Advertisement
৩০ নভেম্বর ২০২২

বিশ্বকাপেই ভিএআর প্রযুক্তি

রাশিয়া বিশ্বকাপে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি থাকার ব্যাপারে এই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে চলতি মাসের শেষের দিকে কলম্বিয়ায় অনুষ্ঠিত হতে চলা ফিফা কাউন্সিল-এর বৈঠকে।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৪ মার্চ ২০১৮ ০৩:৪৫
Share: Save:

জল্পনা চলছিল গত কয়েক মাস ধরেই। অবশেষে শনিবার জুরিখে এক বৈঠকের পরে ফুটবলের নিয়ম নির্ধারণকারী সংস্থা আন্তর্জাতিক ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন বোর্ড (আইএফএবি) সবুজ সঙ্কেত দিল, ফুটবল ম্যাচে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভিএআর) প্রযুক্তি প্রয়োগের ব্যাপারে।

Advertisement

ইতিমধ্যেই মাঠের মধ্যে রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়ে বিভ্রান্তি এড়াতে এই প্রযুক্তি ব্যবহারের জন্য জোরালো সওয়াল করেছিলেন, জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। এ দিন ফিফা প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘‘সব দিক খতিয়ে দেখার পর আমরা সিদ্ধান্তে এসেছি, ভিএআর ফুটবলের জন্য ভাল হবে।’’

তবে রাশিয়া বিশ্বকাপে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি থাকার ব্যাপারে এই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে চলতি মাসের শেষের দিকে কলম্বিয়ায় অনুষ্ঠিত হতে চলা ফিফা কাউন্সিল-এর বৈঠকে। যে সম্পর্কে ইনফান্তিনো বলেন, ‘‘কাউন্সিল যাতে এ ব্যাপারে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেয়, সে ব্যাপারে বিশদে বোঝানো হবে। আশা করি ওরা এই প্রযুক্তি ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা বুঝবে।’’ আন্তর্জাতিক ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন বোর্ডের তরফে এ দিন বলা হয়, ‘‘ফুটবলকে আরও স্বচ্ছ ও ত্রুটিমুক্ত করবে এই প্রযুক্তি। যার ফলে বিশ্ব ফুটবলে নতুন দিক উন্মোচিত হবে।’’ ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি নিয়োগের ফলে বেশ কয়েকটি বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া সহজ হবে রেফারির। তার মধ্যে রয়েছে, বল গোললাইন পেরিয়েছে কি না, পেনাল্টি দেওয়া লাল কার্ড দেখানোর সিদ্ধান্ত সঠিক কি না। এমনকি জটলার মধ্যে কোন ফুটবলার ফাউল করেছে, তাও বুঝে নিতেও রেফারিকে সাহায্য করবে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি।

ইতিমধ্যেই ইউরোপের বেশ কয়েকটি ফুটবল লিগে চালু রয়েছে এই প্রযুক্তি। যার মধ্যে রয়েছে, বুন্দেশলিগা, সেরি আ-র মতো প্রথম সারির ফুটবল লিগও।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.