প্রাণ নিল তৃতীয় দফা, বিক্ষিপ্ত হিংসা পাঁচ কেন্দ্রেই, বাহিনী আরও বাড়াচ্ছে কমিশন
রতুয়ার বাহারালে বুথে বহিরাগত। একজনের ভোট অন্যজন দেওয়ার অভিযোগ। অভিযোগে সরানো হল প্রিসাইডিং অফিসারকে।
Congress

হাঁসুয়ার কোপের পর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে কংগ্রেস কর্মী টিয়ারুল শেখকে। তখনও মারা যাননি।

বাংলায় তৃতীয় দফার ভোট শান্তিপূর্ণই হয়েছে, দিনের শেষে স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক আরিজ আফতাব। সেই সঙ্গে জানিয়ে দিলেন, চতুর্থ দফার ভোটে ৯৮ শতাংশ বুথেই কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে। মঙ্গলবার আরিজ আফতাব সাংবাদিক বৈঠক করে বলেন, ভোটে কিছু বিক্ষিপ্ত কিছু ঘটনা ঘটলেও, মোটামুটি শান্তিপূর্ণ ভাবেই সবকিছু মিটে গিয়েছে। তাঁর এই বক্তব্যের কয়েক ঘণ্টা আগেই রাজ্যের বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় ভি নায়কও একই কথা বলেন। 

এ দিন সাংবাদিক বৈঠকে হাজির ছিলেন রাজ্য পুলিশের এডিজি (আইনশৃঙ্খলা) সিদ্ধনাথ গুপ্ত। তিনি বলেন, ভগবানগোলার ঘটনাটি ঘটেছে বুথ কেন্দ্র থেকে ৩০০ মিটার দূরে। এই ঘটনায় নিহতের ভাইপো লালু শেখ-সহ তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তৃতীয় দফার ভোটে মোট ন’জন আহত হয়েছেন। গ্রেফতার হয়েছেন ২৩০ জন। ডোমকল, ভগবানগোলা-সহ মোট চারটি এফআইআর দায়ের হয়েছে। 

দিনের শেষে এ দিন রাজ্যে ৭৮.৯৯ শতাংশ ভোট পড়েছে।বালুরঘাটে ভোট পড়েছে ৮১.২৯ শতাংশ। ৭৮.৫৮ শতাংশ ভোট পড়ে জঙ্গিপুরে। মুর্শিদাবাদ, মালদহ উত্তর ও মালদহ দক্ষিণে যথাক্রমে ভোট পড়ে ৮১.৪১, ৭৬.৪৩ এবং ৭৭.৪১ শতাংশ করে।

ভগবানগোলায় তৃণমূল এবং কংগ্রেসের মধ্যে সংঘর্ষে মৃত্যু হল এক কংগ্রেস কর্মীর। হাঁসুয়ার কোপে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। জখম হয়েছেন আরও দুই কংগ্রেস কর্মী। মৃত ওই কংগ্রেস কর্মীর নাম আব্দুল কালাম টিয়ারুল শেখ। নসিপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন ওই দুই আহত কংগ্রেস কর্মী। আহতেরা হলেন মেহবুব শেখ এবং তাহিজুল শেখ। তাঁদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। পুরো ঘটনার রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

ভোট সন্ত্রাস ছড়াতে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই এই হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ কংগ্রেসের। তৃণমূলের দাবি, এই ঘটনা কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফল।

মুর্শিদাবাদের ভগবানগোলায় বালিগ্রাম প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বুথের (১৮৮ নম্বর) সামনে কংগ্রেস এবং তৃণমূল সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ। দু’জনকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এলাকায় উত্তেজনা রয়েছে।

বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত তপন বিধানসভা এলাকায় বজরা পুকুর স্কুলের ১৪৮ নম্বর বুথ দখলের অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছন বিজেপি সমর্থক মন্টু রায়। তার উপর ১৫ থেকে ২০ জন দুষ্কৃতী চড়াও হয় বলে অভিযোগ। আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে ভয় দেখানো হয়, বন্দুকের বাট দিয়ে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে

বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের তপন বিধানসভা এলাকায় আহত বিজেপি সমর্থক মন্টু রায়।

বুনিয়াদপুরে রিজার্ভে থাকা ভোট কর্মীর অস্বাভাবিক মৃত্যু। বুনিয়াদপুর শ্যামাপল্লীর বাসিন্দা বাবুলাল মূর্মূ প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক ছিলেন। গতকাল রাতে ডিসিআরসি অফিস থেকে ফেরেন তিনি। সকালে বাড়িতেই গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় তাঁর দেহ মেলে।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর, বেলা ১টা পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে ভোট পড়েছে ৫২.৩৭ শতাংশ। তার মধ্যে বালুরঘাটে ভোট পড়েছে ৫৬.১৬ শতাংশ, মালদহ উত্তরে ৪৯.৭৭ শতাংশ, মালদহ দক্ষিণে ৫০.৪৪ শতাংশ, জঙ্গিপুর ৫২.৮২ শতাংশ এবং মুর্শিদাবাদে ৫০.৩২ শতাংশ। 

নদিয়ায় তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্য তারক মৈত্রের বাড়ির সামনে এক ব্যাগ দেশি বোমা উদ্ধার করল শান্তিপুর থানার পুলিশ। মুর্শিদাবাদের সুতিতে পুলিশের তাড়ায় গরম জল পড়ে আহত দুই শিশু। বুথের বাইরে জটলা দেখে তাড়া করেছিল পুলিশ। তখনই এই ঘটনা। বালুরঘাটের গঙ্গারামপুরে মহিলা ভোটারদের মারধর করার অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে। নয়াবাজার গোপালপুর এলাকার ঘটনা।

বুথে ঢোকার আগে উত্তর মালদহের তৃণমূল প্রার্থী মৌসম নুর

মালদহ উত্তর কেন্দ্রে তৃণমূল এজেন্টের গাড়িতে ঘুরতে দেখা যায় মহম্মদ ইয়াসিন নামে দুষ্কৃতীকে। মহম্মদ ইয়াসিন বাহারাল, রাতুয়া, কাহালার বুথ দখলের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ কংগ্রেসের।

ইটাহার এবং ইংরেজবাজারে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ। ইটাহারে অভিযোগ করেন তৃণমূল জেলা সভাপতি অমল আচার্য। মহকুমা শাসকের কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি। খতিয়ে দেখার আশ্বাস প্রশাসনের। মুর্শিদাবাদের হুরশি এবং লোচনপুরে তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিরোধীদের সংঘর্ষ, আহত ৩। 

গোপালগঞ্জ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আহতদের চিকিৎসা চলছে।

ডোমকলের টিকটিকিপাড়ার ২২ নম্বর বুথের সামনে ব্যাপক বোমাবাজি হয়েছে বলে খবর। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে পুলিশের বিশাল বাহিনী। মালদহ উত্তর, চাঁচলেও ব্যাপক বোমাবাজি করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলল সিপিএম।

দক্ষিণ দিনাজপুরের কুশমন্ডিতে মধ্যেই বচসা সিপিএম এবং তৃণমূল এজেন্টের। বিজেপি সমর্থকদের ভোটদানে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের পোলিং এজেন্টের বিরুদ্ধে। এক বিজেপি সমর্থক জখম হয়েছেন বলে জানিয়েছেন বিজেপির পোলিং এজেন্ট।

কুমারগঞ্জে পুলিশকে ধমক দিলেন তৃণমূলের প্রাক্তন বিধায়ক মাহমুদা বেগমের। ‘এই বুথ আমার, পুলিশ কেন এসেছে?’ ধমক দেন তিনি।

ভোটারকে কে বুথে নিয়ে যাবে তা নিয়েই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের অভিযোগ তৃণমূলে। সংঘর্ষে জখম এক মহিলা-সহ ৩ জন। কালিয়াচক ৩ নম্বর ব্লকে। আহতদের গোপালগঞ্জ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করানো হয়েছে।

ভোট দেওয়ার জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে ভোটাররা।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর, সকাল ৯টা পর্যন্ত বালুরঘাটে ভোট পড়েছে ১৭.২৮ %, মালদহ উত্তরে ১৬.১১, মালদহ দক্ষিণে ১৬.২২, জঙ্গিপুরে ১৪.৯৯ এবং মুর্শিদাবাদে ১৪.৬২%। মুর্শিদাবাদের ডোমকলে বিজেপি সমর্থক শাশুড়ি-বৌমাকে বেধড়ক মার। হাসপাতালে ভর্তি জখমরা।

মুর্শিদাবাদের কুমরিপুরে গুলি চালানোর অভিযোগ। কংগ্রেসের পোলিং এজেন্টকে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়েছে। তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ কংগ্রেসের। অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল।

মালদহ উত্তরের ১৭৯ নম্বর বুথ তৃণমূলআশ্রিত দুষ্কৃতীরা দখল করে রেখেছে বলে অভিযোগ। ৭৪ নম্বর থেকে ৭৯, ৮১ থেকে ৮৯ এবং ৯২ ও ৯৩ নম্বরও বুথও তৃণমূলের দখলে, অভিযোগ সিপিএমের।

 

 

খড়গ্রামের ৫৮ নম্বর বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী নেই। বুথের দরজার সামনেই ইভিএম রাখা। রাস্তা থেকেই ভোটারদের ভোট দিতে দেখা যাচ্ছে।

ভগবানগোলার অনুপনগরে সিপিএমের পোলিং এজেন্টকে বুথে ঢুকতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ওই পোলিং এজেন্ট জানিয়েছেন, বুথ থেকে মাত্র ৩০ মিটার দূরে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকা সত্ত্বেও তাঁর উপর হামলা করেন তৃণমূলের কর্মীরা। অভিযোগ, নিয়োগপত্র কেড়ে নিয়ে মারধর করা হয় তাঁকে। বালুরঘাটের ৬৬ নম্বর বুথের বাইরে ঝালমুড়ি বিলি তৃণমূল কর্মীদের। বালুরঘাটেও ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ তুলল বিজেপি।

আরও পড়ুন: জঙ্গিদের অস্ত্র আইইডি, গণতন্ত্রের শক্তি ভোটার আইডি, বললেন মোদী

ভোটারদের ভোট দিতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে মুর্শিদাবাদের ডোমকলে। অভিযোগ, তৃণমূল কাউন্সিলের স্বামী সেটাই আটকাতে গিয়েছিলেন। তখনই তাঁর উপর লাঠি, বাঁশ দিয়ে হামলা করা হয় বলে অভিযোগ। তাঁর মাথায় আঘাত লাগে। সঙ্গে থাকা এক সহকর্মীও হামলায় জখম হন। তাঁদের দু’জনকেই ডোমকল মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে বহরমপুর মেডিক্যাল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। নির্বাচন কমিশন এই ঘটনায় রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে।

হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে এক আহতকে।

রতুয়ার বাহারালে বুথে বহিরাগত। একজনের ভোট অন্যজন দেওয়ার অভিযোগ। অভিযোগে সরানো হল প্রিসাইডিং অফিসারকে। ইভিএম বিভ্রাট, মালদহ উত্তরে ১১ নম্বর বুথে এখনও শুরু হয়নি ভোটগ্রহণ। কংগ্রেস এবং সিপিএমের কর্মীরা ওই ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে অভিযোগ তৃণমূলের। অভিযোগ অস্বীকার করেছে সিপিএম এবং কংগ্রেস। জঙ্গিপুরের সুতিতে ভোটারদের বুথে যেতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ।

মালদহের কালিয়াচকে কংগ্রেসের নির্বাচনী কার্যালয়ে বোমাবাজি। জখম ৩ কংগ্রেস কর্মী। ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশ বাহিনী। এ দিকে, মালদহের বামনগোলায় ৩১ নম্বর বুথে আধাসেনার দাবিতে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন বাসিন্দারা। প্রতিবাদে সমস্ত ভোটকর্মীদের বুথে আটকে তালা দিলেন গ্রামবাসী।

আরও পড়ুন: আজ ইভিএম-বন্দি অমিত-রাহুলের ভাগ্য, ভোটগ্রহণ ১১৭ আসনে

গঙ্গারামপুরে ৩৮ এবং ৬৩ নম্বর বুথে পোলিং এজেন্টকে বুথে ঢুকতে বাধা। ভোটারদেরও বাড়িতে আটকে রাখার অভিযোগ।

লোকসভা নির্বাচনের তৃতীয় দফায় আজ, মঙ্গলবার বাংলায় ভোট পাঁচ আসনে। ওই পাঁচের মধ্যে মালদহ উত্তর ও দক্ষিণ এবং জঙ্গিপুর রয়েছে কংগ্রেসের হাতেই। মুর্শিদাবাদ কেন্দ্রে গত বার জয়ী হয়েছিল সিপিএম। এই পর্বে একমাত্র দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাটই রয়েছে তৃণমূলের দখলে। রাজ্যে ‘৪২-এ ৪২’-এর লক্ষ্যপূরণ করতে তাই এই পর্বে বিশেষ নজর শাসক দলের। পাঁচ কেন্দ্রের ৯২% বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে বলে নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানানো হয়েছে।

বাংলার পাঁচটি ধরে দেশের ১১৭টি কেন্দ্রে আজ ভোট। এই দফায় উল্লেখযোগ্য প্রার্থীদের মধ্যে আছেন গুজরাতের গাঁধীনগরে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ এবং কেরলের ওয়েনাডে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী। ভোটার তালিকাতেও থাকছেন একাধিক ‘হেভিওয়েট’ রাজনীতিক। গুজরাতের গাঁধীনগর কেন্দ্রে আজ সাতসকালে ভোট দেওয়ার কথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। বিজেপির প্রবীণ নেতা লালকৃষ্ণ আডবাণী, শাহ নিজে এবং অরুণ জেটলিরও গুজরাতেই ভোট দিতে যাওয়ার কথা।

প্রথম দুই পর্বে বাংলার ভোটে কিছু ক্ষেত্রে অশান্তি ও ভোটদানে বাধা দেওয়া, পর্যাপ্ত কেন্দ্রীয় বাহিনীর অভাব নিয়ে সরব হয়েছেন বিরোধীরা। শাসক তৃণমূল আবার বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে কমিশনকে প্রভাবিত করার। সোমবারেও অবশ্য বাহিনী না-পৌঁছনোর অভিযোগে বুনিয়াদপুরের মতো কিছু জায়গায় বিরোধীরা বিক্ষোভ দেখান। কোথাও আবার ভোটকর্মীরা নিরাপত্তার দাবি তুলেছেন। ভোটের আগের দিনই থানা স্তরে সাত পুলিশ আধিকারিককে বদলি করেছে কমিশন। রাজনৈতিক চাপান-উতোরও শুরু হয়েছে তা নিয়ে।

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

এই পর্বের ভোটে মালদহ দক্ষিণে কংগ্রেসের আবু হাসেম (ডালু) খান চৌধুরী, জঙ্গিপুরে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়ের পরীক্ষা। আবার মালদহ উত্তরে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলের প্রার্থী মৌসম নূর, সেখানেই সিপিএম ছেড়ে বিজেপির হয়ে দাঁড়িয়েছেন খগেন মুর্মু। কংগ্রেস যেমন তাদের গড় রক্ষায় মরিয়া, তেমনই কংগ্রেসের পুরনো জমিতে ঘাসফুল ফোটাতে তৎপর তৃণমূল। মালদহ ও মুর্শিদাবাদের প্রতি কেন্দ্রেই তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কংগ্রেস এবং বাম সমর্থকদের কাছে আবেদন করেছেন কেন্দ্রে মোদীকে পরাস্ত করতে তৃণমূলকেই ভোট দিতে। আবার কংগ্রেসের হয়ে আরএসএস কাজ করছে বলে যে-অভিযোগ মমতা করেছেন, তাকে মোদীর ‘হিন্দু ভোট মেরুকরণে’র উল্টো দিকে তৃণমূলের ‘মুসলিম ভোট টানার খেলা’ বলে অভিহিত করেছে কংগ্রেস।

কংগ্রেসের প্রদীপ ভট্টাচার্য কমিশনের কাছে অভিযোগ করেছেন, মালদহে তৃণমূলের চাপে মহম্মদ ইয়াসিন আলি নামে এক দুষ্কৃতীকে পুলিশ জেল থেকে ছেড়ে দিয়েছে। ইয়াসিন-সহ কয়েক জন দুষ্কৃতীর নাম দিয়ে সিপিএম নেতা নীলোৎপল বসু অভিযোগ জানিয়েছেন, তারা রতুয়া, মালতীপুরের কিছু জায়গায় ভোটারদের পরিচয়পত্র কেড়ে নিচ্ছে।

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

—নিজস্ব চিত্র।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত