Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

মরিয়া ক্রোমাকে নিয়ে চিন্তায় শঙ্কর

পিয়ারলেসকে হাল্কা ভাবে নেওয়ার প্রশ্নই নেই। ক্রোমা, নবির মতো ফুটবলাররা নামলেই গোল করতে মরিয়া হয়ে ওঠে। তার উপর কোচ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য। যিনি

নিজস্ব সংবাদদাতা
১৬ অগস্ট ২০১৮ ০৩:১০
Save
Something isn't right! Please refresh.
স্বস্তি: ম্যাচ ফিট ডিকাকে নিয়ে উদ্বেগ নেই কোচের। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

স্বস্তি: ম্যাচ ফিট ডিকাকে নিয়ে উদ্বেগ নেই কোচের। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

Popup Close

ন’বছর আগে মোহনবাগানের শেষ বার কলকাতা লিগ জয় তাঁর কোচিংয়েই। বৃহস্পতিবার সেই বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের দল পিয়ারলেসের বিরুদ্ধেই তিন পয়েন্ট তুলে আনার লক্ষ্যে নামছে মোনহবাগান।

যে ম্যাচ খেলতে নামার আগে মোহনবাগান কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তী সমীহ করছেন পিয়ারলেসকে। বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের দলে রয়েছেন মোহনবাগানের বেশ কয়েক জন প্রাক্তন। যার মধ্যে রয়েছেন রহিম নবি, জাগতার সিংহ আনসুমানা ক্রোমার মতো ফুটবলার। এ ছাড়াও ত্রিনিদাদ ও টোব্যাগোর স্ট্রাইকার অ্যান্টনি উলফ, নাইজিরিয়ান ডিফেন্ডার চিকা ওয়ালি, ইস্টবেঙ্গলে খেলা অভিনব বাগ-ও স্বাধীনতা দিবসের দিন পিয়ারলেস জার্সি পরে অনুশীলন করেছেন।

সেই কারণেই হয়তো মোহনবাগান কোচ বলছেন, ‘‘পিয়ারলেসকে হাল্কা ভাবে নেওয়ার প্রশ্নই নেই। ক্রোমা, নবির মতো ফুটবলাররা নামলেই গোল করতে মরিয়া হয়ে ওঠে। তার উপর কোচ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য। যিনি বড় ও ছোট দলে কোচিং করিয়ে যাচ্ছেন দুই দশক ধরে। কাজেই তিন পয়েন্ট নিয়ে ফেরা বেশ কঠিন চ্যালেঞ্জ।’’

Advertisement

টেলিফোনে মোহনবাগান কোচের এই মন্তব্য শুনে হাসেন বিপক্ষ কোচ বিশ্বজিৎ। তীর্যক ভঙ্গিতে বলেন, ‘‘আমাদের কিছু ভাল ফুটবলার রয়েছে তা ঠিক। কিন্তু তার জন্য এত সমীহর কিছু নেই।’’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘মোহনবাগান খেলবে নিজেদের মাঠে, দর্শকদের সামনে। ওদের রিজার্ভ বেঞ্চটার সামনে থাকবেন ম্যাচের লাইন্সম্যানও। তা হলে ওদের চিন্তা কী? তবে এটা ঠিক, নিজেদের দিনে আমরা যে কোনও দলকেই হারাতে পারি। তার জন্য শুরুতেই আক্রমণে ঝাঁপিয়ে না পড়ে প্রতি-আক্রমণে গোল তুলে নেওয়ার চেষ্টা করব আমরা।’’ সদ্য দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন নাইজিরীয় ডিফেন্ডার চিকা ওয়ালি। তাঁকে মাঠে নামানো হবে কি না সে ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে, পিয়ারলেস কোচ বলে দেন, ‘‘দুপুরের মধ্যে ওর ক্লিয়ারেন্স চলে এলে নামিয়ে দেব চিকাকে।’’

কলকাতা লিগে এখনও পর্যন্ত তিন ম্যাচ খেলে মোহনবাগানের পয়েন্ট নয়। অন্য দিকে পর পর দুই ম্যাচে জিতে পিয়ারলেসের পয়েন্ট ছয়। সে কথা মনে করিয়ে দিয়ে, পিয়ারলেসের ফুটবলার রহিম নবি বলে দেন, ‘‘মোহনবাগানের বেশ কিছু দুর্বল জায়গা আমাদের নজরে এসেছে। সেগুলোকেই নিশানা বানাবো আমরা। ঘরের মাঠে খেলায় চাপে থাকবে মোহনবাগান। সেই অর্থে আমাদের কোনও চাপ নেই। আমরা কিন্তু খোলা মনে খেলতে পারব।’’

মোহনবাগান কোচ তাই বলছেন, ‘‘ক্রোমা গত বছর আমাদের দলে খেলে গিয়েছে। তার পরে দল থেকে বাদ যায়। ফলে পুরনো দলের বিরুদ্ধে রাগে নিজের সেরাটা বার করে আনতেই পারে। তাই আমাদের রক্ষণকে সতর্ক থাকতে হবে। কোনও ভুল করা চলবে না।’’

সবুজ-মেরুন শিবিরের পক্ষে ভাল খবর, এই মুহূর্তে তাঁদের ক্যামেরুন ও উগান্ডার দুই বিদেশি ফরোয়ার্ড দিপান্দা ডিকা ও হেনরি কিসেক্কা দু’জনেই সুস্থ ও ম্যাচ ফিট। সে কথা বলতে গিয়ে মোহনবাগান কোচের গলায় স্বস্তি। বলছেন, ‘‘আগের ম্যাচগুলোতে সুস্থ না থাকায় ডিকা ও হেনরিকে পুরো ছন্দে পাওয়া যায়নি। এ বার ওরা ম্যাচফিট থাকায় চিন্তা অনেকটাই দূর হয়েছে।’’ স্বাধীনতা দিবসের সকালে যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন সংলগ্ন অনুশীলন মাঠে এই দুই বিদেশিকেই খোশমেজাজে পিয়ারলেস ম্যাচের জন্য প্রস্তুতি নিতে দেখা গিয়েছে। তবে সোমবার রাতে দলের আক্রমণ ভাগের আর এক খেলোয়াড় জিতেন মুর্মুকে পেট ব্যথার কারণে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। মঙ্গলবার তিনি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেও এ দিন অনুশীলনে আসেননি।

গত কয়েক ম্যাচে মোহনবাগানের দুই প্রান্ত দিয়ে আক্রমণ বিপক্ষ শিবিরে ত্রাসের সঞ্চার করেছিল। যা লক্ষ্য করেছে পিয়ারলেস শিবিরও। সে কথা মনে করালে মোহনবাগান কোচ বলছেন, ‘‘বিপক্ষ কী রণকৌশল নেয়, তা দেখার পরে মাঠের ভিতর নিজেদের পরিকল্পনা ঠিক করব। তবে রেনবো বা জর্জ টেলিগ্রাফের মতো পিয়ারলেস রক্ষণ করে নব্বই মিনিট কাটাবে বলে মনে হয় না। ওঁরাও গোলের জন্য মরিয়া হবে। সেটা হলে কিন্তু আমরাও ওদের রক্ষণে ফাঁকফোকর
খুঁজে পাব।’’

বৃহস্পতিবার

কলকাতা লিগ: মোহনবাগান বনাম পিয়ারলেস (মোহনবাগান, ৪-৩০) সরাসরি সাধনা নিউজে।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement