• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিজেপিকে ‘সাফ’ করে একুশে আমরাই ফিরব, আত্মবিশ্বাসী ঘোষণা মমতার

Mamata Banerjee
মা-মাটি-মানুষের সরকারই থাকবে, দাবি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

বিজেপিকে ‘সাফ’ করে ২০২১-এ তৃণমূলই ফের এ রাজ্যে ক্ষমতায় আসবে বলে আত্মবিশ্বাসী ঘোষণা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

লোকসভা ভোটে বিজেপি ১৮টি আসন জেতার পর থেকেই আগামী বিধানসভা ভোটে গেরুয়া ঝড় বইতে পারে বলে চর্চা শুরু হয়েছে। সেই গুঞ্জন প্রসঙ্গেই মঙ্গলবার মমতা নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে এক অনুষ্ঠানে বিজেপি-কে বিঁধে বলেন, ‘‘কেউ কেউ মনে করছে ২০২১-এ আমাদের সরকার হবে সাফ। তাদের বলি, মানুষ মনে করে তোমাদের কথা বলাটাই পাপ। তৈরি থাকো, তোমরাই হবে সাফ। মা-মাটি-মানুষের সরকারই থাকবে। এই সরকারই কাজ করবে।’’

মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণায় বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের প্রতিক্রিয়া, ‘‘লোকসভা ভোটের আগেও একই আস্ফালন শোনা গিয়েছিল মুখ্যমন্ত্রীর গলায়। মানুষ বুঝিয়ে দিয়েছে, কারা পাশ, কারা ফেল। ২০২১-এও মানুষ বুঝিয়ে দেবে, কারা থাকবে, কারা যাবে।’’

আরও পড়ুন: কত ব্যবধানে জয়, হিসেবে ব্যস্ত মুকুলেরা

আরও পড়ুন: ‘বেঁচে থাকতে কাশ্মীরমুখো হব না আর’, বলছেন ঘরে ফেরা শ্রমিকরা

বিধানসভা ভোটের এখনও বছর দেড়েক বাকি। তার মধ্যে রাজ্যে যাতে পদ্ম ফুটতে না পারে, সে জন্য সাংগঠনিক শক্তিবৃদ্ধির পাশাপাশি জনসংযোগে বাড়তি গুরুত্ব দিচ্ছে ঘাসফুল। একই সঙ্গে কর্মী, সমর্থকদের মানসিক জোর বাড়াতে তৃণমূল নেত্রী সচেতন ভাবেই আত্মবিশ্বাসী বার্তা দিলেন বলে অনেকের ধারণা। সে কারণেই বিজেপি বিভেদ তৈরির যে চেষ্টা করছে, তা থেকে ‘সুরক্ষা’র প্রতিশ্রুতি দিয়ে মমতার আশ্বাস, ‘‘মাথা উঁচু করে, গর্বের সঙ্গে আমাদের সরকার কাজ করবে বিভেদ করে নয়, দাঙ্গা করে নয়, দেশের ইতিহাস বদলে দিয়ে নয়, ব্যাঙ্ক বন্ধ করে নয়।’’  

মমতার সতর্কবার্তা, ‘‘দেশে সঙ্কট ঘনীভূত। দেশে গোপনীয়তা বলে কিছু নেই। টাকার সুরক্ষা নেই। নিজেরা নিজেদেরটা সামলে রাখবেন।’’ 

গেরুয়া-বাহিনী নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে পরে আর তা পূরণ করে না বলে প্রায়শই অভিযোগ করেন মমতা। এ দিনও সেই সুরেই বলেন, ‘‘কেউ কেউ ভোটের আগে অনেক কিছু দেওয়ার কথা জানায়। পরে আর তা হয় না। আমি কিন্তু তা করি না। যেটুকু পারি, সেটুকুই বলি। সেটুকু করার জন্য জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত চেষ্টা করি।’’

মমতা ফের ক্ষমতায় ফেরার দাবি করলেও বাম নেতা সুজন চক্রবর্তীর মন্তব্য, ‘‘শুধু ২০২১ কেন! মুখ্যমন্ত্রী ২০৩১ বা ২০৫১ সালে ক্ষমতায় থাকার কথাও ভাবতে পারেন। কিন্তু নীতিহীন তৃণমূলের ভিত নড়বড়ে হয়ে গিয়েছে।’’ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্রেরও একই সুর, ‘‘গাছে কাঁঠাল, গোঁফে তেল! কিন্তু পরিবর্তন ঘটানোর জন্য বাংলার মানুষ তৈরি হচ্ছেন। তাঁরা বিকল্প হিসেবে জোটকে বেছে নেবেন।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন