Advertisement
১৫ জুলাই ২০২৪
Crocodiles of Sundarbans

কুমির বেড়েছে সুন্দরবনে, জানাচ্ছে রিপোর্ট

ভারতীয় ভূখণ্ডের সুন্দরবনে কতগুলি কুমির রয়েছে, সেই সংখ্যা নির্ধারণে উদ্যোগী হয়েছিল সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্প। ২০১২ সালের পরে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে সেই গণনা শুরু হয়।

এ ভাবেই নদী-খাঁড়িতে ঘুরে কুমির গণনা করেছেন বনকর্মী, কুমির বিশেষজ্ঞেরা।

এ ভাবেই নদী-খাঁড়িতে ঘুরে কুমির গণনা করেছেন বনকর্মী, কুমির বিশেষজ্ঞেরা। নিজস্ব চিত্র।

প্রসেনজিৎ সাহা
সুন্দরবন শেষ আপডেট: ২৩ মার্চ ২০২৪ ০৭:৫০
Share: Save:

ডাঙায় বাঘের মতো জলে কুমিরও বেড়েছে সুন্দরবনে!

বারো বছর পরে, চলতি বছরে ফের সুন্দরবনে কুমির গণনার কাজ করেছে বন দফতর। তাতেই উঠে এসেছে এই তথ্য। সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের ফিল্ড ডিরেক্টর রাজেন্দ্র জাখের বলেন, “শুধু কত কুমির আছে তা নয়, সুন্দরবনের কুমিরের চরিত্র, বাসস্থান, খাদ্য তালিকা সহ আরও অনেকগুলি বিষয়ে তথ্য বিশ্লেষণের কাজ চলছে। তা শেষ হলে গণনার বিস্তারিত রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে।” বন দফতর সূত্রের খবর, গত কুমির সুমারিতে ভারতীয় সুন্দরবনে ১৪১টি কুমিরের উপস্থিতি জানা গিয়েছিল। তবে একেবারে ছোট কুমিরদের গণনা থেকে বাদ রাখা হয়েছিল। এ বার সংখ্যাটা বেশ খানিকটা বেড়েছে বলে দফতর সূত্রের খবর। সম্প্রতি শেষ হওয়া কুমির গণনা হিসেব অনুযায়ী, সুন্দরবনে ১৬৮টি কুমির রয়েছে। সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের ডেপুটি ফিল্ড ডিরেক্টর জোন্স জাস্টিন বলেন, “সুন্দরবনের ৪২০০ কিমি এলাকা জুড়েই গণনার কাজ হয়েছে। সরাসরি দেখে ও এলাকায় কুমিরের উপস্থিতি অনুভব করে সংখ্যা নির্ধারণ করা হয়েছে।”

ভারতীয় ভূখণ্ডের সুন্দরবনে কতগুলি কুমির রয়েছে, সেই সংখ্যা নির্ধারণে উদ্যোগী হয়েছিল সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্প। ২০১২ সালের পরে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে সেই গণনা শুরু হয়। গত সুমারিতে সুন্দরবনের বিভিন্ন প্রান্তে ৩১টি দল তিন দিন ধরে ঘুরে কুমির গণনার কাজ করেছিল। এ বার ২২টি দল এই কাজ করেছে। সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্প এলাকা এবং ২৪ পরগনা বনবিভাগ এলাকায় কুমিরের খোঁজে ঘুরে ঘুরে তথ্য সংগ্রহ করেছেন শতাধিক বনকর্মী ও কুমির বিশেষজ্ঞ।

বন দফতর সূত্রের খবর, মূলত খালি চোখে দেখেই কুমিরের গণনা করা হয়েছে। কোথাও কুমিরের উপস্থিতি বিশেষজ্ঞেরা অনুভব করলে সেই সংখ্যাও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এ ছাড়াও, যে এলাকায় কুমিরের দেখা মিলছে, সেই এলাকার অক্ষাংশ, দ্রাঘিমাংশ এবং জলের তাপমাত্রা, লবণতার পরিমাণ সবই রেকর্ড করা হয়েছে। নদী-খাঁড়ি এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে কুমিরের সংখ্যা নিয়ে সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে বন দফতর। সুমারিতে থাকা বনকর্মীরা জানান, ১১৪টি কুমিরকে সরাসরি দেখতে পেয়েছেন তাঁরা। বাকি আরও ৫৪টি কুমিরের অস্তিত্ব বোঝা গিয়েছে পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতি দেখে। এর মধ্যে সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্প এলাকায় ৫৯টি কুমিরকে সরাসরি দেখেছেন গণনাকারীরা। আরও ৩৭টি কুমিরের অস্তিত্ব টের পেয়েছেন তাঁরা। ২৪ পরগনা বনবিভাগ এলাকায় ৫৫টি কুমিরকে সরাসরি দেখা গিয়েছে এবং আরও ১৭টি কুমিরের অস্তিত্ব টের পাওয়া গিয়েছে। তবে বন দফতরের দাবি, কুমিরের আসল সংখ্যা আরও বেশি হবে। গণনা থেকে এ বারও ছোট কুমিরদের বাদ রাখা হয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Sundarbans
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE