Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

রোনাল্ডো নিয়ে ট্রাম্প রসিকতা, জবাব রেবেলোর

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৯ জুন ২০১৮ ০৫:২৫
মহড়া: তৈরি হচ্ছেন রোনাল্ডো। বৃহস্পতিবার। ছবি: গেটি ইমেজেস

মহড়া: তৈরি হচ্ছেন রোনাল্ডো। বৃহস্পতিবার। ছবি: গেটি ইমেজেস

রাশিয়া বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে হ্যাটট্রিক-সহ তিন ম্যাচে চার গোল করেছেন এক জন। সমসংখ্যক ম্যাচ খেলে আর এক জনের গোল সংখ্যা দুই। বুধবার সোচির ফিশ‌্ট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হচ্ছেন তাঁরা। প্রথম জন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। দ্বিতীয় তারকার নাম লুইস সুয়ারেস। বিশ্বকাপের শেষ ষোলোর ম্যাচের আগে শুধু ফুটবলপ্রেমীরা নন, সি আর সেভেনকে নিয়ে রাষ্ট্রপ্রধানদেরও আগ্রহ তুঙ্গে!

ওয়াশিংটনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন পর্তুগাল প্রেসিডেন্ট রেবেলো দে সৌসা। সেখানে বিশ্বকাপ ফুটবলের প্রসঙ্গ ওঠায় রেবেলো বলেছেন, ‘‘ভুলে যাবেন না, পর্তুগালেই রয়েছে বিশ্বের সেরা ফুটবলার রোনাল্ডো।’’ ট্রাম্প পাল্টা প্রশ্ন করেন পর্তুগাল প্রেসিডেন্টকে, ‘‘রোনাল্ডো কি সত্যিই দুর্দান্ত ফুটবলার? আপনি কি ওঁর খেলায় মুগ্ধ?’’ এর পরেই ট্রাম্পের রসিকতা, ‘‘রোনাল্ডো যদি নির্বাচনে আপনার বিরুদ্ধে লড়াই করেন, তা হলে কিন্তু জিততে পারবেন না।’’ চুপ করে থাকেননি পর্তুগাল প্রেসিডেন্টও। বলে দিয়েছেন, ‘‘পর্তুগাল কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নয়!’’

অথচ সম্পূর্ণ উল্টো সুর পর্তুগাল ডিফেন্ডার ব্রুনো আলভেসের গলায়। তাঁর মতে, বিশ্বকাপের শেষ ষোলোয় লড়াইটা রোনাল্ডো বনাম সুয়ারেসের মধ্যে নয়, পর্তুগালের সঙ্গে উরুগুয়ের। মস্কোর কাছে কার্তোভোর সারতুন ট্রেনিং সেন্টারেই এই মুহূর্তে উরুগুয়ে ম্যাচের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত পর্তুগাল। বৃহস্পতিবার অনুশীলনের পরে ব্রুনো বলেছেন, ‘‘আমার মনে হয় না, রোনাল্ডো বনাম সুয়ারেস দ্বৈরথ এই ম্যাচের প্রধান আকর্ষণ। লড়াইটা দু’টো দলের মধ্যে। আমরা একটা দল হিসেবে খেলতে চাই।’’

Advertisement

চার বছর আগে ব্রাজিল বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব থেকেই ছিটকে গিয়েছিল পর্তুগাল। ২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় অবশ্য শেষ ষোলোয় পৌঁছেছিলেন রোনাল্ডোরা। ব্রুনো বলছেন, ‘‘যে ভাবেই হোক উরুগুয়েকে হারাতে হবে। তার জন্য নিজেদের উজাড় করে দিতে হবে।’’ তাঁর মতে, উরুগুয়ে ম্যাচের জন্য ফুটবলারদের আলাদা ভাবে উজ্জীবিত করার কোনও প্রয়োজন নেই। তিনি বলেছেন, ‘‘বিশ্বকাপের জন্য কাউকে উদ্বুদ্ধ করার দরকার হয় না। আমরা শুরু থেকেই উজ্জীবিত। পর্তুগাল যে বিশ্বকাপ জিততে পারে, রাশিয়ায় তা প্রমাণ করতে চাই।’’

স্পেনের সঙ্গে পয়েন্ট এক হওয়া সত্ত্বেও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি পর্তুগাল। কারণ, গোল পার্থক্যে পিছিয়ে ছিল তারা। আন্দ্রে ইনিয়েস্তারা তিন ম্যাচে গোল করেছিলেন ছ’টি। খেয়েছিলেন পাঁচটি। পর্তুগাল গোল করেছে পাঁচটি। খেয়েছে চারটি। দু’দল পাঁচ পয়েন্ট নিয়ে শেষ করলেও একটি গোল বেশি করায় গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয় স্পেন।

এই কারণেই ব্রুনোর মনে হচ্ছে, উরুগুয়ে ম্যাচের আগে ভুলত্রুটি শুধরে নেওয়া অত্যন্ত জরুরি। তিনি বলেছেন, ‘‘ভাল খেলতে না পারলে জেতা সম্ভব নয়। তাই আমাদের খেলায় আরও উন্নতি করতে হবে। ভুলত্রুটি সব শুধরে নিতে হবে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement