Advertisement
০১ মার্চ ২০২৪
Adhir Chowdhry

Modi: সীমান্তে কী হাল, মোদীর হাতে অধীরের পেন ড্রাইভ

জলঙ্গির কাকমারি এবং বাংলাদেশের রাজশাহির চরঘাটে স্থলবন্দর তৈরির জন্যও প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি জানিয়েছেন বিরোধী নেতা।

ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৭ অক্টোবর ২০২১ ০৭:৫৩
Share: Save:

সীমান্ত এবং নদীর ভাঙনের সমস্যার প্রতিকার চেয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দ্বারস্থ হলেন লোকসভায় বিরোধী দলের নেতা ও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। মুর্শিদাবাদের জলঙ্গি ব্লকে সীমান্তবর্তী এলাকার বাসিন্দারা নিজেদের সমস্যা নিয়ে কী বলছেন, তার অডিয়ো রেকর্ডিং হিন্দিতে ডাব করে প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দিয়ে এলেন পেন ড্রাইভ। জলঙ্গির কাকমারি এবং বাংলাদেশের রাজশাহির চরঘাটে স্থলবন্দর তৈরির জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি জানিয়েছেন বিরোধী নেতা।

অধীরবাবুর বক্তব্য, উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁ এবং ও’পারের পেট্রাপোল বা নদিয়া জেলার গেদে এবং ওই পারের দর্শনায় যেমন সীমান্ত পোস্ট আছে, মুর্শিদাবাদের পরিস্থিতি তেমন নয়। সীমান্তে শিথিলতার সুযোগ নিয়ে গরিব ও বেকার তরুণ প্রজন্মকে চোরাচালান-সহ নানা অবৈধ কাজে ব্যবহার করে অসাধু চক্র। প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির দাবি, পদ্মার উপর দিয়ে জলঙ্গি ও রাজশাহির মধ্যে সড়ক যোগাযোগ তৈরি হলে অর্থনীতির উন্নতি হবে এবং অবৈধ কারবারের সমস্যাও কমবে। এই সূত্রেই জলঙ্গির কাকমারি এবং রাজশাহির চরঘাটে স্থলবন্দর তৈরির কথা বলেছেন অধীরবাবু। মুর্শিদাবাদ ও মালদহ জেলায় নদীর ভাঙনের দীর্ঘকালীন সমস্যার মোকাবিলায় কেন্দ্রের যথাযথ পদক্ষেপের দাবি প্রধানমন্ত্রীর কাছে তুলেছেন অধীরবাবু। এই বিষয়ে আগেই যে কেন্দ্রীয় জলসম্পদ মন্ত্রক এবং রাজ্য সরকারকে চিঠি দেওয়া হয়েছে, জানানো হয়েছে সে কথাও। প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট মহলে কথা বলার আশ্বাস দিয়েছেন।

সাম্প্রতিক কালে দুর্যোগে বারবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সুন্দরবনের বিভিন্ন এলাকা। দক্ষিণবঙ্গের এই এলাকার ঘূর্ণিঝড় ও দুর্যোগপ্রবণ হয়ে ওঠার কথা মাথায় রেখে সুন্দরবনের বাসিন্দাদের ক্ষতি আটকাতে কংক্রিটের বাঁধ নির্মাণে জোর দেওয়ার জন্য মোদীর কাছে আর্জি জানিয়েছেন অধীরবাবু। বিশেষজ্ঞদের দিয়ে স্থায়ী সমাধানের জন্য মতামত নেওয়া এবং কংক্রিট বাঁধ তৈরির জন্য তহবিলের দাবি তুলেছেন তিনি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE