×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৩ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

ইস্টবেঙ্গলে স্পেনীয় স্ট্রাইকার! মায়োরকার এই ফুটবলারকে দেখা যেতে পারে লাল-হলুদ জার্সিতে

কৃশানু মজুমদার
কলকাতা ০৪ অগস্ট ২০১৯ ১৪:১৮
অভিজ্ঞতা প্রচুর মার্কোসের। ছবি: ফেসবুক থেকে।

অভিজ্ঞতা প্রচুর মার্কোসের। ছবি: ফেসবুক থেকে।

ডুরান্ড কাপের প্রথম ম্যাচে গোলের জন্য ৮৫ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছে ইস্টবেঙ্গলকে। এক সময়ে গ্যালারিতে উপস্থিত লাল-হলুদ সমর্থকরা পর্যন্ত অধৈর্য হয়ে পড়েছিলেন প্রিয় দল গোল না পাওয়ায়। এ বার ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের জন্য ভাল খবর। গোল করার ফুটবলার দ্রুতই চলে আসছেন লাল-হলুদে।

সূত্রের খবর, শতবর্ষের বছরে লাল-হলুদ জার্সি পরে খেলতে দেখা যেতে পারে মায়োরকার ফুটবলার ৩৩ বছরের মার্কোস দে লা এসপারাকে। স্পেনের ফুটবলে তিনি মার্কোস নামেই পরিচিত। বিভিন্ন ক্লাবে খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর। গোল করেছেন অনেক।

সম্প্রতি স্প্যানিশ মিডিয়ায় প্রকাশিত খবর, আটলেটিকো বালেয়ারেস-এর সঙ্গে মার্কোসের চুক্তি বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। তাঁর পরিবর্তে নতুন স্ট্রাইকারকে সই করিয়েছে বালেয়ারেস। ফলে তিনি ফ্রি প্লেয়ার। ইস্টবেঙ্গলে খেলতে কোনও সমস্যা নেই। মার্কোস এলে সমর্থকদের চিন্তা অনেকটাই দূর হবে বলে করছেন ফুটবল বিশেষজ্ঞরা।

Advertisement

আরও পড়ুন: শতবর্ষে জয় দিয়ে শুরু ইস্টবেঙ্গলের, গোল করে শাপমুক্ত বিদ্যাসাগর

শনিবার হাইমে কোলাডো ফ্রি কিক থেকে গোল করে লাল-হলুদকে এগিয়ে দেন। পরে বিদ্যাসাগর সিংহও গোল করে ব্যবধান বাড়ান। কিন্তু, গোল করার জন্য একজন বিদেশি স্ট্রাইকারের খুব দরকার এই ইস্টবেঙ্গলে। শহরে পা রাখতে দেরি হচ্ছে মার্কোসের। লাল-হলুদ কোচ মেনেন্দেজ শনিবারই সেই কারণ জানিয়েওছেন। তাঁর দাবি, স্পেনে ভারতীয় দূতাবাসে কিছু সমস্যার জন্যই শহরে আসা বিলম্বিত হচ্ছে মার্কোসের। মোহনবাগানের স্ট্রাইকার চামোরো সালভারও পরিচিত তিনি।

মার্কোসকে যাঁরা স্পেনে চেনেন, তাঁরা বলছেন, বিভিন্ন ক্লাবে খেলার ফলে ওঁর অভিজ্ঞতা অনেক। কমপ্লিট স্ট্রাইকার বলতে যা বোঝায় মার্কোস তাই। ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা তাঁর আসার অপেক্ষায়।

Advertisement