Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

খোলা রেলগেটে ছুটছে ট্রেন, সাসপেন্ড কর্মী

নিজস্ব সংবাদদাতা
কালনা ২২ ডিসেম্বর ২০২০ ০৫:২১
জিউধরা রেলগেটে দাঁড়িয়ে ট্রেন, পাহারায় বাসিন্দারা। নিজস্ব চিত্র

জিউধরা রেলগেটে দাঁড়িয়ে ট্রেন, পাহারায় বাসিন্দারা। নিজস্ব চিত্র

রাত ৯টা। রেলগেট খোলা, কিন্তু ছুটছে ট্রেন। বিপদের হাত থেকে রক্ষা পেতে রেলগেটের দু’পাশে দাঁড়িয়ে যানবাহন নিয়ন্ত্রণ করলেন এলাকাবাসীর একাংশ। পূর্ব বর্ধমানের কালনার জিউধরার সুভাষপল্লি এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, আগেও এই ধরনের গাফিলতি করেছেন গেটম্যান দীপক প্রসাদ। সোমবার ওই গেটম্যানকে সাসপেন্ড করা হয়েছে বলে পূর্ব রেলের তরফে জানানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রের দাবি, রবিবার রাতে ৯টার পর থেকেই খোলা ছিল রেলগেটটি। কাছাকাছি ঘরে গেটম্যান থাকলেও ডেকেও সাড়া মিলছিল না তাঁর। এর মধ্যেই বেশ কয়েকটি আপ-ডাউন ট্রেন যাতায়াত করে। বিপদ বুঝে এলাকার বাসিন্দারা গেটম্যানের দরজায় ধাক্কাধাক্কি করেন। অভিযোগ, দরজা ভেতর থেকে বন্ধ ছিল। কোনও সাড়াও দেননি তিনি। এর পরেই শীতের রাতে রেলগেটের দু’দিকে লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে পড়েন কয়েকজন। দূর থেকে আসা গাড়ি থামানোর কাজ করতে শুরু করেন তাঁরা। রাত ৯টা ৫০ মিনিট নাগাদ আপ রাধিকাপুর এক্সপ্রেসের চালক রেলগেটের কিছুটা আগে গাড়ি দাঁড় করিয়ে দেন। ঘটনাস্থলে আসেন আরপিএফের আধিকারিকেরাও। এলাকার মানুষ এবং তাঁদের ডাকাডাকিতে শেষ পর্যন্ত দরজা খোলেন গেটম্যান দীপক প্রসাদ। দ্রুত তাঁর জায়গায় অন্য এক গেটম্যানকে নিয়োগ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। দীপকবাবু দাবি করেন, ‘‘আমাকে কেউ ফোন করেনি। কেন আমি গেট বন্ধ করব!’’

ঘটনার জেরে ক্ষোভ ছড়ায় এলাকায়। নিপু মণ্ডল নামে এক যুবক বলেন, ‘‘শীতের মধ্যে রাস্তায় লোকজন কম। ফাঁকা রাস্তায় যানবাহন দ্রুত গতিতে চলে। ছুটে আসা ট্রেনের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে বড় বিপদ হয়ে যেত। আমরা কয়েকজন না এলে কী হত জানি না।’’ স্থানীয় কয়েকজনের দাবি, শনিবারও একই ঘটনা ঘটিয়েছিলেন ওই গেটম্যান। পরিতোষ ঘোষ নামে এক যুবক বলেন, ‘‘ওই দিন গেট খোলা দেখে অথচ ট্রেন চলছে দেখে ঘণ্টাখানেক ধরে ডাকাডাকি করা হয়। সাড়া দেননি উনি। প্রথমে মনে হয়েছিল, ঘরের মধ্যে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন কি না। পরে নিজেই ঘরের দরজা খুলে দিয়ে নানা যুক্তি দেখাতে শুরু করেন।’’ এ দিন রেলের তরফে এলাকার বাসিন্দাদের আশ্বাস দেওয়া হয়, এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে না।

Advertisement

পূর্ব রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই সময় কয়েকটি ট্রেন যাতায়াত করলেও সুভাষপল্লি এলাকার গেটম্যান কাছে সঙ্কেত না পাওয়ার কথা চালকেরা কাছাকাছি অম্বিকা কালনা স্টেশনে জানিয়ে যান। পূর্ব রেলের নবদ্বীপ শাখার সিনিয়র সেকশন ইঞ্জিনিয়ার (পারমানেন্ট ওয়ে) ডেভিপ্রসাদ বাগ বলেন, ‘‘কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে ওই গেটম্যানকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তদন্ত চলেছে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement