• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কাল শিলংয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু রাজীব কুমারকে

Rajeev Kumar
কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার। —ফাইল চিত্র

Advertisement

আগামিকাল, শনিবার থেকে শিলংয়ে কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে। কত দিন ধরে তা চলবে, তা নিয়ে মুখ খোলেননি সিবিআই কর্তারা। কলকাতার একটি দল ছাড়া দিল্লি থেকেও একটি দল এসে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন বলে সিবিআই জানিয়েছে। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সূত্রের খবর, প্রতিটি দলে একজন সুপার, তিন অতিরিক্ত সুপার, ২ জন ডেপুটি সুপার ও ৪ জন ইন্সপেক্টর পদের অফিসার থাকবেন। দু’টি দলই জিজ্ঞাসাবাদের পরে আলাদা করে শীর্ষ কর্তাদের রিপোর্ট দেবেন।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ কুণাল ঘোষকেও আগামী রবিবার শিলংয়েডাকা হয়েছে। তদন্তকারীদের দাবি, রাজ্য পুলিশের অফিসারদের বিরুদ্ধে নথিপত্র নষ্ট করার অভিযোগ করেছিলেন কুণাল। সিবিআই জানিয়েছে, কুণালকে সিপি-র সামনে বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে। সারদার নথিপত্র সম্পর্কে আর যাঁরা ওয়াকিবহাল, তাঁদের কাউকে কাউকেও শিলংয়ে ডাকা হতে পারে বলে সিবিআই সূত্রের খবর।

বৃহস্পতিবারেই সিবিআইয়ের একটি ‘নির্দেশিকা’ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, দিল্লি, লখনউ এবং ভোপালের মোট ১০ জন অফিসারকে আজ, শুক্রবার কলকাতায় অস্থায়ীভাবে যোগ দিতে বলা হয়েছে। কলকাতায় সিবিআইয়ের যে ইউনিট অর্থলগ্নি সংস্থার তদন্ত করছে, আপাতভাবে ওই ১০ অফিসারকে ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সেই ইউনিটের হয়ে কাজ করতে হবে বলে ওই নির্দেশে বলা হয়েছে। সিবিআইয়ের একটি সূত্র জানাচ্ছে, জগরূপ এস গুসিনহা নামে সিবিআইয়ের এক এসপি-র অধীনে ওই দলটি শিলংয়ে গিয়ে রাজীব কুমারকে জেরা করতে পারেন। আবার, অন্য একটি সূত্রের খবর, রাজীব কুমারকে দিল্লির যে দলটি জিজ্ঞাসাবাদ করবে, সেটি দিল্লি থেকে সরাসরি গুয়াহাটি পৌঁছবে। 

আরও পডু়ন: আইপিএস নিয়ে সংঘাত আরও বাড়ল, পদকেও কি কোপ?

কলকাতায় কাজের চাপ বাড়ায় বছর চারেক আগে রাজ্য পুলিশের কিছু অফিসারকে চেয়ে নিয়েছিল সিবিআই। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে তাঁদের চার জনকে রাজ্যের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিবিআই। আরও পাঁচজনকে গাজিয়াবাদে প্রশিক্ষণের জন্য পাঠানো হয়েছে। এখন কলকাতায় অফিসারদের ঘাটতি দেখা দেওয়ায় আপাতত জগরূপের নেতৃত্বে ওই দলটিকে ডেকে আনা হয়েছে বলে দাবি সিবিআইয়ের এক কর্তার।

২০১৪ সালে সারদা মামলার দায়িত্বভার নিয়েছিল সিবিআই। তারপর ওই মামলার বহু অফিসার বদলি হয়েছেন। কয়েকজন অবসর নিয়েছেন। এক কর্তার কথায়, সিপিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রয়োজনে বদলি হয়ে যাওয়া অফিসারদের সাহায্যও নেওয়া হতে পারে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন