Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০২ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

ব্রিউস্টারের হ্যাটট্রিকে বিধ্বস্ত ব্রাজিল, ফাইনালে ইংল্যান্ড

সুচরিতা সেন চৌধুরী
২৫ অক্টোবর ২০১৭ ১৮:২০
ইংল্যান্ডের হ্যাটট্রিকম্যান ব্রিউস্টার। ছবি: রয়টার্স।

ইংল্যান্ডের হ্যাটট্রিকম্যান ব্রিউস্টার। ছবি: রয়টার্স।

ইংল্যান্ড ৩ (ব্রিউস্টার-৩)
ব্রাজিল ১ (ওয়েসলি)

যুবভারতীতে হলুদ ঝড় উঠল না!

বুধবারের বিকেলে পড়ে পাওয়া সেমিফাইনালে কলকাতার ফুটবলপ্রেমীরা যেমন হাসি মুখে বাড়ি ফিরতে পারল না, তেমন অলিখিত ঘরের মাঠে নিজেদের সেরাটা দিতে পারল না ব্রাজিলও। পাওলিনহো, অ্যালানদের খেলায় এ দিন সাম্বার সেই ছন্দও খুঁজে পাওয়া গেল না। বরং চলল ব্রিটিশ রাজ।

Advertisement

ব্রাজিলকে একাই শেষ করে দিল ব্রিউস্টার। হ্যাটট্রিক তো করলেনই, পাঁচ গোলও হতে পারত। আর ব্রাজিলের খেলায় থেকে গেল শুধুই হতাশা।

ব্রিউস্টার গোল পেল ঠিকই, কিন্তু ইংল্যান্ড মাঝমাঠকে পরিচালনা করে গেল কালাম ও ফোডেন। আলাদা করে বার বার চোখে পড়ল এই দু’জনের পুরো মাঠ জুড়ে খেলা। আর পর পর তৈরি হল গোলের সুযোগ। যা পুরোপুরি কাজে লাগিয়ে গেল হ্যাটট্রিক ম্যান ব্রিউস্টার।



৩৮ মিনিটে কালামের একটা ছোট্ট মাইনাসেই আবারও সেই ব্রিউস্টারের ফিনিশ। ছবি ফিফার সৌজন্যে।

শুরু থেকেই ছিল টানটান উত্তেজনা। কিন্তু, ম্যাচের রাশ ছিল ইংল্যান্ডের হাতেই। এখনও একটাও ম্যাচ হারেনি ব্রিটিশরা। ৯০ মিনিট শেষে সেই খেলাই তারা ধরে রাখল ব্রাজিলের বিরুদ্ধে।

ম্যাচ শুরুর ১০ মিনিটের মধ্যেই গোল করে ইংল্যান্ডকে এগিয়ে দিয়েছিল রিয়ান ব্রিউস্টার। বক্সের মধ্যে থেকেই গোলে শট নিয়েছিল রিয়ান। সেই বল কোনও রকমে বুক দিয়ে বাঁচিয়ে দেয় ব্রাজিল গোলকিপার গ্যাব্রিয়েল ব্রাজাও। কিন্তু, নিজের নিয়ন্ত্রণে রাখতে ব্যর্থ হওয়ায় ফিরতি বল আবারও পেয়ে যায় ব্রিউস্টার। গোলে শট নেওয়ার পর সে যে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়নি, তা আবারও প্রমাণ হল। ফিরতি বলে একটা ছোট্ট টোকাই যথেষ্ট ছিল। কারণ, তত ক্ষণে ব্রাজিল গোলকিপার সরে গিয়েছে নিজের জায়গা থেকে।

আরও খবর
বিশ্বকাপের শহরে ভবিষ্যতের স্বপ্নে ভাস্কর, তনুময়রা

শুরুতেই গোল করে মানসিক ভাবে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। পর পর আক্রমণে প্রথমার্ধের অনেকটা সময়ই ব্রাজিল রক্ষণকে নাস্তানাবুদ হতে দেখা গেল। তার মধ্যেই ব্রাজিলকে সমতায় ফেরাল ওয়েসলি। ছ’গজ বক্সের বাইরে পাওলিনহোর সঙ্গে ওয়ান টাচ খেলেই গোলে ওয়েসলির জোরালো শট। ইংল্যান্ড গোলকিপার তখন দর্শক মাত্র।



ইংল্যান্ডের তিন গোল লেখা থাকল ব্রিউস্টারের নামেই। ছবি: এএফপি।

২৯ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত ব্রাজিল, যদি না নিশ্চিত গোলের সুযোগ নষ্ট করত ব্রেনার। ব্রেনারকে বল পায়ে বক্সের মধ্যে ঢুকে পড়তে দেখে নিজের জায়গা ছেড়ে গোলের মুখ ছোট করতে বেরিয়ে পড়েছিল ইংল্যান্ড গোলকিপার কার্টিস অ্যান্ডারসন। সেই সুযোগে গোলে শট নিলেই বল গোল লাইনের পাস ঘেঁষে বেরিয়ে যায় বাইরে। তার ঠিক দু’মিনিটের মধ্যেই ওয়েসলির গোলমুখী শট কোনও রকমে বাঁচায় ইংল্যান্ড গোলকিপার। ৩৮ মিনিটে কালামের একটা ছোট্ট মাইনাসেই আবারও সেই ব্রিউস্টারের ফিনিশ। প্রথমার্ধ শেষ হয় ২-১ গোলেই।

আরও খবর
ভয়ঙ্কর পোস্টার ছেপে মেসিকে আইএস হুমকি

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে আক্রমণে ওঠার মন্ত্র নিয়েই মাঠে নেমেছিল ব্রাজিল। কিন্তু, তা ধরে রাখতে পারল না ইংল্যান্ডের পাল্টা আক্রমণে। যার ফল, দ্বিতীয়ার্ধে ব্রাজিল নয় আবার গোল এল ইংল্যান্ডেরই ঘরে। তার আগে অবশ্য ব্রাজিলের খাতায় লেখা থাকল গোল নষ্টের খতিয়ান। ৪৯ মিনিটে অ্যান্তোনিওর শট বাঁচিয়ে দিল গোলকিপার। এর পর পাওলিনহোর শটও জমা পড়ল গোলকিপারের হাতে। কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই অ্যালেনর ক্রস থেকে লিনকনের হেড গোলের সামনে দিয়ে চলে গেল বাইরে। আর তার পরই ৭৭ মিনিটে ব্রিউস্টারের হ্যাটট্রিক গোল। ফোডেন থেকে স্মিথ হয়ে চলতি বলেই ব্রিউস্টারের দুরন্ত শট। ইংল্যান্ডের তিন গোল লেখা থাকল ব্রিউস্টারের নামেই।

হ্যাটট্রিক ম্যান ব্রিউস্টারের দাপটে শেষ হয়ে গেল ব্রাজিলের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বপ্ন। সাম্বা নয় ব্রিটিশদের নাচের তালেই শেষ হল কলকাতার সেমিফাইনাল।

ব্রাজিল: গ্যাব্রিয়েল, ওয়েসলি, ভিতাও, লুকাস, ওয়েভারসন, ভিক্টর (জুনিও), মার্কোস, লিনকন, অ্যালান(রডরিগো), পাওলিনহো, ব্রেনার (আলবার্তো)।

ইংল্যান্ড: অ্যান্ডারসন, জোয়েল, স্টিভেন (তিমথি), মার্ক, জোনাথন, জর্জ, ফিলিপ (কিরবে), তাশান, কালাম, মর্গ্যান (এমিলি), ব্রিউস্টার।

আরও পড়ুন

Advertisement