Advertisement
১৫ জুন ২০২৪
Asian Games

এশিয়ান গেমসের ট্রায়াল নিয়ে বিতর্কের মাঝেই নতুন দাবি প্রতিবাদী কুস্তিগিরদের

এশিয়ান গেমসের ট্রায়াল নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। প্রতিবাদী কুস্তিগিরদের বিশেষ সুযোগ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এর মধ্যেই নতুন দাবি বিনেশ ফোগট, বজরং পুনিয়াদের।

Vinesh Phogat and Bajrang Punia

বিনেশ ফোগট (বাঁ দিকে) ও বজরং পুনিয়া। —ফাইল চিত্র

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
শেষ আপডেট: ২৬ জুন ২০২৩ ১১:২৫
Share: Save:

এশিয়ান গেমসের ট্রায়াল নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। ভারতীয় কুস্তি সংস্থার (আইওএ) অ্যাড-হক কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, বিনেশ, বজরং পুনিয়া, সঙ্গীতা ফোগট, সাক্ষী মালিক, সত্যব্রত কাদিয়ান এবং জিতেন্দ্র কুমারকে ভারতীয় দলে ফেরার জন্য একটি লড়াইয়ের সুযোগ দেওয়া হবে। প্রত্যেকের নিজ নিজ বিভাগে যিনি ট্রায়ালে জিতবেন, তাঁর বিরুদ্ধে লড়তে হবে। এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা হচ্ছে। তার মাঝেই প্রতিবাদী কুস্তিগির বিনেশের দাবি, তাঁরা শুধু ট্রায়ালের সময় পিছোনোর আবেদন করেছিলেন। ট্রায়ালে অংশ নেবেন না, এমন কথা বলেননি।

নিজের দাবির সমর্থনে একটি চিঠি প্রকাশ করেছেন বিনেশ। কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুরকে সেই চিঠি লেখা হয়েছে। সেখানে লেখা, ‘‘প্রতিবাদে অংশ নেওয়ায় নিম্নোক্ত ছ’জন কুস্তিগির প্রস্তুতি নেওয়ার পর্যাপ্ত সময় পায়নি। তাই আপনার কাছে আবেদন এশিয়ান গেমস ও বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের ট্রায়ালের জন্য প্রস্তুতির অতিরিক্ত সময় দেওয়া হোক। আমাদের অনুরোধ, ১০ অগস্টের পরে ট্রায়াল হোক।’’ সেই চিঠিতে সই রয়েছে বজরং, সাক্ষী, বিনেশ, সত্যব্রত, সঙ্গীতা ও জীতেন্দ্রের।

এই চিঠি প্রকাশ করে সমাজমাধ্যমে বিনেশ লিখেছেন, ‘‘আমরা শুধুমাত্র ট্রায়ালের দিন পিছোনোর আবেদন করেছিলাম। কারণ, গত ছ’মাস ধরে আন্দোলন করায় প্রস্তুতির সময় পাইনি আমরা।’’ বিনেশের অভিযোগ, কেউ বা কারা কুস্তিগিরদের মধ্যে বিভাজন তৈরি করার চেষ্টা করছেন। তিনি আরও লিখেছেন, ‘‘এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাই জন্য এই চিঠিটা প্রকাশ করলাম। শত্রুপক্ষ কুস্তিগিরদের মধ্যে ভাঙন ধরানোর চেষ্টা করছে। কিন্তু আমরা তাদের সফল হতে দেব না।’’

প্রতিবাদী কুস্তিদিরদের একটি লড়াইয়ে নামার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করেছেন প্রাক্তন কুস্তিগির তথা বিজেপি নেতা যোগেশ্বর দত্ত। তিনি বলেন, “জানি না অ্যাড-হক প্যানেল কোন নিয়মে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তা-ও আবার নির্দিষ্ট ছ’জন কুস্তিগিরের জন্যে।” যোগেশ্বরের মতে, আরও অনেকে ট্রায়ালের জন্যে যোগ্য ছিলেন। তাঁর কথায়, “রবি দাহিয়া অলিম্পিক্সে পদক জিতেছে। দীপক পুনিয়া কমনওয়েলথে সোনা জিতেছে। আনসু মালিক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে পদক জিতেছে। তা হলে এই ছ’জনকে ছাড় দেওয়া হল কেন? আগে তো জাতীয় কুস্তি সংস্থায় এই জিনিস দেখা যায়নি। এই অবিচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার জন্যে আমি বাকি সব কুস্তিগিরকে আহ্বান করছি। ভারতের কুস্তির ইতিহাসে কখনও এ জিনিস দেখা যায়নি।” যোগেশ্বরকে পাল্টা অভিযুক্ত কুস্তিকর্তা ব্রিজভূষণ শরণ সিংহের ‘চাকর’ বলে উল্লেখ করেছেন বিনেশ।

এশিয়ান গেমসে নাম দেওয়ার জন্য ভারতীয় কুস্তি সংস্থাকে ১৫ জুলাই পর্যন্ত সময় দিয়েছে অলিম্পিক্স কাউন্সিল অফ এশিয়া। কিন্তু প্রতিবাদী কুস্তিগিরদের দাবি মেনে ট্রায়ালের সময় ১০ অগস্ট পর্যন্ত বৃদ্ধি করার আবেদন করেছিল ভারতীয় কুস্তি সংস্থা। সেই আবেদন নিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি অলিম্পিক্স কাউন্সিল অফ এশিয়া। এর মধ্যেই আবার ভারতীয় কুস্তি সংস্থার নির্বাচন স্থগিত করে দিয়েছে গুয়াহাটি হাই কোর্ট। ১১ জুলাই সেই নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। ফলে নতুন করে আবার জটিলতা তৈরি হয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Asian Games Trial Wrestlers Protest
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE