পর্যন্ত। শুধু উইম্বলডন নয়, লি-মহেশ জুটি দু’বার ফরাসি ওপেনেও চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল।

১৬ বছর বয়সে শ্রীলঙ্কায় একটা প্রতিযোগিতা খেলার সময় মহেশের সঙ্গে আলাপ লিয়েন্ডারের। যা নিয়ে স্মৃতিরোমন্থন করে তিনি বলেছেন, ‘‘মহেশের বয়স তখন ১৫। আমরা খেলছিলাম এশীয় চ্যাম্পিয়নশিপে। ওকে দেখেই মনে হয়েছিল, একসঙ্গে খেললে আমরা উইম্বলডনে চ্যাম্পিয়ন হতে পারি। এমনকি ডাবলসে বিশ্বক্রমতালিকায় শীর্ষস্থান পাওয়াও অসম্ভব নয়। তখনই প্রথম বার ওকে বলেছিলাম, তুমি কি উইম্বলডনে চ্যাম্পিয়ন হতে চাও?’’

Advertisement

সতীর্থের প্রস্তাব শুনে মহেশ নাকি বলেছিলেন, ‘‘তুমি কি পাগল? তা-ও কি আবার হতে পারে?’’ তাতে লিয়েন্ডারের জবাবটা ছিল, ‘‘হ্যাঁ আমি পাগল। আগে বলো তুমি উইম্বলডন জিততে চাও কি না? তার পরে তো যা ঘটেছিল, তার সবই ইতিহাস।’’

আরও পড়ুন

Advertisement