কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের গ্রেফতারির উপর ‘রক্ষাকবচ’বহাল থাকল আগামী ২২ জুলাই পর্যন্ত। মঙ্গলবার কলকাতা হাইকোর্ট রাজীবের গ্রেফতারির উপর অন্তর্বর্তীকালীন স্থগিতাদেশের মেয়াদ বৃদ্ধির নির্দেশ দিয়েছে।

সারদা-কাণ্ডে সিবিআইয়ের সমনকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন। মঙ্গলবার ওই মামলার শুনানিতে আগামী ২২ জুলাই পর্যন্ত তাঁর গ্রেফতারির উপর অন্তর্বর্তীকালীন স্থগিতাদেশ দিল হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ। এই মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ১৫ জুলাই।

গত মে মাসে হাইকোর্টের অবকাশকালীন বেঞ্চ রাজীব কুমারের আইনজীবীকে ওই মামলা নথিভুক্ত করার অনুমতি দেয়। সেই মামলার শুনানিতে গত এক মাস তাঁর গ্রেফতারির উপর স্থগিতাদেশ দেয় আদালত। তবে তাঁকে সিবিআইয়ের মুখোমুখি হতে নির্দেশ দেওয়ার পাশাপাশি কলকাতা ছেড়ে না যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। এমনকি তাঁকে সিবিআইয়ের কাছে পাসপোর্ট জমা রাখতেও বলা হয়েছিল।

ইতিমধ্যেই সারদা-কাণ্ডে সিবিআই তাঁকে সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে এক দফা জেরা করেছে। তবে এর আগে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে শিলংয়ে পাঁচ দিনে প্রায় ৩৯ ঘণ্টা জেরা করা হয়েছিল। তখন অবশ্য সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ গ্রেফতারির উপর স্থগিতাদেশ ছিল।

আরও পড়ুন: কার ছেলে না দেখে দল থেকে তাড়িয়ে দেওয়া উচিত, আকাশ বিজয়বর্গীয় কাণ্ডে বললেন মোদী

আরও পড়ুন: বেকবাগানে বেপরোয়া বাইক হেঁচড়ে নিয়ে গেল পুলিশ কর্মীকে!

এর পর সেই স্থগিতাদেশ উঠে যায়। সুপ্রিম কোর্ট সিবিআইকে তদন্তের স্বার্থে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার অনুমতি দেওয়ার পর রাজীব কুমার একাধিকবার শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন আইনি ‘রক্ষাকবচ’-এর মেয়াদ বাড়ানোর জন্য। কিন্তু দু’বারই তাঁর আবেদন খারিজ করে দিয়েছে শীর্ষ আদালত। তবে নিম্ন আদালতে তাঁর আবেদনের রাস্তা খোলা ছিল। সেই মতো কলকাতা হাইকোর্টে সিবিআইয়ের সমনের বিরুদ্ধে আবেদন করেছিলেন রাজীব