×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০১ অগস্ট ২০২১ ই-পেপার

ভরসা পেলাম, আপনার উষ্ণতা ছুঁয়ে গেল, মমতাকে চিঠি অমর্ত্যর

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৮ ডিসেম্বর ২০২০ ১৪:৪৫
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি অমর্ত্য সেনের।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি অমর্ত্য সেনের।

বিশ্বভারতীর জমি বিতর্কে ‘আপনার সমর্থনে ভরসা পেলাম’। এই ভাষাতেই ‘বোন এবং বন্ধু’ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চিঠির উত্তর দিলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। ঘটনাচক্রে সোমবার অমর্ত্য সেনের বাড়ির কাছাকাছি বোলপুরের গীতাঞ্জলি প্রেক্ষাগৃহে প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। মঙ্গলবার বোলপুরে রাজনৈতিক কর্মসূচিও রয়েছে তাঁর।

মমতার চিঠির জবাবে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ লেখেন, ‘চিঠিতে আপনার সমর্থনের কথা জানতে পেরে আমি খুব খুশি। এটা শুধু আমাকে স্পর্শ করেনি, আমাকে আশ্বস্ত হয়েছি। আপনার ব্যস্ত জীবনের মধ্যেও আক্রান্ত মানুষের জন্য আপনি সময় বের করেছেন। আপনার শক্তিশালী কণ্ঠ, যা ঘটছে তা নিয়ে আপনার উপলব্ধি আমার কাছে শক্তির উৎসস্বরূপ’। বিশ্বভারতীর জমি বিতর্কে তাঁর পাশে দাঁড়ানোয় মুখ্যমন্ত্রীর পদক্ষেপের ভূয়সী প্রশংসার পাশাপাশি তাঁকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন ওই অর্থনীতিবিদ।

সম্প্রতি শান্তিনিকেতনে ‘প্রতীচী’র জমি ঘিরে বিতর্ক তৈরি শুরু হয়েছে। তার পরই চিঠি লিখে ওই অর্থনীতিবিদের পাশে থাকার বার্তা দেন মমতা। মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, জমি বিতর্কের কথা জানতে পেরে তিনি ‘বিস্মিত এবং আহত’। মমতার বার্তা, ‘বিশ্বভারতীর কিছু নব্য হানাদার সম্প্রতি আপনার পারিবারিক সম্পত্তি নিয়ে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলতে শুরু করেছে’। সেই সঙ্গে বলেন, ‘এ দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠতার গোঁড়ামির বিরুদ্ধে আপনার লড়াইয়ে আমার পূর্ণ সমর্থন রয়েছে’। নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদকে লেখা চিঠিতে তাঁকে ‘সম্মাননীয় অমর্ত্যদা’ বলে সম্বোধন করেছেন মমতা। চিঠির শেষে প্রণামও জানিয়েছেন। লিখেছেন, ‘অনুগ্রহ করে এ দেশের আধিপত্যবাদ এবং অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমাকে আপনার বোন এবং বন্ধু হিসেবে গণ্য করুন’। এ বার মুখ্যমন্ত্রীর সেই চিঠিরই উত্তর দিলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ।

Advertisement
Advertisement