পরীক্ষার চাপ কমাতে পরামর্শ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে রাজ্যের কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া, শিক্ষক, অভিভাবকদের উৎসাহ দেওয়ার জন্য উপাচার্যদের চিঠি পাঠিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন বা ইউজিসি। তবে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, এমন কোনও নির্দেশ এ রাজ্যে মানা হবে না। 

২৯ জানুয়ারি দিল্লির তালকাটোরা স্টেডিয়ামে প্রধানমন্ত্রী পড়ুয়া, শিক্ষক, অভিভাবকদের পরীক্ষা সংক্রান্ত চাপ কমানোর পরামর্শ দেবেন। ‘পরীক্ষা পে চর্চা ২.০’ শীর্ষক ওই অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য দু’টি প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতিযোগিতায় সফল প্রতিদ্বন্দ্বীরা তালকাটোরা স্টেডিয়ামে মোদীর সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পাবেন। ইউজিসি-র চিঠিতে ওই দুই প্রতিযোগিতায় যোগ দেওয়ার জন্য কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া, তাঁদের অভিভাবক এবং শিক্ষকদের উৎসাহিত করতে বলা হয়েছে উপাচার্যদের। ইউজিসি-র সচিব রজনীশ জৈনের চিঠিতে কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে ওই অনুষ্ঠান সরাসরি দেখানোর নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী পার্থবাবু বৃহস্পতিবার বলেন, ‘‘মোদীর ইচ্ছা পূর্ণ করার জন্য ছাত্রছাত্রীদের ব্যবহার করতে দিতে পারব না। ওরা ভুলে যাচ্ছে যে, শিক্ষা ষুগ্ম তালিকাভুক্ত। স্বশাসিত সংস্থাগুলিকে এমন নির্দেশ দেওয়া যায় না।’’ তিনি জানিয়ে দেন, অন্যের কথা শোনার প্রয়োজন নেই তাঁদের। এর আগেও ইউজিসি-র বেশ কিছু নির্দেশ মানা হয়নি। প্রবল আপত্তি জানিয়েছিল রাজ্য সরকার।