Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

সচিনের রেকর্ডকে ছাপিয়ে যাওয়া অসম্ভব: বিরাট

সংবাদ সংস্থা
১৬ জানুয়ারি ২০১৭ ১৭:৫০
সচিন তেন্ডুলকরের সঙ্গে বিরাট কোহালি। ছবি: সংগৃহীত।

সচিন তেন্ডুলকরের সঙ্গে বিরাট কোহালি। ছবি: সংগৃহীত।

সচিনের রেকর্ড ছুঁয়েছেন বিরাট কোহালি। রবিবার পুণের মাটিতে ১৭তম ওয়ান ডে সেঞ্চুরি করার সঙ্গে সঙ্গেই রানের লক্ষ্যে নেমে সেঞ্চুরিটি করে ফেললেন বিরাট। যদিও সচিনকে ছাপিয়ে গিয়েছেন বিরাট কোহালি। কারণ এই রেকর্ড সচিন করেছিলেন ২৩২টি ইনিংস খেলে। সেখানে বিরাট কোহালি নিয়েছেন মাত্র ৯৬ ইনিংস। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে কোহালির ম্যাচ উইনিং ১২২ রানের ইনিংসের সঙ্গে সব মিলে ২৭টি সেঞ্চুরি করে ফেললেন তিনি। যদিও সচিনের সঙ্গে তুলনায় সব সময়ই অস্বীকার করেছেন তিনি। এদিনও বলেন, ‘‘এক তো আমি মনে হয় না অতদিন খেলতে পারব (প্রসঙ্গত ২৪ বছর পেশাদার ক্রিকেট খেলেছেন সচিন তেন্ডুলকর)। যেখানে রয়েছে ২০০ টেস্ট ও ১০০টি আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরি। যেগুলো অসাধারণ রেকর্ড। যা ছোঁয়া প্রায় অসম্ভব। কিন্তু হ্যাঁ, আমি আমার খেলা দিয়ে পার্থক্য গড়ে দিতে চাই। যাতে আমি যখন খেলা ছাড়ব তখন দেশের জন্য কিছু ভাল করে যেতে পারি।’’

আরও খবর: কটকে হোটেল সঙ্কটে পুণেতেই আটকে কোহালিরা

নতুন বছর, নতুন দায়িত্ব দারুণভাবে শুরু করলেন বিরাট কোহালি। ব্যাটে সেঞ্চুরি, সচিনের রেকর্ড ছোঁয়া সঙ্গে বিরাট রানের লক্ষ্যে পৌঁছে জয় ছিনিয়ে নেওয়া। সবই ছিল শুরুর দিন। এই সাফল্যের চাবিকাঠি হিসেবে কোহালি অবশ্য তাঁর জীবনে খুব সামান্য কাছের মানুষ থাকাকেই কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন। যেটা কখনও তাঁকে অমনোযোগি হতে দেয়নি। সঙ্গে নিয়মানুবর্তিতা ধরে রাখতে সাহায্য করেথে। বলেন, ‘‘সৌভাগ্যবশত আমার জীবনে অনেক মানুষ নেই যারা আমার কাছের। আমার মতে এটা ভীষনভাবে সাহায্য করেছে। যদি তোমার জীবনে অনেক মানুষ, অনেক বন্ধু থাকে কথা বলার জন্য তা হলে তোমার চিন্তা-ভাবনা বিক্ষিপ্ত হয়ে যেতে পারে। আর সময় নিয়ন্ত্রণ করাও প্রায় অসম্ভব হয়ে যায়।’’

Advertisement

দেশের সেরা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে কোহালি প্রথম দু’য়ে রয়েছেন। তাঁর ব্যাট কথা বলে যে কোনও পরিস্থিতিতে। ‘‘একজন ক্রীড়াবিদ হিসেবে আমার মনে হয়, আমরা অনেক সময় নিজেদের ক্ষমতা না বুঝেই নিজেদের নিয়ন্ত্রণ করে ফেলি। যে কারণে আমি নিজের উপর কোনও লিমিট ছাপিয়ে দিই না। আমার ভাললাগে নিজের ক্ষমতাকে প্রতি মুহূর্তে আবিষ্কার করতে। আমি জীবনে কী করতে চাই সে ব্যাপারে কখনও কোনও সীমা তৈরি করি না। ভারসাম্য রেখে এগিয়ে যাওয়া। এখনও সব ঠিকই চলছে। আমি যে ভারসাম্যের কথা ভাবি সেটা এখনও চালিয়ে যেতে পারছি।’’

আরও পড়ুন

Advertisement