Advertisement
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Sovan Chatterjee

মিছিলে না যেতে পারায় ক্ষমাপ্রার্থী বৈশাখী, শোভনও একা ফেলে যাননি

মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমের সামনে এসে, মিছিলে না থাকার জন্য ক্ষমা চেয়ে ‘কারণ’ ব্যাখ্যা করলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবী এবং বিজেপি নেত্রী।

শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।— ফাইল চিত্র

শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।— ফাইল চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৫ জানুয়ারি ২০২১ ১৯:১৫
Share: Save:

শোভন-বৈশাখী সোমবারের রোড শো-তে অংশ না নেওয়ায় বিতর্কের ঝড় উঠেছে রাজ্য বিজেপির অন্দরমহলে। সেই আঁচ টের পেয়েই বিতর্কে ইতি টানতে উদ্যোগী হলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সংবাদমাধ্যমের সামনে এসে, মিছিলে না থাকার জন্য ক্ষমা চেয়ে ‘কারণ’ ব্যাখ্যা করলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবী এবং বিজেপি নেত্রী। বললেন, ‘‘কালকের মিছিলে যেতে পারল খুব আনন্দ হত। কিন্তু শারীরিক অসুস্থতার কারণেই যেতে পারিনি। বিকেল তিনটের সময় ক্ষীণ চেষ্টা করেছিলাম। কোনও ভাবে যদি রেডি হয়ে বেরনো যায়। কিন্তু শোভনবাবুরও একশো মতো জ্বর ছিল সারাদিন। তা সত্ত্বেও উনি চেষ্টা করেছিলেন, ১০ মিনিটের জন্য যদি যাওয়া যায়। কিন্তু শারীরিক অসুস্থতার কারণেই আর যাওয়া হয়ে ওঠেনি।’’

Advertisement

বিজেপি সূত্র থেকে সোমবারের মিছিলের কয়েক ঘণ্টা আগে থেকেই জানা যাচ্ছিল বৈশাখী কিছু শর্ত আরোপ করেছেন। শোনা যাচ্ছিল ওই দিন সকালের একটি ‘হট’ ফোনালাপের কথাও। ফোনের কথা অস্বীকার করেননি বৈশাখী। তাঁর দাবি, ‘‘হঠাত্ করে সকালে বিজেপির কল সেন্টার থেকে ফোন আসে। অসুস্থ অবস্থায় আমি কোনও রকমে ফোনটা ধরি। সেখানে জানতে চাওয়া হয়, আজ শোভন চট্টোপাধ্যায়ের মিছিলটা হচ্ছে তো! আমি বলি হচ্ছে। আমাকে বলা হয়, আজ শুধু শোভন চট্টোপাধ্যায়ের মিছিল। আপনার আসার প্রয়োজন নেই। আমি জানতে চাই, আপনি কোথা থেকে বলছেন, জবাবে বলা হয় আমি বিজেপি-র কল সেন্টার থেকে বলছি। কিন্তু আমাদের মিছিলে না যাওয়ার আসল কারণ এই ফোনটা ছিল না। আসল কারণ ছিল আমার অসুস্থতা।’’

বিজেপি-র অন্দরমহলে কিন্তু সোমবারের কাণ্ড ঘিরে তীব্র অসন্তোষের জন্ম হয়েছে। শীর্ষ নেতৃত্ব ক্ষুব্ধ এবং বিব্রত। শোভন-বৈশাখী কী ড্যামেজ কন্ট্রোলের চেষ্টা শুরু করে দিলেন? শোভন এখনও প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি। বৈশাখী বলছেন, ‘‘একটি মিছিলে না যাওয়া কোনও প্রভাব ফেলবে বলে আমার মনে হয় না। এটাই শেষ মিছিল না। আগামী দিনেও অনেক মিছিল হবে। সেখানে আমরা একসঙ্গেই পা মেলাব।’’

আরও পড়ুন: ভাল ছেলে, কোনও ভুল বোঝাবুঝি নেই, লক্ষ্মীর ইস্তফা প্রসঙ্গে মমতা

Advertisement

আরও পড়ুন: উইপোকাদের তাড়ান, লক্ষ্মীর পাশে দাঁড়িয়ে দলকে বৈশালী

শোভন চট্টোপাধ্যায় যে কলকাতা জোনের পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব পাওয়ার পরেই কাজ শুরু করে দিয়েছেন তাও এ দিন সংবাদমাধ্যমের কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন বৈশাখী। তিনি বলেন, ‘‘শোভন চট্টোপাধ্যায় ভুবনেশ্বর থেকে কলকাতায় ফেরেন ২ তারিখ রাত ২টোয়। ৩ তারিখেই তিনি কাজে লেগেছেন। আজ রাতেও ব্যাক টু ব্যাক মিটিং রয়েছে। নিজের কর্মকাণ্ড ডিজাইন করছেন। আমরা যারা তিনজন কমিটিতে আছি তারাও সাহায্য করছি। আগামী দু একদিনের মধ্যেই শোভনবাবু সাংবাদিক সম্মেলন করে নিজের কার্যক্রম প্রসঙ্গে জানাবেন।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.