Advertisement
০৫ ডিসেম্বর ২০২২
Fraud

চাকরি দেওয়ার নামে সাড়ে তিন লক্ষ টাকার প্রতারণা! গাইঘাটায় মহিলাকে আটকে রেখে বিক্ষোভ

বুধবার উত্তর ২৪ পরগনায় চাঁদপাড়ার ফুলসরা এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। এই ঘটনায় গাইঘাটা থানায় প্রতারণার অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

অভিযুক্ত মহিলাকে আটকে রেখে চলল বিক্ষোভ।

অভিযুক্ত মহিলাকে আটকে রেখে চলল বিক্ষোভ। প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বনগাঁ শেষ আপডেট: ২৩ নভেম্বর ২০২২ ২৩:৩৫
Share: Save:

সরকারি চাকরি দেওয়ার নামে এক প্রতিবেশীর কাছ থেকে লক্ষাধিক টাকা নিয়েছেন মহিলা। রাজ্য খাদ্য দফতরের সেই চাকরি তো শেষমেশ মেলেইনি, উল্টে টাকাও ফেরত না দেওয়ায় ওই মহিলাকে আটকে রেখে চলল বিক্ষোভ। বুধবার উত্তর ২৪ পরগনায় চাঁদপাড়ার ফুলসরা এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। এই ঘটনায় গাইঘাটা থানায় প্রতারণার অভিযোগ দায়ের হয়েছে। যদিও অভিযুক্ত মহিলার দাবি, তিনি কারও কাছ থেকে টাকা নেননি। তাঁর বিরুদ্ধে চক্রান্ত করা হয়েছে। তাঁকে মারধর করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন ওই মহিলা।

Advertisement

ফুলসরা এলাকা বাসিন্দা অর্চনা চিন্তাপাত্রের অভিযোগ, ছেলেকে খাদ্য দফতরে চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রতিবেশী মায়া ঘোষ তাঁর কাছ থেকে মোট ৩ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকা নিয়েছেন। কিন্তু মায়া আজ পর্যন্ত কোনও চাকরি দিতে পারেননি। এখন টাকা ফেরত চাইলে অভিযুক্ত টাকা নেওয়ার কথাই অস্বীকার করেন। অর্চনা বলেন, ‘‘মায়া ঘোষের ছেলেমেয়েরা বিভিন্ন সরকারি দফতরে চাকরি করেন। সেই সূত্রে আমার ছেলেকে খাদ্য দফতরে চাকরি দেওয়ার কথা বলেছিলেন উনি। সে কথা শুনে আমরাও ৩ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকা দিয়েছি। এখন ওই টাকা দিতে অস্বীকার করছেন মায়া।’’

স্থানীয় সূত্রে খবর, এর জেরেই প্রতিবেশীরা অর্চনার বাড়িতে মায়াকে ডেকে এনে আটকে রাখেন। টাকা ফেরত দেওয়ার দাবি করা হয়। যদিও প্রতারণার অভিযোগ অস্বীকার করে মায়া বলেন, ‘‘আমি কারও কাছ থেকে কোনও টাকা নিইনি। সকলে চক্রান্ত করে আমায় আটকে রেখেছে। মারধরও করেছে।’’

এই ঘটনায় গাইঘাটা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি গোবিন্দ দাস জানিয়েছেন, মায়া বিভিন্ন সময় একাধিক জনের কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন। এ ব্যাপারে প্রশাসনকে যথাযথ পদক্ষেপ করার কথাও বলেছেন বলে দাবি গোবিন্দের। তাঁর আরও দাবি, ‘‘মায়া এক সময় বামফ্রন্টের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। যদিও বর্তমানে কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত নন উনি।’’

Advertisement

সিটু-র উত্তর ২৪ পরগনা জেলা কমিটির কার্যকারী কমিটির সদস্য কপিল ঘোষ বলেন, ‘‘মায়া ঘোষ অনেক আগে বামফ্রন্টের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। বর্তমানে ওঁর সঙ্গে দলের কোনও সম্পর্ক নেই।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.