Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

দিপান্দারা জিতেই শ্রদ্ধা জানাতে চান

নিজস্ব সংবাদদাতা
০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ০৪:১০

রবিবারও ক্লাবকর্তাদের সঙ্গে আসন্ন মোহনবাগান ম্যাচ নিয়ে আলোচনা করেছেন। নিয়েছেন ময়দানের খবরাখবর।

সোমবার সকালে মহমেডান স্পোর্টিং ক্লাবের সেই সভাপতি সুলতান আহমেদের আকস্মিক প্রয়াণে শোকস্তব্ধ কলকাতা ময়দান। এ দিন সন্ধেতেই তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। বিকেলেই তাঁর বাড়িতে গিয়ে মরদেহে মালা দিয়ে শোক প্রকাশ করে আসেন, দুই প্রধান-সহ ময়দানের বিভিন্ন ক্লাবের কর্তারা।

মঙ্গলবারই কলকাতা প্রিমিয়ার লিগে কাস্টমস-এর বিরুদ্ধে ম্যাচ রয়েছে মহমেডানের। প্রিয় সভাপতি ‘সুলতান দা’-কে হারানোর বেদনার মধ্যেও যে ম্যাচ খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মহমেডান কর্তারা। ম্যাচের আগে দু’মিনিট নীরবতা পালন করার জন্য আইএফএ-কে অনুরোধ জানিয়েছে সাদা-কালো শিবির। জানা গিয়েছে মঙ্গলবার বারাসতে কাস্টমস-এর বিরুদ্ধে ম্যাচে শোকের জন্য হাতে কালো ব্যাজ বেঁধে নামবেন দিপান্দা ডিকারা।

Advertisement

শুধু ফুটবল নয়। ক্রিকেট-প্রশাসনের সঙ্গেও তাঁর যোগাযোগ ছিল দীর্ঘদিন। ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গল (সিএবি)-এর কর্মসমিতির সদস্য ছিলেন প্রয়াত এই মহমেডান কর্তা। অতীতে পাকিস্তান ক্রিকেট টিম কলকাতায় এলে সুলতান আহমেদের উপর দায়িত্ব পড়ত পাক দলের স্থানীয় ম্যানেজারের। সিএবি সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এ দিন আইপিএল-এর বৈঠকে যোগ দিতে হাজির ছিলেন মুম্বইয়ে। যুগ্ম সচিব অভিষেক ডালমিয়াও অসুস্থ। তাই সিএবি-র তরফে শ্রদ্ধা জানিয়ে আসেন সংস্থার দুই কর্তা দেবব্রত দাস ও অনু দত্ত। সিএবি, মহমেডান-সহ ময়দানের সব ক্লাবেই পতাকা অর্ধনমিত করে রাখা হয়।

এক সপ্তাহ পরেই যে ক্লাবের বিরুদ্ধে বড় ম্যাচ ছিল সুলতান আহমেদের মহমেডানের, সেই মোহনবাগান ক্লাবের অর্থসচিব দেবাশিস দত্ত বলছেন, ‘‘ময়দানে সুলতান আহমেদ ছিলেন সব ক্লাবের বন্ধু। তাঁর মৃত্যুতে ময়দানের অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল।’’

আরও পড়ুন: চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনের শেষে চালকের আসনে অস্ট্রেলিয়া

আর যে ক্লাবের হয়ে ময়দানে প্রথম পা রাখা সুলতান আহমেদের সেই ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের অন্যতম শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার বললেন, ‘‘প্রয়াত দীপক (পল্টু) দাসের হাত ধরে প্রথম ইস্টবেঙ্গলের আজীবন সদস্য হয়েছিলেন সুলতান। পরে মহমেডান ক্লাবের শীর্ষকর্তা হলেও ইস্টবেঙ্গলের যে কোনও খারাপ সময়ের সঙ্গী ছিলেন তিনি। নিপাট ভদ্রলোক ফুটবল প্রশাসক ছিলেন তিনি।’’

মঙ্গলবার মহমেডানের ম্যাচ থাকায় এ দিন সকালে ক্লাব মাঠে অনুশীলনের পরে বাড়ি ফেরার পথেই ক্লাব সভাপতির আকস্মিক মৃত্যু সংবাদ পেয়ে বিহ্বল হয়ে পড়েন কোচ-ফুটবলাররা। দ্রুত দক্ষিণ কলকাতার যে নার্সিংহোমে সুলতান আহমেদকে আনা হয়েছিল সেখানেই ভিড় জমান ফুটবলাররা। পরে সাদা-কালো শিবিরের কর্তারা ফুটবলারদের বাড়ি পাঠিয়ে দিলেও থেকে যান কোচ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য এবং ক্লাবের সহ-সভাপতি ও ফুটবলার দীপেন্দু বিশ্বাস।

দীপেন্দু বলছিলেন, ‘‘এ বার কলকাতা লিগ মহমেডান ক্লাবে আনার জন্য উদ্যোগী হয়েছিলেন সুলতানদা। তাঁর অনুমতি নিয়েই শক্তিশালী দল বানিয়েছি আমরা। সেই সুলতানদা নেই এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না।’’

কলকাতা লিগে এই মুহূর্তে চার ম্যাচে মহমেডানের পয়েন্ট ৯। প্রথম ম্যাচে পাঠচক্রের বিরুদ্ধে হারলেও তার পরে প্রবল ভাবেই লিগ জয়ের দৌড়ে ফিরে এসেছে মহমেডান। কোচ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বলছেন, ‘‘ছন্দটা নষ্ট করতে চাই না। কাস্টমস ম্যাচ জিতেই প্রয়াত সুলতান দা-কে শ্রদ্ধা জানাতে চাই আমরা। ছেলেরা সে কথাই ভেবেছে।’’

কলকাতা প্রিমিয়ার লিগে: মহমেডান-কাস্টমস (বারাসত, বিকেল ৫.০০)।।



Tags:
Sultan Ahmed Funeral Mohammedan Sporting Clubসুলতান আহমেদে Dipana Dickaমহমেডান Football

আরও পড়ুন

Advertisement