×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ জুন ২০২১ ই-পেপার

মেলবোর্নে জিতে রজার-রাফার ঘাড়ে নিঃশ্বাস জ়োকারের

সর্বসেরার দৌড় জমে উঠেছে, গোরানের আস্থা ছাত্র নোভাকে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৫:৪৬
ট্রফি হাতে নোভাক।

ট্রফি হাতে নোভাক।
ছবি রয়টার্স

রবিবার রড লেভার এরিনায় নোভাক জ়োকোভিচের অস্ট্রেলীয় ওপেন জয় শুধুই আর একটি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয় নয়। টেনিস দুনিয়ায় চলতে থাকা তর্ককেই বরং আরও উস্কে দিল যে, নোভাক কি দ্রুতই সকলকে ছাপিয়ে যাবেন? রবিবার মেলবোর্ন পার্কে নবম বার জেতার পরে জ়োকোভিচের গ্র্যান্ড স্ল্যাম সংখ্যা দাঁড়াল ১৮। রজার ফেডেরার এবং রাফায়েল নাদালের ঘাড়ের উপর নিঃশ্বাস ফেলছেন তিনি। ফেডেরার এবং নাদাল দু’জনেই জিতেছেন ২০টি করে গ্র্যান্ড স্ল্যাম।

২০০৩-এ উইম্বলডনে ফেডেরার যখন তাঁর প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতছেন, জ়োকোভিচের বয়স ১৬। এখন তিনি টপকে যাওয়ার হুঙ্কার দিচ্ছেন কংবদন্তি রজারকে। ৩৯ বছরের ফেডেরারকে সম্প্রতি চোটের ধাক্কায় কোর্ট থেকে বাইরে থাকতে হয়েছে। ধরে নেওয়া যায়, প্রিয় ঘাসের কোর্ট উইম্বলডনে ফিরবেন রজার। কিন্তু আগের মতো ধারাবাহিক ভাবে শাসন করা তাঁর পক্ষে আর সম্ভব হবে না বলেই বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। নতুন করে সুস্থ হয়ে ফেরা নাদাল এবং জ়োকোভিচের মধ্যেই সব চেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্ল্যাম দখলের দৌড় সীমাবদ্ধ থাকতে পারে। নাদালের বয়স ৩৪, জ়োকোভিচের ৩৩। বয়স এবং ফর্ম জ়োকোভিচের দিকে। একটা সময় ছিল যখন টেনিসের ‘বিগ ফোর’ অর্থাৎ চার মহাতারকার কথা বলা হত। ফেডেরার, নাদাল, জ়োকোভিচের সঙ্গে সেই সময়ে দৌড়ে ছিলেন অ্যান্ডি মারে। কিন্তু চোট তাঁকে ছিটকে দিয়েছে। কিন্তু চলছে মহাত্রয়ীর শাসন।তরুণ প্রজন্মের মধ্যে কয়েক জন ছাপ ফেলছেন ঠিকই কিন্তু ধারাবাহিকতা দেখা যাচ্ছে না। যেমন দানিল মেদভেদেভ, স্টেফানোস চিচিপাস, ডমিনিক থিম, আলেকজান্ডার জ়েরেভ। প্রত্যেকেই প্রতিভাবান। চিচিপাস এ বারের অস্ট্রেলীয় ওপেনে নাদালকে হারিয়েছেন। মেদভেদেভ ফাইনাল খেলেছেন। কিন্তু গ্র্যান্ড স্ল্যাম খেতাব জয়ে এখনও রাজ চলছে মহাত্রয়ীর। গত ১৮ বছরে ৫৮টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতেছেন এই তিন জনে। গত ১১টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের মধ্যে ১০টি জিতেছেন নাদাল ও জ়োকোভিচ। গত বছর যুক্তরাষ্ট্র ওপেন জেতেন ডমিনিক থিম। সাম্প্রতিককালে সেটাই একমাত্র নতুন মুখের জয়।

২০০৮-এ জ়োকোভিচ তাঁর প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জেতেন। তত দিনে ফেডেরারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের সংখ্যা ১২, নাদাল জিতে ফেলেছেন ৫টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম। যত সময় এগিয়েছে, জ়োকোভিচের আধিপত্য বেড়েছে। ২০১১-তে ফেডেরার যখন ১৬তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতছেন, নাদাল জিতে ফেলেছেন ১০টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম। জ়োকোভিচের নামের পাশে ছিল ৪টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম। কিন্তু ২০১২ থেকে প্রত্যেক বছরে অন্তত একটি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতেছেন জ়োকোভিচ। আট বছর ধরে কোনও গ্র্যান্ড স্ল্যামে তাঁকে হারাতে পারেননি ফেডেরার। এবং, নাদালের ফরাসি দুর্গ বাদ দিলে জ়োকোভিচকে বাকি তিনটি গ্র্যান্ড স্ল্যামেই (উইম্বলডন, অস্ট্রেলীয় ওপেন, যুক্তরাষ্ট্র ওপেন) ফেভারিট মনে হয়েছে। ফেডেরার এবং নাদলাকে ক্রমাগত ভুগিয়ে চলেছে চোট, সেটাও সার্বিয়ার তারকার পক্ষে যেতে পারে।

Advertisement



জ়োকোভিচের কোচ এবং প্রাক্তন টেনিস তারকা গোরান ইভানিসেভিচ বলেছেন, ‘‘দৌড় শুরু হয়ে গিয়েছে ভাল মতোই। টেনিসের সেরা এক অধ্যায়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি আমরা। নোভাক খুব আত্মবিশ্বাসী এই দৌড়ে জেতার ব্যাপারে।’’ সব চেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্ল্যাম নিয়ে কে শেষ করবেন, তা নিয়ে টেনিস দুনিয়ায় জোর চর্চা। গোরানের মনে হচ্ছে, ‘‘রাফা অন্তত আরও একটি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতবে। দু’টিও জিততে পারে। ওরা এত অসাধারণ খেলোয়াড়, কে উপেক্ষা করতে পারবে! প্রত্যেক দিন যেন আরও ভাল টেনিস উপহার দিচ্ছে ওরা। নতুনরা আসছে, কিন্তু সব সময়ই মনে হচ্ছে, ওরা যেন আরও ভাল। জানি না কোথায় ওদের শেষ।’’ তিনি যোগ করছেন, ‘‘যখনই সবাই ধরে নেয়, ওদের (মহাত্রয়ী) যুগ হয়তো শেষ, ওরা দুর্ধর্ষ টেনিস নিয়ে উদয় হয়। আমি রজারের ফেরার প্রতীক্ষায় আছি। তখন ত্রয়ীর দৌড় আরও আকর্ষণীয় হয়ে উঠতে পারে।’’ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের সংখ্যায় কাকে এগিয়ে রাখবেন? গোরানের উত্তর, ‘‘আমি আগেও বলেছি, আবারও বলছি, নাদাল আর জ়োকোভিচ কিন্তু ফেডেরারকে ছাড়িয়ে যাবে।’’

যদিও শুধু গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের সংখ্যায় মহাত্রয়ীর মধ্যে সেরা কে, সেই তর্কের নিষ্পত্তি হওয়া কঠিন। অনেকের কাছে ফেডেরার টেনিসের সব চেয়ে প্রিয় তারকা। তাঁর খেলায় শিল্প খুঁজে পান ভক্তরা। তর্ক চলবে। সেই সঙ্গে চলবে স্ল্যাম দৌড়ও!

Advertisement