Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

ছুটি এক্সপ্রেস

সেই জলোচ্ছ্বাস যেন এখনও ছুঁয়ে রয়েছি

অভীককুমার ভট্টাচার্য
কান্দি ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০১:১১

প্রত্যাশিত ভাবে শীতটাই বেছে নেওয়া হয়েছিল। সুদূর আন্দামান। শীত হলেও শুনেছি, মাঝে মাঝেই বৃষ্টি হয় সেখানে। সে নিয়ে সকলের চিন্তা ছিল। ঠাসা জামা কাপড়ের সঙ্গে ছাতাও বাদ গেল না। দমদম থেকে প্লেনে উঠে পোর্টব্লেয়ারে নেমে দেখা গেল উল্টো। শীত তেমন নেই বরং আধাগরম। বেশ ভালই লাগছিল। আসা-যাওয়া সাত দিনের প্রোগ্রাম। সাত দিন হলে কী হবে, য়াতায়াতেই তো দু’দিন যাবে। হোটেল বুক ছিল। দক্ষিণ পোর্ট ব্লেয়ারের একটি হোটেল। খাওয়াদাওয়া সেরে রওনা হলাম। যে দিকেই তাকাই শুধু জল আর জল। চড়াই-উতরাই পাহাড়ি রাস্তা, তবে অত্যন্ত পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন। সুদূর আন্দামান যেন কাছের বলেই মনে হচ্ছে।

সন্ধ্যায় লাইট অ্যান্ড শো। সেলুলার জেল। অসংখ্য ভিড়ের মধ্যে খোলা আকাশের নীচে সুবিন্যস্ত চেয়ারে বসে বিভিন্ন আলোর ছটা সেই সঙ্গে সেলুলার জেলের ইতিহাস, কয়েদিদের যন্ত্রণার কথা শুনে মন অস্থির হয়ে ওঠে।

সেই যন্ত্রণা মনে রেখে পরের দিন গেলাম নীল আইল্যান্ড। নীল জলের সমাহার নীল আইল্যান্ড। নীল আকাশের নীচে নীল জলের মধ্যে সোনালি রোদের ছটা কী সুন্দর, ভাবা যায় না। এর পর— সীতাপুর বিচ, ভরতপুর বিচ। সীতাপুরে দেখার কিছু না থাকলেও সমুদ্রের ধারে পড়ে রয়েছে সুন্দর রংবেরঙের শাঁখ, ঝিনুক ইত্যাদি। সমুদ্রের ধারে ঘুরতে ঘুরতে সুন্দরের সন্ধানের মধ্যে কখন যে ছোট্ট শিশু হয়ে গেছি বুঝতে পারিনি।

Advertisement

এ যে হাওড়া ব্রিজ! গাইডের কথা শুনে চমকে গেলাম। দেখতে ঠিক সে রকম। শোনা গেল সুনামির সময় অনেক পাহাড় ভেঙে গেছে। বিরাট পাহাড়ের মাঝে তৈরি হয়েছে সুড়ঙ্গ। দেখে ঠিক ব্রিজের মতো মনে হচ্ছে। চারদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছুঁচোলো পাথরের টুকরো। কষ্ট হচ্ছিল চলতে। মাঝে তো আমার পা কেটে গেল। তবুও চলা বন্ধ হয়নি। পাহাড়ের ধারে দেখলাম শামুক, নানা রঙের পোকা। পরের দিন রাধানগর সি বিচ। স্নান সারা হল। ঢেউ, জল, জাহাজ, জলোচ্ছ্বাস—আমার হৃদয় জুড়ে এখনও খেলা করছে অমর আন্দামান।

আরও পড়ুন

Advertisement