Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

৭২ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা না চাইলে অমিতের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ: নোটিস পাঠালেন অভিষেক

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৩ অগস্ট ২০১৮ ১৯:৪৩
অমিত শাহকে আইনি নোটিস অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। —ফাইল চিত্র

অমিত শাহকে আইনি নোটিস অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। —ফাইল চিত্র

বিজেপি সভাপতি অমিত শাহকে মানহানির নোটিস পাঠালেন তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। গত ১১ অগস্ট কলকাতায় মেয়ো রোডের জনসভা থেকে একাধিক বার অভিষেকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছিলেন শাহ। তার প্রেক্ষিতেই আইনি নোটিস পাঠানো হল অমিত শাহের নামে। চিঠি পাওয়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা না চাইলে অমিত শাহের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বাধ্য হবেন, জানানো হয়েছে চিঠিতে।

মেয়ো রোডের জনসভা থেকে শনিবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের বিরুদ্ধে তথা তৃণমূলের বিরুদ্ধে একগুচ্ছ দুর্নীতির অভিযোগ তোলেন অমিত শাহ। নারদ, সারদা, রোজভ্যালি-সহ নানা দুর্নীতির অভিযোগের কথা তুলে ধরে তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দাগার পাশাপাশি অমিত শাহ ‘ভাইপোর দুর্নীতি’ বলেও উল্লেখ করেন। অন্য একটি প্রসঙ্গে অমিত শাহ দাবি করেন, কেন্দ্রীয় সরকার বাংলাকে যে ৩ লক্ষ ৫৯ হাজার কোটি টাকা দিয়েছে, তা লুঠে নিয়েছে ‘সিন্ডিকেট’ আর ‘ভাইপো’।

‘ভাইপো’ বলতে যে অমিত শাহ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপোর কথাই বলতে চেয়েছেন, সে বিষয়ে রাজনৈতিক শিবিরের কোনও সংশয় ছিল না। সোমবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কৌঁসুলি সঞ্জয় বসু যে আইনি চিঠি অমিত শাহের নামে পাঠিয়েছেন, তাতেও লেখা হয়েছে ‘ভাইপো’ বলতে অমিত শাহ অভিষেকের কথাই বোঝাতে চেয়েছেন। চিঠিতে লেখা হয়েছে, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও মিথ্যা অভিযোগ তুলেছেন অমিত শাহ এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সুনাম নষ্ট করার চেষ্টা করেছেন। তাই অমিত শাহকে নিঃশর্ত ভাবে ক্ষমা চাইতে হবে।

Advertisement

আরও পডু়ন: সারদা তদন্তে আরও সক্রিয় সিবিআই, তৃণমূল অ্যাকাউন্টের তথ্য চেয়ে চিঠি ব্যাঙ্ককে

আইনি চিঠিটি পাওয়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে অমিত শাহকে ক্ষমা চাইতে হবে এবং মন্তব্য প্রত্যাহার করতে হবে বলে আইনি নোটিসে লেখা হয়েছে। না হলে এই ‘মানহানিকর’ মন্তব্যের জন্য অমিত শাহের বিরুদ্ধে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় আইনি পদক্ষেপ করবেন বলে জানানো হয়েছে।

আরও পডু়ন: সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ রাজনৈতিক মহল

বিজেপি অবশ্য পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়েছে এই আইনি নোটিসের প্রেক্ষিতে। রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র সায়ন্তন বসু বলেছেন, ‘‘আইনি নোটিস পাঠিয়ে লাভ নেই। ক্ষমতা থাকলে অমিত শাহের বিরুদ্ধে মামলাটা করুন। তার পর বুঝব।’’ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের তরফ থেকে পাঠানো চিঠিতে যে ৭২ ঘণ্টার সময়সীমা অমিত শাহকে দেওয়া হয়েছে। সে প্রসঙ্গে বিজেপি মুখপাত্র বলেছেন, ‘‘আমাদের সবার বিরুদ্ধেই এ রকম অনেক মামলা ওঁরা আগে করেছেন। এ বার অমিত শাহের বিরুদ্ধেও মামলার হুমকি দিচ্ছেন। ৭২ ঘণ্টা কেন, ৭২ সেকেন্ড সময় দিয়েও মামলা করতে পারতেন। অসুবিধা নেই আমাদের। তবে তার আগে বুঝে নেওয়া ভাল যে, আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করা আর অমিত শাহের বিরুদ্ধে মামলা করা এক নয়। মামলাটা করুন, তার পর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বুঝতে পারবেন, কত ধানে কত চাল।’’

আরও পড়ুন

Advertisement