Advertisement
০৪ মার্চ ২০২৪
শান্তির ম্যাচ মিলিয়ে দিল ফুটবলের কিংবদন্তিদের

মারাদোনার পাসে বাজ্জোর গোল

ইতিহাস যেন পিছনে হাঁটল সোমবার রোমা স্টেডিয়ামে। মায়াবী রাতে ঝলসে উঠল অতীতের সোনালি আলো। নব্বই মিনিট হাত ধরাধরি করে চলতে দেখা গেল প্রাক্তন আর বর্তমান ফুটবল মহাতারকাদের। শান্তির জন্য। গাজায় যুদ্ধবিধ্বস্ত পরিস্থিতিতে শান্তি ফেরাতে পোপ ফ্রান্সিসের ডাকে শান্তির ম্যাচে। কে ছিলেন না! ফুটবলের রাজপুত্র দিয়েগো মারাদোনা, ইতালির কিংবদন্তি রবার্তো বাজ্জো, পাওলো মালদিনি, আন্দ্রে পির্লো, আটলেটিকো মাদ্রিদের আর্জেন্তিনীয় কোচ দিয়েগো সিমিওনে, কলম্বিয়ার কিংবদন্তি কার্লোস ভালদেরামা, আন্দ্রে শেভচেঙ্কো এ রকম আরও অনেক উজ্জ্বল মহাতারকা।

এখনও বলকে তিনি কথা বলান। প্রীতি ম্যাচে মারাদোনা।

এখনও বলকে তিনি কথা বলান। প্রীতি ম্যাচে মারাদোনা।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ০৩:০৯
Share: Save:

ইতিহাস যেন পিছনে হাঁটল সোমবার রোমা স্টেডিয়ামে। মায়াবী রাতে ঝলসে উঠল অতীতের সোনালি আলো। নব্বই মিনিট হাত ধরাধরি করে চলতে দেখা গেল প্রাক্তন আর বর্তমান ফুটবল মহাতারকাদের। শান্তির জন্য। গাজায় যুদ্ধবিধ্বস্ত পরিস্থিতিতে শান্তি ফেরাতে পোপ ফ্রান্সিসের ডাকে শান্তির ম্যাচে।

কে ছিলেন না! ফুটবলের রাজপুত্র দিয়েগো মারাদোনা, ইতালির কিংবদন্তি রবার্তো বাজ্জো, পাওলো মালদিনি, আন্দ্রে পির্লো, আটলেটিকো মাদ্রিদের আর্জেন্তিনীয় কোচ দিয়েগো সিমিওনে, কলম্বিয়ার কিংবদন্তি কার্লোস ভালদেরামা, আন্দ্রে শেভচেঙ্কো এ রকম আরও অনেক উজ্জ্বল মহাতারকা। ছিলেন এখনকার তারকারাও--জিয়ানলুইজি বুফোঁ, দিয়েগো গদিন, স্যামুয়েল এটো, দিয়েগো লুগানো, রিকার্ডো আলভারেজ, মাউরো ইকার্ডিরা। সব মিলিয়ে বিভিন্ন ধর্মের ৫০ জন তারকাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল এই ম্যাচে। উদ্দেশ্য একটাই সব ধর্মের সহাবস্থানের ব্যাপারটা ফুটবলের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা।

টক্কর ছিল টিম পাপি বনাম স্কোলাসের। ম্যাচের অন্যতম উদ্যোক্তা ইতালির তারকা জেভিয়ের জানেত্তির স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আর পোপের শিক্ষামূলক প্রচারে তৈরি সংগঠনের নামে দুটি দল। জানেত্তি পাপির অধিনায়ক। আর স্কোলাসের নেতা ইতালির ক্যাপ্টেন বুফো।ঁ চমক ছিল কোচদের নিয়েও।


পোপের সঙ্গে।

আর্জেন্তিনার কোচ জেরার্ডো মার্টিনো পাপির দায়িত্বে আর আর্সেন ওয়েঙ্গার স্কোলাসের। আর্সেনাল ম্যানেজারকে দলবদলের বাজারে শেষ দিনেও এত ব্যস্ততা সামলে হাজির হতে দেখে আশ্চর্যই হন অনেকে। তবে ম্যাচের সবচেয়ে নস্ট্যালজিক মুহূর্ত তৈরি হয়ে যায় গোড়াতেই স্কোলসের হয়ে মারাদোনার দুরন্ত লব থেকে বাজ্জোর গোলে। বিরতিতে এগিয়ে থাকলেও শেষ পর্যন্ত অবশ্য ইন্টার মিলানের স্ট্রাইকার ইকার্ডির হ্যাটট্রিকে পাপি ৬-৩ হারিয়ে দেয় স্কোলাসকে। তবে এ রকম ব্যতিক্রমী মুহূর্তে কে আর স্কোরবোর্ড মনে রাখে!

পোপের ডাকে ম্যাচের আয়োজন হলেও তিনি নিজে অবশ্য ম্যাচ দেখতে স্টেডিয়ামে হাজির থাকতে পারেননি। তবে ম্যাচের আগে ভাটিকান সিটিতে মারাদোনা, ভালদেরামা, দেল পিয়েরোরা পোপের সঙ্গে দেখা করে আসেন। মারাদোনা স্বদেশীয় পোপকে দশ নম্বর লেখা জার্সিও উপহার দেন।

ছবি: এএফপি

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE