Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৭ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

নোভাকের সামনে আজ কঠিন লড়াই, ধারণা বেকারদের

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৬:৫৩
যুযুধান: ফাইনালে লড়াই জ়োকোভিচ বনাম মেদভেদেভের। ফাইল চিত্র

যুযুধান: ফাইনালে লড়াই জ়োকোভিচ বনাম মেদভেদেভের। ফাইল চিত্র

‘আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে’ নোভাক জ়োকোভিচ আসলে খেলবেন নিজের বিরুদ্ধেই! রড লেভার এরিনায় আজ, রবিবার আক্ষরিক সুপার সানডে। অস্ট্রেলীয় ওপেনে পুরুষদের ফাইনালে বিশ্বের এক নম্বর মুখোমুখি রাশিয়ার দানিল মেদভেদেভের। টেনিস পণ্ডিতরা বলে দিচ্ছেন, দু’জনের খেলার ধরনে দারুণ সাদৃশ্য রয়েছে। একইরকম সার্ভিস। মিল ব্যাকহ্যান্ড রিটার্নেও। ফোরহ্যান্ডে নোভাকের কব্জির মোচড়টা শুধু একটু বেশি। এবং দু’জনই খেলেন যন্ত্রের মতো। তাই ফাইনালের ভবিষ্যদ্বাণী করতে গিয়ে একটু দ্বিধায় প্রাক্তনরা।


বিশ্বের প্রাক্তন দু’নম্বর অ্যালেক্স কোরাজ় যেমন বলছেন, ‘‘শুধু অভিজ্ঞতার জন্যই আমি নোভাককে সামান্য এগিয়ে রাখব। অন্য কোনও কারণে নয়।’’ জিম কুরিয়রের কথায়, ‘‘রুশ খেলোয়াড় দানিল অনেকটা দাবাড়ুদের মতো।’’ এক ধাপ এগিয়ে বরিস বেকারের মন্তব্য, ‘‘এই মুহূর্তে নোভাকের কাছে মেদভেদেভের চেয়ে কঠিন প্রতিপক্ষ কেউ নেই।’’


কেন প্রাক্তনরা রবিবারের ফাইনালে ধুন্ধুমার যুদ্ধ হবেই ধরে নিচ্ছেন? মনে হয় তার একটা বড় কারণ পরিসংখ্যানও। এটা ঘটনা যে, অস্ট্রেলীয় ওপেনে আটবার ফাইনাল খেলে আটবারই জিতেছেন জ়োকোভিচ। এবং ন’বার সেমিফাইনাল খেলেও কখনও হারেননি। কিন্তু হালফিলের তথ্য বলছে, খুব পিছিয়ে নেই মেদভেদেভও। অস্ট্রেলীয় ওপেনে অবিশ্বাস্য ছন্দের সৌজন্যে তাঁর এটিপি ক্রমতালিকায় জীবনে প্রথম বার তিন নম্বরে উঠে আসাটা একরকম নিশ্চিত। দ্বিতীয় বার গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফাইনাল খেলার পথে টানা জিতেছেন ২০টি ম্যাচ। এবং এখানেই শেষ নয়। যাঁদের হারিয়েছেন, তাদের মধ্যে রয়েছেন বিশ্বের প্রথম দশজনের প্রায় সবাই। একমাত্র কোর্টে প্রতিপক্ষ হিসেবে পাননি অসুস্থ রজার ফেডেরারকে।

Advertisement


মেদভেদেভ যে অঘটন ঘটানোর ক্ষমতা রাখেন, তা স্পষ্ট স্বয়ং জ়োকোভিচের কথাতেও। ‘‘দানিলকে হারানো সত্যিই কঠিন। তা ছাড়া ও একটানা জিতে চলেছে। শুধু তাই নয়, বিশ্বসেরাদের বিরুদ্ধে অনায়াসে জিতছে। আমাকে তো লন্ডনে স্ট্রেট সেটে হারিয়েছে। অসম্ভব উন্নতি করেছে ছেলেটা। ‘বিগ সার্ভার’ও। কী উচ্চতা! কোর্টে নড়াচড়াও করে অবিশ্বাস্য দ্রুতগতিতে,’’ বলেছেন মেলবোর্নে নবম খেতাবের মুখে দাঁড়ানো জ়োকোভিচ। যোগ করছেন, ‘‘হতে পারে ওর ফোরহ্যান্ড কিছুটা দুর্বল। তবু এই জায়গাটাতেও অসম্ভব উন্নতি করেছে। ব্যাকহ্যান্ড নিয়ে তো আলোচনাই হতে পারে না। আজকাল আক্রমণ করতেও ভয় পায় না। কুরিয়র ওর সঙ্গে দাবাড়ুদের তুলনা করে একদম ঠিক বলেছে। দাবার বোর্ডের মতো কখন কোন জায়গায় থাকতে হয়, সেটা দারুণ বোঝে।’’


রাশিয়ারই আসলান কারাতসেভকে হারিয়ে জ়োকোভিচ যে ভাবে মেদভেদেভ-স্তুতি করেছেন তাতে মনে হতে পারে ফাইনালে তিনি নিজেকে ‘আন্ডারডগ’ ভাবছেন। অনেকে অবশ্য এটাকে সার্বিয়ান মহাতারকার মনস্তাত্ত্বিক খেলা বলেও মনে করছেন। অর্থাৎ, এ সব বলে তিনি দানিলকেই চাপে ফেলতে চান!

আরও পড়ুন

Advertisement