×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

উইম্বলডনের সেন্টার কোর্টের নতুন রানি হালেপ, মায়ের সামনেই হল স্বপ্নপূরণ

সংবাদ সংস্থা
উইম্বলডন১৪ জুলাই ২০১৯ ০৪:২৯
ট্রফি হাতে হালেপ। ছবি: রয়টার্স।

ট্রফি হাতে হালেপ। ছবি: রয়টার্স।

মার্গারেট কোর্টের ২৪টি গ্র্যান্ড স্লামের রেকর্ড ছোঁয়ার হাতাছানি ছিল সেরিনা উইলিয়ামসের সামনে। শনিবার উইম্বলডন ফাইনাল হেরে ২৩টি গ্র্যান্ড স্লামেই আটকে রইলেন তিনি।

রোমানিয়ার সিমোনা হালেপ ৬-২, ৬-২-এ মার্কিন-কিংবদন্তিকে হারিয়ে নতুন উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন হলেন। প্রথম সেট মাত্র ২৬ মিনিটে জিতে নিয়েছিলেন হালেপ। দ্বিতীয় সেটে সেরিনা ফিরে আসবেন, সেটাই ধরে নিয়েছিলেন সবাই। কিন্তু, দ্বিতীয় সেটেও প্রথম সেটেরই প্রতিফলন। হালেপের আগ্রাসী টেনিসের সামনে উড়ে গেলেন সেরিনা।

হালেপ ও সেরিনার লড়াই যখন চলছে, তখন টুর্নামেন্টের অফিসিয়াল সাইটের তরফে একটি টুইট করা হয়। সেখানে লেখা হয়, ২০১১ সালে সেরিনার মুখোমুখি হয়েছিল হালেপ। তখন তাঁর বয়স মাত্র ১৯। দ্বিতীয় রাউন্ডের সেই লড়াইয়ে হালেপ ম্যাচ টেনে নিয়ে যান তৃতীয় সেটে। সে যাত্রায় সেরিনার মুখেই খেলা করেছিল হাজার ওয়াটের আলো। আজ শনিবার উলট পুরাণ। সেরিনাকে হারিয়ে উইম্বলডনের নতুন রানি হালেপ।

Advertisement

আরও পড়ুন: নাদালের সঙ্গে লড়াই উপভোগ করি খুব: রজার

আরও পড়ুন: নাদালকে উড়িয়ে ১২তম উইম্বলডন ফাইনালে ৩৭-এর ‘তরুণ’ ফেডেরার

এর আগে ফরাসি ওপেন জিতেছিলেন হালেপ। এ বার উইম্বলডনে চ্যাম্পিয়ন হয়ে হালেপ তাঁর মায়ের স্বপ্ন পূরণ করলেন। যে দিন থেকে হালেপ টেনিস খেলা শুরু করেছিলেন, সে দিন থেকেই তাঁর মা স্বপ্ন দেখতেন, কবে তাঁর মেয়ে খেতাব জিতবেন উইম্বলডনে। সেন্টার কোর্টে হালেপ যখন লড়ছেন সেরিনার বিরুদ্ধে, তখন স্ট্যান্ডে উপস্থিত হালেপের মা। মায়ের সামনেই মেয়ে হারিয়ে দিলেন সেরিনার মতো এক কিংবদন্তিকে। এর আগে তিন বার কোর্টকে ছোঁয়ার সুযোগ এসেছিল সেরিনার সামনে। তিনি পারেননি। এ দিনও পারলেন না।

হালেপের আগ্রাসী টেনিসের কাছে হার মানলেন মার্কিন-তারকা। খেলার শেষে সেরিনা বলেন, ‘‘আজ অতি মানবিক টেনিস খেলেছে হালেপ। ওর আক্রমণাত্মক টেনিসের সামনে আমি দাঁডা়তেই পারিনি।’’

Advertisement