Advertisement
১৬ জুলাই ২০২৪
T20 World Cup 2024

বিশ্বকাপের সুপার ৮-এ আফগানিস্তানকে ৪৭ রানে হারিয়ে শুরু ভারতের, চিন্তা থেকে গেল কোহলিকে নিয়ে

জয় দিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইট পর্ব শুরু করল ভারত। বার্বাডোজের ২২ গজে আফগানিস্তানকে রোহিতেরা হারালেন ৪৭ রানে। শনিবার ভারতের পরের প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ।

Picture of Rohit Sharma and Jasprit Bumrah

জয়ের উচ্ছ্বাস রোহিত শর্মা, যশপ্রীত বুমরাদের। ছবি: আইসিসি।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২০ জুন ২০২৪ ২৩:৩৬
Share: Save:

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইট পর্ব জয় দিয়ে শুরু করল ভারত। বৃহস্পতিবার আফগানিস্তানকে ৪৭ রানে হারালেন রোহিত শর্মারা। প্রথমে ব্যাট করে ভারত করে ৮ উইকেটে ১৮১ রান। জবাবে আফগানিস্তানের ইনিংস শেষ হল ২০ ওভারে ১৩৪ রানে।

বার্বাডোজের মন্থর ২২ গজ বোলারদের সাহায্য না করলেও ব্যাটারদের জন্য সুখকর ছিল না। পিচের চরিত্র পড়তে ভুল করেননি রোহিত। টস জিতে ভারতীয় দলের অধিনায়ক প্রথম ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন। যদিও ভারতের ইনিংসের শুরুটা ভাল হয়নি। ৮ রান করে ফজলহক ফারুকির বলে আউট হয়ে যান রোহিত। দ্বিতীয় উইকেটের জুটিতে কিছুটা চেষ্টা করেন বিরাট কোহলি এবং ঋষভ পন্থ। দু’জনকে পর পর আউট করে ভারতকে চাপে ফেলে দেন রশিদ খান। কোহলি করেন ২৪ বলে ২৪ রান। মারেন ১টি ছয়। তাঁর ফর্ম নিয়ে ভারতীয় শিবিরের উদ্বেগ থেকেই গেল। পন্থের ব্যাট থেকে এল ১১ বলে ২০ রানের ইনিংস। ৪টি চার মারেন তিনি। দলকে ভরসা দিতে পারলেন না শিবম দুবেও (১০)। তাঁকে আউট করেন আফগান অধিনায়ক। রশিদের বল খেলতে সমস্যায় পড়লেন ভারতীয়েরা। ৯০ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে যায় ভারত।

এর পর হাল ধরেন সূর্যকুমার যাদব এবং হার্দিক পাণ্ড্য। পঞ্চম উইকেটে তাঁদের ৬০ রানের জুটি ভারতীয় শিবিরের চিন্তা দূর করে। সূর্যকুমার ৫৩ রানের ইনিংস খেলেন ২৮ বলে। ৫টি চার এবং ৩টি ছক্কা মারেন। হার্দিক করলেন ২৪ বলে ৩২। তাঁর ব্যাট থেকে এল ৩টি চার এবং ২টি ছক্কা। ব্যর্থ রবীন্দ্র জাডেজা (৭)। শেষ দিকে কিছুটা আগ্রাসী ব্যাটিং করলেন অক্ষর পটেল। ৬ বলে ১২ রান করেন তিনি। ২ রানে অপরাজিত থাকেন আরশদীপ সিংহ।

আফগানিস্তানের সফলতম বোলার রশিদ ২৬ রানে ৩ উইকেট নিলেন। ফারুকি ৩ উইকেট নিলেন ৩৩ রান খরচ করে। ৪০ রানে ১ উইকেট নেন নবীন উল হক।

জয়ের জন্য ১৮২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই চাপে পড়ে যায় আফগান ইনিংস। পর পর আউট হন রহমানুল্লাহ গুরবাজ় (১১), হজরতুল্লাহ জ়াজাই (২) এবং ইব্রাহিম জ়াদরান (৮)। দ্বিতীয় ওভারে বল করে এসেই প্রতিপক্ষ শিবিরে আঘাত হানেন যশপ্রীত বুমরা। চতুর্থ ওভারে অক্ষরকে আক্রমণে এনেও সাফল্য পান রোহিত। এর পর কিছুটা লড়াই করার চেষ্টা করেন গুলবাদিন নইব এবং আজ়মতুল্লাহ ওমরজ়াই।

১০ ওভারে ৩ উইকেটে ৬৬ রান তোলে আফগানিস্তান। তখনই ওভার পিছু রান তোলার লক্ষ্য বেড়ে হয়ে যায় ১১.৬। স্বভাবতই চাপ বৃদ্ধি থাকে রশিদদের শিবিরে। সেই চাপ আরও বৃদ্ধি পায় ২২ গজে জমে যাওয়া দুই ব্যাটার পর পর আউট হওয়ায়। নইবকে (১৭) আউট করলেন কুলদীপ যাদব। ওমরজ়াইকে (২৬) সাজঘরে ফেরান জাডেজা। এর পর আর কোনও আফগান ব্যাটার ম্যাচ জেতানোর মতো ইনিংস খেলতে পারলেন না। নাজিবুল্লাহ জ়াদরান করলেন ১৭ বলে ১৯ রান। ২টি ছক্কা মারলেন। তাঁকেও আউট করলেন বুমরা। সফল হল না মহম্মদ নবির চেষ্টাও। ১৪ বলে ১৪ রান করে আউট হলেন কুলদীপের বলে। ব্যাট হাতে ব্যর্থ রশিদ (২), নবীন (শূন্য)। ১২১ রানে ৯ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর আফগানদের জয়ের আর কোনও আশা ছিল না। তেমন কিছু হয়ওনি। শেষ পর্যন্ত নুর আহমেদ করেন ১২ রান। ফারুকি অপরাজিত থাকেন ৪ রানে।

ভারতের সফলতম বোলার বুমরা ৭ রানে ৩ উইকেট নিলেন। ৩৬ রানে ৩ উইকেট আরশদীপের। ৩২ রানে ২ উইকেট কুলদীপের। ৩২ রানে ২ উইকেট কুলদীপের। ১৫ রানে ১ উইকেট অক্ষরের। ২০ রানে ১ উইকেট নিলেন হার্দিক।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE