কী খাবেন না: পৃথিবীর অর্ধেক লোক খেতে পায় না, তাই স্বাস্থ্যচর্চার মূল ফোকাস হল ওবেসিটিতে। স্বাস্থ্যবান হতে হলে চেহারায় হাড়গিলে হোন, ডায়েটে কমান ক্যালরি। কুসুম ফেলে ডিম খান, স্নেহ ঝেড়ে ট্যালটেলে দুধ। পাঁঠায় কোলেস্টেরল আছে, মাখনে ফ্যাট। কফিতে ক্যাফিন, ভাতে কার্ব। চিনি খাবেন না, বিষ। নুনও খাবেন না, হার্ট অ্যাটাকের রাজদূত। ধোঁয়া খেলে গাড়ির ধোঁয়া খান, সিগারেট একেবারে নো-নো। মিলিমিটার মেপে মদ খান, ওজন মেপে খাবার। স্বেচ্ছায় প্রব্রজ্যা নিন, ফ্যাটহীন, শর্করামুক্ত, ম্লেচ্ছ মাংস বিবর্জিত নিয়ন্ত্রিত জীবন যাপন করুন, সাব-সাহারান শিশুর মতো কাঙ্ক্ষিত ফিগার একেবারে আপনার হাতের মুঠোয়।

কী খাবেন: তা বলে উপবাসে থাকবেন না। মজ্‌ঝিম পন্থা বা ব্যালেন্সড ডায়েট অনুসরণ করুন। মনে রাখবেন, ক্যালরিই আসল শত্রু, তা বাদে বিষ খেলেও তেমন সমস্যা নেই। ফরমালিন দেওয়া মাছ খান, ইউরিয়া দেওয়া মুড়ি, কীটনাশক দেওয়া ঝাঁঝালো তেল। সিসে মেশানো ফাস্ট ফুড খান, আর্সেনিক মেশানো জল। সবজিতে তুঁতে খান, মিষ্টিতে কেমিকাল। বিদেশে রপ্তানি নিষিদ্ধ হওয়া সব খাবার খান, ও-সব ভুলভাল ফার্স্ট ওয়ার্ল্ড স্ট্যান্ডার্ড। ওদের শরীর ফুলটুসি, আর আমাদের শরীরের নাম মহাশয়। বাই চান্স না সইলে মুঠো মুঠো অ্যান্টিবায়োটিক খেতে ভুলবেন না।

যোগাভ্যাস: খাদ্যে শরীর তৈরি হয়, কিন্তু তাকে রক্ষা করার দায়িত্ব সম্পূর্ণ আপনার। কেনিয়ার লোকেরা সিংহের তাড়া থেকে বাঁচতে দৌড়নো প্র্যাকটিস করে দৌড়বাজ হয়। এখানে সিংহ চিড়িয়াখানায় থাকে, সুন্দরবনেও দৌড়নো অসম্ভব। তা বলে উপায় কিন্তু কম নেই। পুলিশ অস্তিত্বহীন, সেই সুযোগ নিন। জান বাঁচাতে মনোযোগ সহ যুযুৎসু শিখুন, ধর্ষণের দুর্যোগে সঙ্গে রাখুন লংকাগুঁড়ো। মস্তানের থেকে দৌড়ে পালানো অভ্যাস করুন, যাকে ইংরিজিতে বলে যোগিং। বর্ষায় কলকাতা ভেনিস হলেই ফ্রি-স্টাইল সাঁতরান, এর নাম জলযোগ। ফল ফলবেই, কারণ যোগই রাজধর্ম, যে জন্য অন্যত্র যুবরাজের বাবাকে রাজা বললেও, ভারতবর্ষে তাঁর নাম যোগরাজ।

জনস্বাস্থ্য: ডায়েট, শরীরচর্চা গুরুত্বপূর্ণ, কিন্তু মনে রাখবেন, আসল জিনিস হল পরিবেশ। নিজের পরিবেশ অবশ্যই নিজে রক্ষা করুন। আবর্জনা বাইরে ফেলুন, বাড়ি রাখুন ঝকঝকে। বাইরে জল জমুক, খাবার জলে জীবাণু থিকথিকাক, ধোঁয়ায় সূর্য ঢাকুক, নো প্রবলেম। বাড়িতে মশার ধূপ লাগান, ইউভি ফিল্টার কিনুন, মুখোশ পরে রাস্তায় হাঁটুন। এ ভাবে জনে জনে নিজেকে বাঁচানোর নামই জনস্বাস্থ্য। এটি স্বাস্থ্যচর্চার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ, প্রগতির সূচক। বাকি সব গোল্লায় গেলেও, জনস্বাস্থ্য অবশ্যই পালন করুন, কারণ বিজ্ঞানীরা বলেন, যাঁরা পৃথিবীতে সঠিক ভাবে জনস্বাস্থ্য পালন করবেন, তাঁরাই ফিট হবেন, বাকি সবাই বিলুপ্ত। এ জন্য জনস্বাস্থ্যের অন্য নাম সার্ভাইভ্যাল অব দ্য ফিটেস্ট।

 

bsaikat@gmail.com